শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০৩:০৯ পূর্বাহ্ন

২৮ এপ্রিলের পর একচুয়াল বা নিয়মিত আদালত চালু করা হক

জসিম উদ্দিন
  • প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৭ এপ্রিল, ২০২১
  • ১২৩ Time View
জসিম উদ্দিন

জসিম উদ্দিন: চলমান করোনা সংক্রমণের কারণে সার্বিক কার্যাবলি/চলাচলে সরকারি বিধি-নিষেধের মধ্যে আসামি গ্রেফতার ও রিমান্ড, স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব উপেক্ষা করে একচুয়াল আদালতে শুনানি, এটা কি আইনসঙ্গত ?

সরকারি বিধি-নিষেধের মধ্যে বিশেষ মামলায় একচুয়াল আদালতে রিমান্ড শুনানি আইনের পরিপ্রন্থী নয়? করোনা অজুহাতে সরকারি বিধি-নিষেধের মধ্যে পরিবহনবিহীন স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব উপেক্ষা করে শপিং মল ও দোকান খোলা। সুতরাং ক্রেতা-বিক্রেতা কি করোনা থেকে সুরক্ষিত?

বাংলাদেশের সব আইনজীবীদের একটাই দাবি, ২৮ এপ্রিলের পর একচুয়াল বা নিয়মিত আদালত চালু করা হক। অন্যথায়, বাংলাদেশের সব আইনজীবীর মাসিক সম্মানিত ভাতা, বোনাস, উৎসব ভাতা সরকারিভাবে চালু করা হক।

সরকারি বিধি-নিষেধের মধ্যে বাংলাদেশের সাধারণ আইনজীবী, পরিবহন শ্রমিক, গরিব ও খেটে খাওয়া মানুষের জীবন জীবিকা ও চিকিৎসার ব্যবস্থা না করে হাস্যকর ও তামাশার সরকারি বিধি-নিষেধের নামে মানুষকে কষ্ট না দিয়ে, প্রয়োজনে বাংলাদেশের সর্বত্র ‘অনিশ্চিত করোনা’ থেকে বাঁচার জন্য কারফিউ দিন।

আমরা সবাই ভয়াবহ অনিশ্চিত করোনার হাত থেকে রক্ষার জন্য নিজেরাই নিজেদের প্রতি সচেতন ও যত্নবান হযই এবং স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে সব সময় মাস্ক ব্যবহার করি।

লেখক: এডভোকেট

Share This Post

আরও পড়ুন