শিরোনাম
চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ে জরুরী রোগী ব্যবস্থাপনার দুই দিনের প্রশিক্ষণ শুরু চা শ্রমিক নেতা বাবুল বিশ্বাসের মৃত্যুতে চা শ্রমিক নেতাদের শোক প্রকাশ বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উপর ভ্যাট চায় না চট্টগ্রাম সিটি ছাত্রদল বিডার কাছে ব্যবসায় সহজীকরণের উদ্যোগ চায় বিজিএমইএ মিরসরাই বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরে বেপজার প্লট পেল বঙ্গ প্লাস্টিকসহ দেশি বিদেশি দশ প্রতিষ্ঠান ভারতীয় ভেরিয়েন্ট দেশে ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ডে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে কাউন্সিলর শহিদুল আলম টেকনাফে কোস্ট গার্ডের অভিযানে ৮০০ পিস আন্দামান গোল্ড বিয়ার জব্দ প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা তহবিলে এক কোটি টাকা অনুদান দিল চট্টগ্রাম চেম্বার প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের ছুটি বাড়ল ৩০ জুন পর্যন্ত
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০২:২০ পূর্বাহ্ন

হুমায়ুন ফরীদি: এমন প্রতিভাবান মানুষ পৃথিবীতে খুব অল্প

নুরুন্নবী নুর / ৪৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ২৯ মে, ২০২১

নুরুন্নবী নুর: হুমায়ুন ফরিদী, আমার শৈশব থেকে কৈশোর এখন যৌবনে, প্রতিটি ক্ষণে ভাল লাগার পুরো জায়গা জুড়ে অবস্থান করেছিলেন, বর্তমানেও করেন। ছোটবেলা থেকে, ভদ্রলোকের অভিনয় আমাকে বেশ মুগ্ধ করত/করে। উঁনাকে নিয়ে আমার অনেক কৌতূহল। উঁনার অভিনয়শৈলী, সাধারণ যে কোন দর্শককে আনন্দ দিবেই। এক কথায়, সাংস্কৃতিক অঙ্গনে সব মাধ্যমে তিনি সমান জনপ্রিয়। মঞ্চনাটক থেকে শুরু করে টিভি নাটক ও চলচ্চিত্রে নানা চরিত্রে অভিনয় করে, রীতিমত তাক লাগিয়ে দিয়েছিলেন। যে কোন চরিত্রের সাথে তিনি মিশে যেতে পারতেন। সবরপ্রকার চরিত্রে ইতিবাচক ও নেতিবাচক, চরিত্র রূপায়ণে বেশ মুন্সিয়ানা ভাব ফুটিয়ে তুলতে পারতেন। আমার দৃষ্টিতে তিনি একজন অভিনয়গুরু। যেকোন নবীন শিল্পী, তাঁকে অনুসরণ-অনুকরণ করতেই পারেন।

ছোটবেলা থেকে বর্তমান সময়ে হুমায়ুন ফরিদীর অভিনয়কে বেশ অনুসরণ করতাম/করি। তাঁর চলে যাওয়া আমার জন্য বেশ দুঃখের ও কষ্টকর। উঁনাকে আমি ভুলতে পারি না। স্বচক্ষে কোন দিন দেখিনি, তবে অবয়ব আমার চোখের সামনে ভাসে। এমন প্রতিভাবান মানুষ, পৃথিবীতে খুব অল্প। সহজে, জন্ম নেয় না। বলা যায়, এক বারই জন্ম নেয়। আর দিয়ে যায়, অনেক। জীবদ্দশায়, যতটুকু, উঁনার সম্পর্কে জানতে পারেছি, তিনি ছিলেন একজন স্পষ্টভাষী মানুষ। ঘুরিয়ে ফিরিয়ে কথা বলা পছন্দ করতেন না। জীবন ও প্রেম সম্পর্কে, তাঁর যে মনস্তাত্ত্বিক দর্শন, তা যে কোন মানুষকে মোহিত করবে।

তাঁর অভিনীত মঞ্চনাটক স্বচক্ষে দেখা না হলেও অনেক টিভিনাটক ও চলচ্চিত্র দেখেছি, আজো দেখে চলছি। সে হিসেবে অভিনেতা হিসেবে তিনি একজন পুরোদস্তুর স্বয়ংসম্পূর্ণ শিল্পী মানুষ। নিজেকে তিনি অভিনেতা হিসেবে পরিচয় দিতে স্বাচ্ছন্দ্যবোধ অনুভব করতেন।

যে সময়টাতে, আমরা নবীন প্রজন্ম তাঁর কাছে শিখব, ঠিক সে সময়ে তিনি আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন। তবে দিয়ে গেলেন অনেক স্মৃতি ও ভালবাসা।

আমার বুদ্ধিবয়সে আমার দেখা, তাঁর অভিনীত টিভিনাটক ‘সংসপ্তক’এ রমজান চরিত্র, ‘পালাবি কোথায়’ ও ‘ভন্ড’ সিনেমাদ্বয়ে যে অভিনয় করেছেন, তা কখনোই ভুলব না। তাছাড়া জীবদ্দশায় তিনি অসংখ্য টিভি নাটকও পরিচালানা করেছেন। সম্প্রতি, তাঁর পরিচালনায় ‘চন্দ্রগ্রস্থ’ নাটকটি দেখেছি। নাটকটি দেখে মনে হোল, তিনি শুধু অভিনেতা হিসেবে সফল না, তিনি একজন পরিচালক হিসেবেও গুণী মানুষ। বেঁচে থাকলে হয়ত, আরও অনেক কাজ করতেন, করাতেন।

আমার খুব আশা, দু’জন মানুষকে নিয়ে উচ্চতর ডিগ্রি নেয়া (এমপিল/পিএইচডি) নেয়া। তাঁদের বর্ণাঢ্য কর্মময় জীবনকে নিজে জানা ও সংস্কৃতিপ্রেমী সাধারণ মানুষকে জানানো। তন্মধ্যে অভিনেতা হুমায়ুন ফরিদী একজন, অন্যজন পরিচালক ও চলচ্চিত্রগুরু ঋত্বিক ঘটক। দু’জনেই প্রয়াত হয়েছেন। অবশ্য শিক্ষা জীবনে একজনকে নিয়ে অল্প কাজ হয়েছে। মাস্টার্স পর্বে, ঋত্বিক ঘটক স্যারকে নিয়ে ‘অসমাপ্ত ঋত্বিক’ শিরোনামে একটি তথ্যচিত্র বানিয়েছি। করোনাকালে এখনো মুক্তি দিইনি। তবে খুব তাড়াতাড়ি নিজের ভেরিফাইড ইউটিউব চ্যানেলে (The Diary of nur) আপলোড দিব বলে, আশা রাখছি।

আজ, হুমায়ুন ফরিদী স্যারের ৬৯তম জন্ম বার্ষিকী। এমন দিনে, হুমায়ুন ফরিদীর প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা ও ভালবাসা। তিনি আমাদের কাছে, তাঁর করে যাওয়া কাজগুলো দিয়ে চিরদিন বেঁচে থাকবেন। ওপারে ভাল থাকবেন। হুমায়ুন আহমেদ জন্মগ্রহণ করেন ২৯ মে ১৯৫২, মৃত্যুবরণ ১৩ ফেব্রুয়ারি ২০১২।

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ