বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৯:১১ অপরাহ্ন

স্যামসাংয়ের ডিজিটাল ইনভার্টার যুক্ত স্প্লিট এসি: গরমে সাধ্যের মধ্যে স্বস্তি

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ : শনিবার, ১৪ মে, ২০২২
  • ২৮ Time View

এয়ার কন্ডিশনারের (এসি) বিষয়ে একটা প্রচলিত ধারণা হচ্ছে, এসি কিনতে অনেক টাকা খরচ করতে হয়। আর স্যামসাংয়ের মত বিশ্বের নামকরা ব্র্যান্ডের এসি হলে তো কথাই নেই! পকেটের ওপর চাপ ছাড়াই যে কেউ যাতে স্বাচ্ছন্দ্যে এসি কিনতে পারেন, তাই স্যামসাং বাজারে এনেছে ডিজিটাল ইনভার্টার যুক্ত দেড় টনের ইনভার্টার স্প্লিট এসি। সাশ্রয়ী দামের অসাধারণ এ এয়ার কন্ডিশনারে রয়েছে আকর্ষণীয় ফিচার, যা এ দামে এসিটিকে করেছে বাজারে সেরা। ডিজিটাল ইনভার্টার বুস্ট প্রযুক্তি, ইজি ফিল্টার প্লাস ও ট্রিপল প্রটেক্টর প্লাস যুক্ত এ এসিটির আগের দাম যেখানে ছিল ৯৫ হাজার ৯০০ টাকা, তা এখন মাত্র ৭৯ হাজার ৯০০ টাকায় পাওয়া যাচ্ছে। এ গরমে সাধ্যের মধ্যে চমকপ্রদ ফিচারযুক্ত এসির চেয়ে দারুণ আর কী হতে পারে!

স্যামসাংয়ের এ এসিতে রয়েছে বিশ্বের প্রথম আট পোল ডিজিটাল ইনভার্টার কম্প্রেসর। বাজারে প্রচলিত ফিক্সড-স্পীড কম্প্রেসরের জায়গায় এ এসিতে রয়েছে ডিজিটাল ইনভার্টার বুস্ট প্রযুক্তি, যার ফলে এটি ঘন ঘন চালু ও বন্ধ করার প্রয়োজন হয় না ও চাহিদা অনুযায়ী তাপমাত্রা বজায় রাখে। পাশাপাশি, ৭৩ শতাংশ পর্যন্ত বিদ্যুৎ সাশ্রয় করে। এ ছাড়াও, এতে নিওডিমিয়াম দিয়ে তৈরি শক্তিশালী চুম্বক ও টুইন টিউব মাফলার ব্যবহার করা হয়েছে। ফলে এসি তেমন শব্দ করে না আর সারা রাত স্বস্তির ঘুম নিশ্চিত হয়। এ এসিতে ফাস্ট কুলিং ফিচার থাকায় ৪৩ শতাংশ দ্রুত গতিতে বাতাস ঠান্ডা হয় এবং এসিটি ১৫ মিটার পর্যন্ত ঠান্ডা বাতাস ছড়িয়ে দিতে পারে।

এ ছাড়াও, এর ইজি ফিল্টার প্লাস হিট এক্সচেঞ্জার পরিস্কার রাখার পাশাপাশি ধুলাবালি, পোষা প্রাণীর পশম ও ফাইবার সহজে আঁটকে ফেলে ও এর ব্যতিক্রমী ‘জিওলাইট’ ও ‘সিলভার আয়ন’ কোটিংয়ের সাথে ৯৯ শতাংশ পর্যন্ত ক্ষতিকারক ব্যাকটেরিয়া দূর করে। ফলে, সতেজ বাতাসে নিশ্চিন্তে নিঃশ্বাস নেয়া সম্ভব হয়। এর অ্যালুমিনিয়াম ডুরাফিন কনডেনসার ক্ষয় প্রতিরোধী ও মাইক্রো চ্যানেলের মাধ্যমে দ্রুত গতিতে তাপ বিনিময় নিশ্চিত করে। এ ডুরাফিন ১০০ দিনের বেশি সী ওয়াটার অ্যাসেটিক এসিড টেস্ট (এসডব্লিউএএটি) পাস করেছে ও অধিক কার্যকারিতার জন্য এর ভিন্নধর্মী আকার তাপ বিনিময়ের জন্য বেশি জায়গা দেয়। এতে আরো রয়েছে ট্রিপল প্রটেক্টর প্লাস, যা কম্প্রেসরকে বিদ্যুতের উৎস দ্বারা ওভারলোড হওয়া বা বৈদ্যুতিক ওঠানামা থেকে রক্ষা করে। এর সার্কিট ৮০-৪৫০ ভোল্ট পর্যন্ত ভোল্টেজ থেকে কন্ট্রোলারকে সুরক্ষিত রাখে।

অন্য দিকে, এর অ্যান্টি-কোরোশন কোটিং কনডেনসারকে ক্ষয় হতে ও ক্যাবিনেটকে মরিচার হাত থেকে রক্ষা করে।

এত সব উদ্ভাবনী ফিচার যুক্ত এ এসির বিষয়ে তাই নির্দ্বিধায় বলাই যায়, সুলভ দামে এ এসিটিই সেরা। বাজারের অন্যান্য গ্লোবাল এসি ব্র্যান্ডের তুলনায় স্যামসাংয়ের এ এসিটি সবচেয়ে বেশি সাশ্রয়ী। এ ছাড়াও, আরো অধিক স্বাচ্ছন্দ্য নিশ্চিত করতে এ এসি কিনলে থাকছে দশ বছরের কম্প্রেসর ওয়ারেন্টি ও বিনামূল্যে ইনস্টলেশন, বিনামূল্যে ডেলিভারি, ১৬ ফুট দীর্ঘ স্যামসাং কপার পাইপ ও প্রথম বছরে বিনামূল্যে তিনটি প্রো-অ্যাকটিভ সেবাসহ বিভিন্ন বিক্রয়োত্তর সেবা। এটি তিন বা ছয় মাসের ইএমআই সুবিধার সাথে কেনা যাবে।

তাই, আর দেরি না করে এখনই ঘুরে আসুন আপনার নিকটস্থ স্যামসাং আউটলেট, আর লুফে নিন এ আকর্ষণীয় ডিল!

পবা/এমএ

Share This Post

আরও পড়ুন