শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৮:১৭ অপরাহ্ন

স্বেচ্ছায় কর্ণফুলী দূষণ: চিন হুং ফাইবার্সের জরিমানা চার লাখ ৮০ হাজার টাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশ : সোমবার, ১ মার্চ, ২০২১
  • ২৮০ Time View

চট্টগ্রাম: ত্রুটিপূর্ণভাবে ইটিপি পরিচালনা ও গ্রহণযোগ্য মানমাত্রা বহির্ভূত তরল বর্জ্য নির্গমনের মাধ্যমে কর্ণফুলী নদী দূষণের দায়ে নগরীর চান্দগাঁও শিল্প এলাকায় অবস্থিত চিন হুং ফাইবার্স লিমিটেডের বিরুদ্ধে চার লাখ ৮০ হাজার টাকা পরিবেশগত ক্ষতিপূরণ আরোপ করা হয়েছে।

সোমবার (১ মার্চ) সকালে শুনানী শেষে ক্ষতিপূরণের এ আদেশ দেন পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ের পরিচালক মোহাম্মদ নূরুল্লাহ নূরী।

এর আগে গত ১৬ ফেব্রুয়ারি কার্যালয়ের উপপরিচালক মিয়া মাহমুদুল হক ও সহকারী পরিচালক রোমানা আকতারের সমন্বয়ে একটি এনফোর্সমেন্ট টীম কারখানাটির ইটিপি পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে ইটিপির ক্লিয়ার ওয়াটার ট্যাংক ইউনিটের সাথে পাশের ড্রেনের সরাসরি সংযোগ পরিলক্ষিত হয়। এতে ক্লিয়ার ওয়াটার ট্যাংক হতে পাম্পের মাধ্যমে তরল বর্জ্য প্রেসার ফিল্টার ট্যাংকে প্রবাহিত না করে সরাসরি ড্রেনে নির্গমনের সুযোগ রয়েছে মর্মে দেখা যায়, যা বাইপাস মর্মে প্রতীয়মান হয়। পরিদর্শনকালে ইটিপির আউটলেট হতে তরল বর্জ্যের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। নমুনা বিশ্লেষণী ফলাফলে পিএইচ প্যারামিটার গ্রহণযোগ্য মানমাত্রার বাইরে পাওয়া যায়। এছাড়া গত ১৭ ডিসেম্বরের নমুনা বিশ্লেষণী ফলাফলেও পিএইচ এবং বিওডি৫ প্যারামিটার দুইটি গ্রহণযোগ্য মানমাত্রার বাইরে পাওয়া যায়। অর্থাৎ কারখানা কর্তৃপক্ষ কর্তৃক দীর্ঘ দিন ধরে ত্রুটিপূর্ণভাবে ইটিপি পরিচালনা করে গ্রহণযোগ্য মানমাত্রা বহির্ভূত তরল বর্জ্য নির্গমনের মাধ্যমে পরিবেশ ও প্রতিবেশ ব্যবস্থার ক্ষতিসাধন বিশেষভাবে কর্ণফুলী দূষণের বিষয়টি প্রমাণিত।

এ প্রেক্ষিতে সোমবার শুনানী শেষে বাংলাদেশ পরিবেশ সংরক্ষণ আইন, ১৯৯৫ (সংশোধিত ২০১০) এর ধারা সাত অনুযায়ী প্রতিষ্ঠানটির বিরুদ্ধে চার লাখ ৮০ হাজার টাকা পরিবেশগত ক্ষতিপূরণ আরোপ করা হয়। আরোপকৃত অর্থ ট্রেজারী চালানের মাধ্যমে আগামী সাত দিনের মধ্যে জমার নির্দেশ দেয়া হয়। এর পাশাপাশি দ্রুত বাইপাস বন্ধ করার জন্য এবং ইটিপি আধুনিকায়নের লক্ষ্যে ড্রংয়িং, ডিজাইন পরিবেশ অধিদপ্তরে দাখিল করার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন মোহাম্মদ নূরুল্লাহ নূরী।

Share This Post

আরও পড়ুন