মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০১:৩৭ অপরাহ্ন

স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে চিকিৎসক-কর্মচারীদের শতভাগ উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক / ২৩৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১০ মার্চ, ২০২১

চট্টগ্রাম: সমন্বিতভাবে স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিতকরণ বিষয়ক এক সভা (১০ মার্চ) বুধবার সকাল ১১টায় চট্টগ্রাম সিটির আন্দরকিল্লাস্থ চট্টগ্রাম জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের কর্ণফুলী আরবান প্রকল্পের সহযোগিতায় জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় এ সভার আয়োজন করেন।

ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মোহাম্মদ আসিফ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ে মূল বিষয় উপস্থাপন করেন ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের কর্ণফুলী আরবান প্রকল্প চট্টগ্রামের টেকনিক্যাল কোঅর্ডিনেটর (আইওয়াশ ও সিইএসপি ) রবার্ট কমল সরকার।

এতে অতিথি ছিলেন ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের এপিসি ম্যানেজার ষ্টিফেন হালদার রুবেন, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডাক্তার মোহাম্মদ নুরুল হায়দার, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এসআইএমও ডাক্তার এসএম জাহিদ ও আইইডিসিআরের মেডিকেল অফিসার ডা. সাবিজা ইয়াছমিন।

সভায় বক্তারা বলেন, ‘সমাজের ঝুঁকিপূর্ণ ও পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠী থেকে শুরু করে সকলের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে বর্তমান সরকারের পাশাপাশি ওয়ার্ল্ড ভিশন আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে। সিটি করপোরেশন এলাকায় কোভিড-১৯ মোকাবেলা, স্বাস্থ্য সুরক্ষা, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন, স্যানিটেশন ও সুপেয় পানি নিশ্চিতকরণে সরকারের সাথে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের কর্ণফুলী আরবান ও অন্য বেসরকারী সংস্থা এগিয়ে আসার কারণে সেবার মান বৃদ্ধি পেয়েছে।’

সভায় জানানো হয়, আরবান এলাকায় শ্রমজীবী শিশুদেরকে টেকনিক্যাল শিক্ষায় সম্পৃক্তকরণ, বাল্য বিবাহ, শিশু শ্রম, নারী-শিশু নির্যাতন রোধ ও শিশুবান্ধব নগরী গড়তে ওয়ার্ল্ড ভিশন বিশেষ ভূমিকা পালন করছে। স্বাস্থ্য সেবার মানোন্নয়নের মাধ্যমে হেলদি সিটি গড়তে হলে সমন্বিত উদ্যোগের বিকল্প নেই। এ জন্য স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে চিকিৎসক-কর্মচারীর শতভাগ উপস্থিতি নিশ্চিতসহ পর্যাপ্ত চিকিৎসা সামগ্রী মজুদ রাখতে হবে।’

সভাপতির বক্তব্যে ডাক্তার মোহাম্মদ আসিফ খান বলেন, ‘কাজের মা-শিশুর স্বাস্থ্য বিষয়ক সচেতনতা কার্যক্রমের পাশাপাশি ওয়ার ও স্যানিটেশন বিষয়ক কাজে ওয়ার্ল্ড ভিশন আন্তরিকভাবে কাজ করে যাচ্ছে।’

তিনি উন্নয়ন সহযোগীদের মধ্যে আন্ত সমন্বয় বৃদ্ধি, ওভারলেপিং রোধ ও সরকারী মনিটরিং জোরদার করার উপর গুরুত্বারোপ করেন।

কর্ণফুলী আরবান প্রকল্প চট্টগ্রামের টেকনিক্যাল কোঅর্ডিনেটর রবার্ট কমল সরকার জানান, চট্টগ্রাম নগরীর চারটি ওয়ার্ড যথাক্রমে বাকলিয়া, ষোলশহর, মোহরা ও চান্দগাঁও ওয়ার্ডে ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশে পক্ষ থেকে শিশুদের পুষ্টি, জিএমপি, মা-শিশুর স্বাস্থ্য সেবা, গর্ভকালীন, প্রসবকালীন ও প্রসব পরবর্তী পরিচর্যা বিষয়ক পরামর্শ, রেফারাল লিংকেজ, ওয়াটার ও সেনিটেশন, বর্জ্য ব্যাবস্থাপনা বিষয়ক, সেনিটারী টয়লেট স্থাপন এবং কোভিড-১৯ প্রশমনে সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পূর্ব বাকলিয়া মা-শিশু ১০ শয্যা হাসপাতালের মেডিকেল অফিসার ডাক্তার সুপর্ণা দে, সিটি করপোরেশন আরবান ডিসপেনসারীর মেডিকেল অফিসার ডাক্তার জয়ন্তী সরকার, জেলা স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধায়ক সুজন বড়ুয়া, ওয়ার্ল্ড ভিশনের প্রোগ্রাম অফিসার খ্রীস্টফার কুইয়া, কারিতাসের প্রকল্প সমন্বয়ক ব্রাইন এন্টনিউ, ইমেজের ক্লিনিক ম্যানেজার রঞ্জিত কুমার শীল, কোডেকের কোঅর্ডিনেটর জুলি বড়ুয়া, জেলা ইপিআই সুপার মো. হামিদ আলী, ইপিআই টেকনোলজিস্ট কাজল কান্তি পাল প্রমূখ।

প্রেস বার্তা

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ