মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০১:৩৫ অপরাহ্ন

স্থানীয় পর্যায়ে তথ্য কেন্দ্র গড়ে তোলার কোন বিকল্প নেই: ইপসা

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক / ৬৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

চট্টগ্রাম: ন্যাশনাল এলায়েন্স অফ হিউমেনিটেরিয়ন একটরস বাংলাদেশের (নাহাব) বিভাগীয় এডভোকেসী সভা বুধবার (১৭ ফেব্রুয়ারী) অনলাইনে অনুষ্ঠিত হয়।

বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা ইপসার উদ্যোগে আয়োজিত এ সভায় চট্টগ্রাম এবং সিলেট বিভাগের বিভিন্ন উন্নয়ন সংস্থার অংশগ্রহণে স্থানীয় পর্যায়ে দুর্যোগ সম্পর্কিত তথ্য কেন্দ্র সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। দেশে বিদ্যমান উন্নয়ন সংস্থাগুলোর স্থানীয়করণ এবং সমন্বয় বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে ২০১৭ সালের ২৮ জানুয়ারি গঠন করা হয় নাহাব। বর্তমানে দেশের আটটি বিভাগে ২২টি জেলায় নাহাবের কার্যক্রম চলমান আছে। সারাদেশে ৫৮টি উন্নয়ন সংস্থা এ প্ল্যাটফর্মের সাথে সংযুক্ত।

নাহাব সাতটি থিমেটিক বিষয়ে কাজ করে। তার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হলো স্থানীয় পর্যায়ে দূর্যোগ সম্পর্কিত তথ্য কেন্দ্র তৈরি। যাতে করে দেশের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্তে দুর্যোগ সম্পর্কিত বিভিন্ন তথ্যাদি সংগ্রহে এবং কার্যকর সাড়া প্রদানে কার্যকর ভূমিকা রাখা যাবে।

সভার স্বাগত বক্তব্য দেন নাহাবের সমন্বয়ক মো. রওশন আলী। এরপর স্থানীয় পর্যায়ে দূর্যোগ সম্পর্কিত তথ্যকেন্দ্র সংক্ষেপে উপস্থাপনা করেন সুনামঞ্জের উন্নয়ন সংস্থা ইরার পরিচালক মো. সিরাজুল ইসলাম।

সভায় ইপসার প্রধান নির্বাহী মো. আরিফুর রহমান বলেন, ‘বর্তমানে ধনী গরিবের সংজ্ঞায়নে নতুন একটি বিষয় আন্তর্জাতিকভাবে সামনে এসেছে। তা হলো ‘ইনফোরিচ’ এবং ‘ইনফোপুওর’। এর অর্থ যে জনগোষ্ঠী তথ্য দ্বারা শক্তিশালী তাদের অপেক্ষা তথ্য থেকে বঞ্চিত কিংবা ভুল তথ্য প্রাপ্ত জনগোষ্ঠী স্বাভাবিকভাবেই পিছিয়ে থাকে। এ জন্য স্থানীয় পর্যায়ে তথ্য কেন্দ্র গড়ে তোলার কোন বিকল্প নেই। এ ক্ষেত্রে দূর্যোগের জন্য তথ্য কেন্দ্র গড়ে তোলা আরো বেশি প্রয়োজন।’

ইপসার সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার মো. ওমর শাহেদ হিরো পরিচালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সংশপ্তকের উপ পরিচালক অগ্রদূত দাশগুপ্ত, ইপসার প্রোগ্রাম ম্যানেজার ও ফোকাল পার্সন (ইয়ুথ) মো. আবদুস সবুর, সুইট বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী জেবুন্নেছা বেগম চৌধুরী, প্রয়াস-২, ইপসা প্রকল্প সমন্বয়ক সানজিদা আক্তার, আইআরসিডির প্রোগ্রাম অফিসার শাহেদা খানম, সবুজের যাত্রার প্রধান নির্বাহী সায়েরা বেগম, সুনামগঞ্জের উন্নয়ন সংস্থা রাসের প্রধান নির্বাহী দ্রুপদ চৌধুরী নুপুর, ফেনী জেলার উন্নয়ন সংস্থা এফএইচডিএফর প্রধান নির্বাহী জাহাঙ্গীর আলম নান্টু, আরবার ইয়ুথ সোসাইটির নির্বাহী পরিচালক লিয়াকত আলী আরমান, লক্ষীপুর জেলার উন্নয়ন সংস্থা জেমস’র প্রধান নির্বাহী আসাদুজ্জামান, পিডিওর প্রধান নির্বাহী মো. হাফেজ, চাঁদপুর জেলার উন্নয়ন সংস্থা সিসিডিএসর প্রধান নির্বাহী মো. সেলিম পাটোয়ারী, নোয়াখালী জেলার উন্নয়ন সংস্থা আবসার প্রধান নির্বাহী মো. আবুল কাশেম।

সভায় সমাপনি বক্তব্য দেন ব্রাইট বাংলাদেশ ফোরামের প্রধান নির্বাহী উৎপল বড়ুয়া।

নিউজ রিলিজ।

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ