শুক্রবার, ২০ মে ২০২২, ০৮:৩৪ অপরাহ্ন

সাংবাদিকরা চট্টগ্রাম বন্দরের উন্নয়নে অসামান্য ভূমিকা রেখেছেন

পরম বাংলাদেশ
  • প্রকাশ : রবিবার, ২০ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৫১৬ Time View

চট্টগ্রাম: বিরাট সম্ভাবনার বাংলাদেশ নেতিবাচক সংবাদ চায় না মন্তব্য করে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ‘সাংবাদিকরা চট্টগ্রাম বন্দরের সার্বিক উন্নয়নে ও দেশের সুনাম মর্যাদা রক্ষার জন্য অসামান্য ভূমিকা রেখেছেন। আপনাদের লিখনী, সংবাদ পরিবেশন আমাদের প্রেরণা ও সাহস জুগিয়েছে। আমি আপনাদের ধন্যবাদ জানাই। বাংলাদেশে একটা সময় ছিল নেতিবাচক সংবাদই বড় সংবাদ। বাংলাদেশ এখন সে জায়গায় নেই। এদেশের মানুষ, পাঠক নেতিবাচক সংবাদে বেশি দৃষ্টি দেয় না।’

প্রতিমন্ত্রী রোববার (২০ ডিসেম্বর) সকালে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ (চবক) উপদেষ্টা কমিটির ১৪তম সভায় এ সব কথা বলেন।

চবকের শহীদ মুন্সী ফজলুর রহমান অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত এ সভায় স্বাগত বক্তব্যে খালিদ মাহমুদ চৌধুরী আরো বলেন, ‘চট্টগ্রাম বন্দরের সক্ষমতা বাড়ছে। করোনায়ও বন্দর সার্বক্ষণিক সচল ছিলো। চট্টগ্রাম বন্দরের সাথে দেশের অর্থনীতিও সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে।’

উপদেষ্টা কমিটির সদস্যদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘করোনার সংকটকালে চট্টগ্রাম বন্দর সচল রেখেছেন। এটা চট্টগ্রাম বন্দরের ইতিহাসে লেখা থাকবে। আপনারা নিজেকে উজাড় করে দিয়েছেন। আপনারা বন্দর সচল রাখায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। বিশেষ করে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড (এনবিআর) গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছে।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘নিজের টাকায় সরকার বড় বড় প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। নিজস্ব অর্থায়নে দেশের ৯৮ ভাগ বাজেট বাস্তবায়ন হয়। আমরা সম্মিলিতভাবে এগিয়ে যাব।’

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে রুপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের মাধ্যমে বাংলাদেশ পারমাণবিক ক্লাবে যুক্ত হয়েছে। কক্সবাজারের মাতারবাড়ীতে গভীর সমুদ্র বন্দর হচ্ছে। কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বঙ্গবন্ধু টানেল হচ্ছে। আগে দেশে মহাসড়ক ছিল না; এখন এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, মেট্রোরেল কত কিছু হচ্ছে। চট্টগ্রাম থেকে কক্সবাজারের ঘুমধুম পর্যন্ত রেললাইন হচ্ছে। এ সব কিছু সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুদক্ষ নেতৃত্বের কারণে।’

সভায় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সাংসত মোশাররফ হোসেন, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান চৌধুরী, মোছলেম উদ্দিন আহমেদ, ওয়াসিকা আয়েশা খান এবং নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী।

বন্দরের সদস্য মো. জাফর আলমের সঞ্চলনায় সভায় ১৩তম সভার সিদ্ধান্তগুলোর অগ্রগতি তুলে ধরেন বন্দর চেয়ারম্যান রিয়ার অ্যাডমিরাল এসএম আবুল কালাম আজাদ।

চট্টগ্রাম বন্দরের ওয়ান স্টপ সার্ভিস ভবনের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন: প্রতিমন্ত্রী পরে চট্টগ্রাম বন্দর ফোয়ারার মোড়ে চট্টগ্রাম বন্দরের ওয়ান স্টপ সার্ভিস ভবনের ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেন। ওয়ান স্টপ সার্ভিস ভবনটি ১১তলা বিশিষ্ট ভবন হবে। এর ফলে চট্টগ্রাম বন্দরের ওয়ান স্টপ সার্ভিস কার্যক্রম আধুনিক ও যুগোপযোগি হবে।

Share This Post

আরও পড়ুন