শিরোনাম
এস আলম গ্রুপের বিদ্যুৎ কেন্দ্রে পুলিশের গুলিতে শ্রমিক হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ গ্যালাক্সি এম০২ হ্যান্ডসেটে ১০০ দিনের রিপ্লেসমেন্ট ওয়্যারেন্টি দিচ্ছে স্যামসাং বাঁশখালীতে গুলি করে শ্রমিক হত্যা; সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট চট্টগ্রামের তীব্র নিন্দা আন্তর্জাতিক ফ্লাইট স্থগিতকরণ প্রভাব ফেলছে পদ্মা সেতু রেল সংযোগ ও অন্য মেগা প্রকল্পে বাঁশখালীতে এস আলম গ্রুপের কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রে শ্রমিক নিহতে খেলাফত মজলিসের নিন্দা বীমা খাতে প্রথম ‘তিন ঘন্টায় কোভিড ক্লেইম ডিসিশন’ সার্ভিস চালু মেটলাইফের মুজিবনগর সরকারের ৪০০ টাকার চাকুরে জিয়ার বিএনপি ইতিহাসকে অস্বীকার করতে চায় ধারাবাহিক ছোট গল্প: পতিতার আলাপচারিতা । পর্ব পাঁচ এস আলম গ্রুপের কয়লা বিদ্যুৎকেন্দ্রে পুলিশের গুলিতে শ্রমিক হত্যার নিন্দা ও বিচার দাবি সাতকানিয়ায় সোয়া কোটি টাকার ৩৮ হাজার ইয়াবাসহ ট্রাক চালক ও হেলপার গ্রেফতার
রবিবার, ১৮ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৪৫ পূর্বাহ্ন

সরকারের আশ্বাসেও কর্ণফুলীর নতুন কালুরঘাট সড়ক ও রেল সেতু আলোর মুখ দেখে নি

পরম বাংলাদেশ প্রতিবেদন / ৮৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামের কর্ণফুলির মেয়াদোত্তীর্ণ কালুরঘাট সেতুর বদলে নতুন ‘সড়ক ও রেল সেতু’ প্রকল্প দ্রুত অনুমোদন ও নির্মাণকাজ শুরুর জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট দপ্তরের প্রতি আহ্বান জানোনো হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৬ নভেম্বর) চট্টগ্রাম নাগরিক ফোরামের উদ্যোগে অনু্ষ্ঠিত এক ভার্চুয়াল সভায় এ আহ্বান জানানো হয়।

ফোরামের মহাসচিব মো. কামাল উদ্দীনের সঞ্চালনায় সভা সভাপতি ছিলেন ফোরামের চেয়ারম্যান ও আন্তর্জাতিক মানবাধিকার বিশেষজ্ঞ ব্যারিস্টার মনোয়ার হোসেন।

এতে বক্তারা বলেন, ‘দীর্ঘ দিনের মেয়াদোত্তীর্ণ কালুরঘাট সেতু চলাচলে ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে গেছে। বোয়ালখালী ও পটিয়াসহ দক্ষিণ চট্টগ্রামের অন্য উপজেলার জনগণের কাছে এ সেতুরগুরুত্ব বেড়ে যাওয়ায় ভঙ্গুর এ সেতুর পরিবর্তে নতুন ‘সড়ক ও রেল সেতু’ নির্মাণ বৃহত্তর চট্টগ্রামবাসীর দীর্ঘ দিনের দাবি। যে কোন সময় এ সেতু দিয়ে রেল কিযবা অন্য যানবাহন চলাচলের সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনায় জীবনহানির সম্ভাবনা আছে।’

বক্তারা আরো বলেন, ‘এ সেতুতে ঘন্টার পর পর যানজট লেগেই থাকে। এ সেতুর বিষয়ে সরকারের ঊর্ধতন মহল কর্তৃক বিভিন্ন সময় পরিকল্পনা, পরিদর্শন এবং নির্মাণে আশ্বাস দেয়া হলেও বাস্তবে নতুন কালুরঘাট সেতু আলোর মুখ দেখেনি।’

সভাপতির বক্তব্যে মনোয়ার হোসেন বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী ২০১০ সালে নতুন কালুরঘাট সেতু নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু বিভিন্ন সময় সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের নানা ধরনের পরামর্শ ও সমন্বয়হীনতার জন্য এ সেতু একনেকে অনুমোদন হয়নি।’

বৃহত্তর চট্টগ্রামের আপামর জনগনের দাবি বাস্তবায়নে সংশ্লিস্ট কর্তৃপক্ষকে সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহনের আহ্বান জানান তিনি। পাশাপাশি তিনি কর্ণফুলির নতুন কালুরঘাট ‘সড়ক ও রেল সেতু’ একনেকে দ্রুত অনুমোদন ও নির্মাণকাজ শুরু করার দাবিতে বৃহত্তর চট্টগ্রামবাসীকে জোরালো ভূমিকা রাখার অনুরোধ জানান।

সভায় বক্তব্য রাখেন আমেরিকা প্রবাসী সৈয়দ হারুন, নগর আওয়ামী লীগ নেতা জামশেদুল আলম চৌধুরী, বানিজ্যিক রাজধানী বাস্তবায়ন পরিষদের সভাপতি গোলাম রহমান, বোয়ালখালী প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি আবুল ফজল বাবুল প্রমুখ।

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ