বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০০ পূর্বাহ্ন

‘সঙ্গম’: বন্ধুর দুর্দিনে বন্ধু পাশে থাকার প্রতিচ্ছবি

নুরুন্নবী নুর
  • প্রকাশ : শুক্রবার, ২৭ নভেম্বর, ২০২০
  • ১৭৪ Time View

নুরুন্নবী নুর: কিংবদন্তি নির্মাতা জহির রায়হানের চতুর্থ চলচ্চিত্র ‘সঙ্গম।’ এটি একটি ১৯৬৪ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত উর্দু ভাষার চলচ্চিত্র। পুরো পাকিস্তান তথা বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের ইতিহাসে নির্মিত প্রথম রঙ্গীন চলচ্চিত্র। এটি ১৯৬৪ সালের ২৩ এপ্রিল ঈদ উল আযহাতে সমগ্র পাকিস্তান জুড়ে মুক্তি পায়।

‘সঙ্গম’ চলচ্চিত্রের প্রতিপাদ্য বিষয় হলো বন্ধুত্বের পরিচয়। দুর্দিনে বন্ধু কিভাবে বন্ধুর পাশে থাকে, তারই প্রতিচ্ছবি উপস্থাপিত এতে। কথায় আছে, নিজে বাঁচলে বাপের নাম, কিন্তু সেটি এই চলচ্চিত্রে মিথ্যে প্রতিপন্ন হয়েছে। মানুষ অন্যকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য নিজের জীবন উৎসর্গ করে, তারই একটি প্রমাণ পেলাম। যদিও চলচ্চিত্র এটি, তবু অনুপ্রেরণা পেলাম।

‘একজন অধ্যাপকের নেতৃত্বে শহীদ (হারুন রশীদ) ও এক দল ছাত্র-ছাত্রী ভ্রমণ করতে যায় এক জায়গায়। যেখানে শহীদের দেখা হয় পুরনো বন্ধু শংকরের (খলিল) সাথে। শংকর হোটেল চালায়। ওখানে আরেকটি হোটেল চালায় শায়লা (সুমিতা দেবী) নামের এক মেয়ের চাচা। শংকরের মা ও শায়লার চাচার মধ্যে ব্যবসায়িক কোনো দ্বন্দ্ব থাকলেও এই দুই তরুণ-তরুণী একে অপরকে গভীরভাবে ভালোবাসে। তাদের এই প্রেমে বাধা হয়ে দাড়ায় এক মন্দ লোক। অন্য দিকে শহীদ এবং তার দল শায়লা ও শংকরকে সহায়তা দেয়। ঠিক এমন সময় নিশাত (রোজী সামাদ) নামের এক তরুণীর সাথে পরিচয় ঘটে শহীদের। পরিচয় থেকে দুজনের প্রেম। ঘটনার আবর্তে শংকর ও শায়লা নিহত হয়। শেষ দৃশ্যে বিষাদের মধ্যে শহীদ-নিশাতের বিয়ে হয়।’

রোজী সামাদ (নিশাত) থেকে শুরু করে হারুন রশীদ (শহীদ), খলিলউল্লাহ খান (শংকর) এবং সুমিতা দেবী (শায়লা) প্রত্যেকে খুবই ভালো অভিনয় করেছেন। তাঁদের মুখে উর্দু ভাষার প্রাঞ্জল ব্যবহার, আমাকে খুবই মুগ্ধ করেছে। সুমিতা দেবীর অভিনয় দক্ষতা আসলেই প্রশংসার দাবিদার। ‘সেই কখনো আসেনি’তে দেখলাম, আজ আবার সঙ্গমে। এছাড়াও বদরুদ্দিন, মায়াদেবী, রানী সরকার, আনোয়ারা, জাভেদ রশীদ, আবুল খায়েরের অভিনয় নৈপূণ্য এ চলচ্চিত্রকে অন্যতম একটা জায়গায় নিয়ে গেছেন।

জহির রায়হানের চলচ্চিত্রে সংগীত ও আবহ সংগীত বরাবরের মতো ভালো হয়, তবে ‘কাঁচের দেয়াল’ এ আবহসংগীত নিয়ে একটু অসন্তুষ্ট ছিলাম। সঙ্গমে সংগীত পরিচালনা করেন বিখ্যাত সংগীত পরিচালক ও সংগীত শিল্পী খান আতাউর রহমান। এ চলচ্চিত্রে মোট ছয়টি গান রয়েছে। চলচ্চিত্রটিতে সঙ্গীতের ভূমিকা বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য। কাহিনীর চেয়েও গানগুলোই অধিক জনপ্রিয়তা পায়।

১২০ মিনিট ৩০ সেকেন্ড রীল টাইমের ‘সঙ্গম’ চলচ্চিত্রটি প্রযোজনা করেছে ‘লিটল সিনে সার্কেল’। এর চিত্রগ্রহণে কিউএম জামা এবং পরিচালনায় ছিলেন জহির রায়হান।

লেখক:
তরুণ শিল্প সমালোচক

Share This Post

আরও পড়ুন