মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:৪৩ অপরাহ্ন

শ্রমিক মুক্তি আন্দোলনের লড়াকু যোদ্ধা কমরেড আহসান উল্ল্যাহর ৮৫তম জন্মদিন উদাযাপন

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক / ১৫০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ১ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

চট্টগ্রাম: বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র চট্টগ্রাম জেলা কমিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্ট চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সাবেক সভাপতি কমরেড আহসান উল্ল্যাহ চৌধুরীর ৮৫তম জন্মদিন উপলক্ষে এক ভার্চুয়াল আলোচনা সভা রোববার (৩১ জানুয়ারী) রাতে অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশের প্রগতিশীল চিন্তা চেতনার মানুষের সংগঠন প্রগতির যাত্রীর উদ্যোগে অনুষ্ঠিত এ সভায় বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক ও বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক এমএম আকাশ, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষক অধ্যাপক রঞ্জিত কুমার দে, অধ্যাপিকা হান্নানা বেগম, বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্র চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সভাপতি তপন দত্ত, প্রগ্রেসিভ ফোরাম ইউএসএ এর সভাপতি খোরশেদুল ইসলাম, কমিউনিস্ট পার্টি চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক কমরেড অশোক সাহা এবং আহসান উল্ল্যাহ চৌধুরীর কন্যা লোপা চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে কমরেড আহসান উল্ল্যাহ চৌধুরীকে শ্রদ্ধা জানিয়ে সংগীত পরিবেশন করেন গোপাল দাশ, রুবিনা মাহফুজ শম্পা এবং আবৃত্তি করেন কাকলি বিশ্বাস। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন প্রগতির যাত্রীর অন্যতম সংগঠক উৎপল দত্ত।

সভায় বক্তারা বলেন, ‘আহসান উল্ল্যাহ চৌধুরী একজন নির্লোভ, ত্যাগী, আদর্শবান কমিউনিস্ট এবং শ্রমিক নেতা। তিনি তার জীবনের একটি বড় অধ্যায় চট্টগ্রাম বন্দরের শ্রমিকদের সংগঠিত করার কাজে ব্যয় করেছেন। বন্দর শ্রমিকদের জন্য বাসস্থান ব্যবস্থা, স্কুল-কলেজ ও হসপিটাল প্রতিষ্ঠায় আহসান উল্ল্যাহ চৌধুরীর অবদান অনস্বীকার্য। জীবনের সর্বক্ষেত্রে তিনি সংগঠনের আদর্শ, দেশের জনগন এবং শ্রমজীবী মানুষের স্বার্থকে অগ্রাধিকার দিয়েছেন। কোন লোভ-লালসা, ভয়ভীতি ও নির্যাতন কমরেড আহসান উল্ল্যাহ চৌধুরীকে এক চুল পরিমাণ বিচ্যুত করতে পারেনি। ফলে ২০ বছর বন্দর শ্রমিকদের নেতৃত্ব দিয়েও তার নামে কোন দুর্নীতির অভিযোগ কেউ কখনো আনতে পারেনি। আহসান উল্ল্যাহ চৌধুরী অত্যন্ত মেধাবী এবং দূরদৃষ্টি সম্পন্ন নেতা। তিনি সংগঠনের নেতা কর্মীদের কাছে একজন আদর্শবান শিক্ষক এবং অভিভাবক। কমরেড আহসান উল্ল্যাহ নিঃসন্দেহে একজন অনুকরণীয় ব্যক্তিত্ব। বর্তমান নীতিহীন এবং আদর্শ বিবর্জিত রাজনীতির বিপরীতে কমরেড আহসান উল্ল্যাহ আমাদের চেতনার বাতিঘর।’

ব্যক্তি ও গোষ্ঠী স্বার্থের বিপরীতে উন্নত বিকশিত ও কল্যাণকর রাষ্ট্র ও সমাজ প্রতিষ্ঠায় কমরেড আহসান উল্ল্যাহর জীবনী নিয়ে আরো বেশী বেশী আলোচিত হওয়া উচিত বলে বক্তাগণ অভিমত ব্যক্ত করেন। তারা কমরেড চৌধুরীর ৮৫তম জন্মদিনে এমন অনুষ্ঠান আয়োজনেে জন্য প্রগতির যাত্রীর সংগঠকদের ধন্যবাদ জানান।

বার্তা প্রেস

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ