শিরোনাম
চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ে জরুরী রোগী ব্যবস্থাপনার দুই দিনের প্রশিক্ষণ শুরু চা শ্রমিক নেতা বাবুল বিশ্বাসের মৃত্যুতে চা শ্রমিক নেতাদের শোক প্রকাশ বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উপর ভ্যাট চায় না চট্টগ্রাম সিটি ছাত্রদল বিডার কাছে ব্যবসায় সহজীকরণের উদ্যোগ চায় বিজিএমইএ মিরসরাই বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরে বেপজার প্লট পেল বঙ্গ প্লাস্টিকসহ দেশি বিদেশি দশ প্রতিষ্ঠান ভারতীয় ভেরিয়েন্ট দেশে ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ডে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে কাউন্সিলর শহিদুল আলম টেকনাফে কোস্ট গার্ডের অভিযানে ৮০০ পিস আন্দামান গোল্ড বিয়ার জব্দ প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা তহবিলে এক কোটি টাকা অনুদান দিল চট্টগ্রাম চেম্বার প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের ছুটি বাড়ল ৩০ জুন পর্যন্ত
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০২:০৭ পূর্বাহ্ন

শ্রমিক, কৃষক, নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্ত জনগণের স্বার্থে বাজেট সংশোধনের দাবি বাসদ চট্টগ্রামের

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক / ৯ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ৬ জুন, ২০২১

চট্টগ্রাম: সাধারণ মানুষের জীবনের ও জীবিকার প্রয়োজনের সাথে অসংগতিপূর্ণ বাজেটকে প্রত্যাখ্যান করে বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল করেছে বাসদ চট্টগ্রাম জেলা। চট্টগ্রাম সিটির নিউমার্কেট মোড়ে শনিবার (৫ জুন) বিকালে এ বিক্ষোভ সমাবেশ ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

বাসদ চট্টগ্রাম জেলার ইনচার্জ আল কাদেরী জয়ের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন বাসদ চট্টগ্রাম জেলার সদস্য মহিন উদ্দিন, হেলাল উদ্দিন কবির, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট চট্টগ্রাম নগর সভাপতি রায়হান উদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক ঋজু লক্ষ্মী অবরোধ।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ‘গত বাজেটের চেয়ে ৩৫ হাজার কোটি টাকা এবং সংশোধিত বাজেটের তুলনায় ৬৫ হাজার কোটি টাকার বেশি ৬ লাখ ৩ হাজার ৬৮১ কোটি টাকার এ বাজেট করোনাকালীন সাধারণ মানুষের জীবনমান রক্ষা ও জীবিকার নিশ্চয়তার চাইতে বৈষম্য বাড়িয়ে তুলবে। এ বাজেটে প্রয়োজন ছিল খাদ্য সরবরাহ, খাদ্য মূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখা, শ্রমিক কৃষক, অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের শ্রমজীবীদের জীবন বাঁচাতে রেশন ব্যবস্থা চালু, শ্রমজীবীদের চিকিৎসার জন্য হাসপাতাল ও চিকিৎসায় বরাদ্দ বাড়ানোর। যে কৃষি ও কৃষক ধান, ভুট্টা, মাছ, মাংস, সবজী, ফল উৎপাদন করে করোনাকালে দেশকে বাঁচিয়ে রেখেছে, ৪২ শতাংশ শ্রমজীবীর কর্ম সংস্থান করেছে সেখানে বরাদ্দ ও ভর্তুকি বাড়ানো দরকার ছিল। কিন্তু বাজেটে গত তিন বছরের ধারাবাহিকতায় কৃষিখাতে ভর্তুকি একই পরিমাণ রাখা হয়েছে। করোনায় আগের তুলনায় আড়াই কোটি মানুষ দারিদ্র্যসীমার নিচে নেমে গেছে, দরিদ্র মানুষের সংখ্যা ৪২ শতাংশের বেশি হয়েছে অথচ তাদের জীবন রক্ষায়, তাদের জীবীকার নিরাপত্তায় বাজেটে নেই কোন বিশেষ বরাদ্দ ও উদ্যোগ।’

বক্তারা আরো বলেন, ‘রাজস্ব আয় বাড়াতে গিয়ে জনগণের উপর বাড়তি ভ্যাটের বোঝা চাপালেও কর্পোরেট ট্যাক্স ২ দশমিক ৫ শতাংশ কমিয়ে দিয়ে সরকার তার ধনিক তোষণের নীতিকে অব্যাহত রেখেছে। ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্প দেশের কর্ম সংস্থান ও অর্থনীতির প্রধান ভিত্তি হলেও বাজেটে ওই খাতে বরাদ্দ প্রান্তিক পর্যায়ে। বর্ধিত কৃষি ঋণের সুদ কমানোর প্রস্তাব এবারের বাজেটেও নেই। করোনায় কাজ হারানো অসংখ্য শ্রমিক, ৬ লাখের বেশি দেশে ফেরত প্রবাসী শ্রমিক, শ্রমের বাজারে আসা ২০ লাখ তরুণ যুবকের জন্য বাজেটে নেই কর্মসংস্থানের কোন পদক্ষেপ গ্রহণের পরিকল্পনা এবং পুনর্বাসনের উদ্যোগ। সাড়ে চার কোটি শিক্ষার্থী এবং ২০ লাখের বেশি শিক্ষক করোনাকালে বিপর্যন্ত ছাত্রদের জন্য শিক্ষা সহায়তা এবং শিক্ষকদের জন্য দুর্যোগ ভাতা প্রয়োজন থাকলেও বাজেটে তার নির্দেশনা নেই। উল্টো কালো টাকা বৈধ করার সুযোগ রাখার মধ্য দিয়ে সরকার প্রমাণ করেছে যে দেশে কালো টাকা উৎপাদনের ব্যবস্থা বহাল আছে এবং সরকার এ কালো টাকার উৎপাদন বহাল রাখতে চায়।

সমাবেশে এক দিকে বাজেটে জনগণের উপর কর ভ্যাট বাড়ানো, অন্যদিকে ট্যাক্স ফাঁকি দেয়া লুটপাটের টাকার আইনি ও রাজনৈতিক বৈধতা দেয়ার নিন্দা করে কালো টাকা বাজেয়াপ্ত এবং তা উদ্ধার করে স্বাস্থ্য, শিক্ষা, কৃষি, শিল্পখাতে বরাদ্দের দাবি জানানো জয়।

সমাবেশে বক্তারা শ্রমিক, কৃষক, নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্ত জনগণের স্বার্থে বাজেট সংশোধনের দাবি জানান।

প্রেস বার্তা

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply