শিরোনাম
চট্টগ্রাম রেলওয়ে পুলিশের সমন্বয় সভায় ট্রেনে যাত্রী সেবা বৃদ্ধির উপর গুরুত্বারোপ নিংশ্বাসের বন্ধু’র প্রথম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন চট্টগ্রামে ১৬-১৭ জুন থিয়েটার থেরাপি প্রয়োগ বিষয়ক রিফ্রেশার্স ট্রেনিং চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ে জরুরী রোগী ব্যবস্থাপনার দুই দিনের প্রশিক্ষণ শুরু চা শ্রমিক নেতা বাবুল বিশ্বাসের মৃত্যুতে চা শ্রমিক নেতাদের শোক প্রকাশ বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উপর ভ্যাট চায় না চট্টগ্রাম সিটি ছাত্রদল বিডার কাছে ব্যবসায় সহজীকরণের উদ্যোগ চায় বিজিএমইএ মিরসরাই বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরে বেপজার প্লট পেল বঙ্গ প্লাস্টিকসহ দেশি বিদেশি দশ প্রতিষ্ঠান ভারতীয় ভেরিয়েন্ট দেশে ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ডে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে কাউন্সিলর শহিদুল আলম
মঙ্গলবার, ১৫ জুন ২০২১, ০১:২১ অপরাহ্ন

শপ উইথ কপ-খুশির ঝুড়ি হাতে, চলি পুলিশের সাথে

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক / ১১৪ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৪ ডিসেম্বর, ২০২০

চট্টগ্রাম: সমাজের অবহেলিত পিতৃ-মাতৃহীন শিশুরা জীবনের নানা অপূর্ণতার মধ্য দিয়ে বেড়ে ওঠে। তাদেরও ইচ্ছা হয় আপনার বা আমাদের সন্তানদের মতো বাবা মায়ের হাত ধরে সুপার শপে প্রবেশ করে পছন্দের জিনিস কিনতে। কিন্তু বাস্তবতার কষাঘাতে পিতা-মাতার অনুপস্থিতিতে দারিদ্র্যের ছোবলে এমন ইচ্ছা কল্পনাতেই সীমাবদ্ধ রয়ে যায।

সমাজের সুবিধা বঞ্চিত এমন শিশুদের ইচ্ছার বাস্তবায়নে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) উত্তর বিভাগের উদ্যোগে আয়োজন করা হয়েছে ‘শপ উইথ কপ-খুশির ঝুড়ি হাতে, চলি পুলিশের সাথে।’

‘মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতার’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে সিএমপি ইতোমধ্যে সমাজের সব শ্রেণির মানুষের মধ্যে সম্পর্কের সেতু বন্ধন তৈরি করেছে।

সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের মুখে হাসি ফুটাতে সিএমপির উত্তর বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার বিজয় বসাকের সার্বিক ব্যবস্থাপনায় বুধবার ( ২৩ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় নগরীর গোলপাহাড় মোড়ে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতের প্রধান ছিলেন সিএমপির কমিশনার সালেহ মোহাম্মদ তানভীর।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিল নগরীর ইলমুল কোরান একাডেমি, প্রবর্তক সংঘ অনাথ আশ্রম, টাইগার পাস বসতি, বকুল তলা বসতিতে বসবাস করা ৬০ জন শিশু। পুলিশ কমিশনারের হাত ধরে এই সুবিধা বঞ্চিত শিশুরা গোল পাহাড় মোড়ে অবস্থিত স্বপ্ন সুপার শপে প্রবেশ করে এবং তাদের পছন্দের জিনিসসমূহ ক্রয় করে নিজ নিজ বাসায় ফিরে যায়।

উত্তর বিভাগে কর্মরত সব স্তরের পুলিশ সদস্যগণ নিজ বেতন হতে নির্দিষ্ট পরিমাণ অর্থ দিয়ে সুবিধা বঞ্চিত এ সকল শিশুদের অপূর্ণ ইচ্ছা বাস্তবায়নে সহায়তা করছে। এছাড়াও এই উদ্যোগে সহযোগী হিসেবে আছে সুপার ‘শপ স্বপ্ন’, স্বনামধন্য রেস্টুরেন্ট ‘বারকোড’ এবং সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান ‘যাত্রী ছাউনী’।

এ সময় সেখানে আরো উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (প্রশাসন ও অর্থ) আমেনা বেগম, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ক্রাইম এন্ড অপারেশন) এসএম মোস্তাক আহমদ খান, অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) শ্যামল কুমার নাথসহ পুলিশের অন্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ