সোমবার, ২৩ মে ২০২২, ০৫:০৭ পূর্বাহ্ন

লাইসেন্স ও ছাড়পত্র না থাকায় সাত কোটি টাকার ইটভাটা মিশলো লোহাগাড়ার মাটিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশ : সোমবার, ২১ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৯৫৮ Time View

চট্টগ্রাম: লাইসেন্স ও ছাড়পত্র না থাকায় চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় সাত কোটি টাকার বেশি মূল্যের চারটি প্রতিষ্ঠান (ইটভাটা) গুড়িয়ে দিয়েছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

সোমবার (২১ ডিসেম্বর) সকালে জেলা প্রশাসন চট্টগ্রাম এবং পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রামের যৌথ অভিযানে এ পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়।

মাটিতে মিশিয়ে দেওয়া ইটভাটাগুলো হলো পশ্চিম কলাউজানের ‘পেটানশাহ ব্রিকস’, খাজা ব্রিকস, পদুয়ার ‘বার আউলিয়া ব্রিকস’ এবং চুনতির ‘চুনতি ব্রিকস ম্যানুফ্রাকচার’।

অভিযানে পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগরের পরিচালক মোহাম্মদ নূরুল্লাহ নূরী, চট্টগ্রাম অঞ্চলের পরিচালক মোহাম্মদ মোয়াজ্জম হোসাইন, জেলা কার্যালযের উপ পরিচালক জমির উদ্দিন, জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট উমর ফারুক, র‍্যাব ৭ এর সহকারী পরিচালক নুরুল আবছার উপস্থিত ছিলেন।

মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, অবৈধ ইটভাটা হওয়ায় হাইকোর্টের নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা এগুলো উচ্ছেদ করছি। আজকে লোহাগাড়ায় চারটি ইটভাটা গুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। এগুলোর আনুমানিক মূল্য সাত কোটি টাকার উপরে।

উমর ফারুক বলেন, ‘ইটভাটাগুলোর জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ও বন বিভাগের লাইসেন্স ছিল না। ছিল না পরিবেশগত ছাড়পত্র ও বিএসটিআইয়ের মানপত্র। কৃষি জমি ও পাহাড় থেকে মাটি নিয়ে ইট উৎপাদিত হচ্ছিল। এর ফলে অবৈধ ইটভাটাগুলো উচ্ছেদ করা হয়।’

পরিবেশ অধিদপ্তরের তথ্যানুযায়ী, লোহাগাড়া উপজেলায় অধিকাংশ ইটভাটা অবৈধ, যার ফলে পর্যায়ক্রমে সবগুলো ইটভাটা উচ্ছেদ করা হবে বলে জানান উমর ফারুক।

Share This Post

আরও পড়ুন