মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ১২:৪৮ অপরাহ্ন

র‌্যাব ১ এর অভিযানে পুলিশের সোর্স হত্যার প্রধান আসামীসহ গ্রেফতার দুই টঙ্গীতে

নিজস্ব প্রতিবেদক / ৭৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৮ জানুয়ারী, ২০২১

টঙ্গী, গাজীপুর: গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী এলাকায় পুলিশের সোর্স জাকির হোসেন হত্যা মামলার প্রধান আসামী মো. বিল্লাল হোসেনসহ (২৭) দুই জনকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১ উত্তরা।

বৃহস্পতিবার (২৮ জানুয়ারি) ভোরে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গাজীপুরের টঙ্গী পূর্ব থানাধীন শিলমুন এলাকা থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হল কিশোরগঞ্জ জেলার কিশোরগঞ্জ সদরের বেতবাড়িয়া থানার নীলগঞ্জের শুকুর আলীর পুত্র মো. বিল্লাল হোসেন (২৭) ও টঙ্গী পূর্ব থানার মরকুন পশ্চিম পাড়ার মো. রুবেল হোসেনের স্ত্রী মোছাম্মৎ ঝর্ণা আক্তার (২১)।

তাদের কাছ থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত একটি চাকু (সুইচ গিয়ার) ও দুইটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৬ জানুয়ারি দুপুর দুইটার দিকে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী পূর্ব থানাধীন মরকুন পশ্চিম পাড়া এলাকায় দুর্বৃত্তরা পূর্ব শত্রুতার জের ধরে পুলিশের সোর্স ভিকটিম মো. জাকির হোসেনের (৬০) দুই পায়ের উরু এবং শরীরের একাধিক স্থানে এলোপাতাড়ি ধারালো ছুরি দিয়ে গুরুতর জখম করে পালিয়ে যায়। এতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে জাকিরের মৃত্যু হয়।

র‌্যাব ১ এর কোম্পানী কমান্ডার মো. মোর্শেদুল হাসান জানান, গ্রেফতারকৃত দুইজন এলাকার চিহিৃত মাদক ব্যবসায়ী ওসন্ত্রাসী। এর আগে মাদক, সন্ত্রাসী কর্মকান্ড ও জোড়া খুনের অপরাধে আসামী বিল্লাল আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কর্তৃক গ্রেফতার হয়ে জেলে যায় এবং অপর আসামী ঝর্ণা আক্তার গাজীপুরের টঙ্গী এলাকায় মাদক ব্যবসায় নিয়ন্ত্রণ করে। পুলিশের সোর্স জাকিরের কারণে এলাকায় তাদের মাদক ব্যবসায়ে বিঘ্ন ঘটে এবং বিল্লাল ও ঝর্ণা আক্তারের স্বামীকে আটকের পিছনে সোর্স জাকিরের ভূমিকা রয়েছে বলে তারা জানতে পারে। এরই প্রতিশোধ হিসেবে আসামী দুইজন তাদের পথের কাঁটা জাকিরকে পৃথিবী থেকে সরিয়ে দেওয়ার পরিকল্পনা করে। ঘটনার দিন দুপুর বেলায় তাদের পরিকল্পনা মতে গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী পূর্ব থানাধীন মরকুন পশ্চিম পাড়া এলাকায় জাকিরকে একা পেয়ে আসামী বিল্লাল তার কাছে থাকা ধারালো ছুরি দিয়ে ভিকটিমের দুই উরুতে এবং শরীরের বিভিন্ন অংশে এলাপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করতে থাকে। ফলে ঘটনাস্থলেই ভিকটিম জাকির রক্তাক্ত জখম অবস্থায় লুটিয়ে পড়ে। পরবর্তী ওই এলাকার বাসিন্দারা ভিকটিমকে গুরুতর জখম অবস্থায় নিকটস্থ টঙ্গী শহিদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের কারণে তার মৃত্যু হয়।

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ