রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৫৫ পূর্বাহ্ন

রক্তাক্ত গন্ডামারা: এক । শুরু থেকেই স্থানীয়রা এস আলম গ্রুপকে অবিশ্বাস করতে থাকে

ফজলুল কবির মিন্টু
  • প্রকাশ : মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১
  • ৮৩ Time View

পূর্বকথা: ২০১৬ সালের ৪ এপ্রিল বাঁশখালীর গণ্ডামারায় প্রস্তাবিত কয়লা বিদ্যুতের জন্য জমি অধিগ্রহণের সময় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গুলিতে চার জন নিহত এবং বহুসংখ্যক আহত হন। ২০১৭ সালের ফেব্রুয়ারিতেও এ প্রকল্পে এক জন নিহত হন। এসব হত্যাকাণ্ডের গ্রহণযোগ্য তদন্ত ও বিচার আজ পর্যন্ত হয়নি।

উল্লেখ্য, নির্মানাধীন কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির ব্যাপারে পরিবেশ অধিদপ্তর থেকে কোন প্রকার পরিবেশগত ছাড়পত্র নেয়া হয়নি বলে অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া স্থানীয় জনগনের কাছ থেকে জমি ক্রয়ের সময় কয়লা বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের বিষয়টি গোপন করা হয়। তাদেরকে জানানো হয়, এখানে টেক্সটাইল মিল ও ভেজিটেবল ওয়েল মিল স্থাপন করা হবে। ফলে প্রকল্প কাজের শুরু থেকেই স্থানীয় জনগন এস আলম কর্তৃপক্ষকে অবিশ্বাস করতে থাকে। এস আলম কর্তৃপক্ষ প্রকল্পের জন্য প্রয়োজনের অতিরিক্ত জমি (প্রায় পাঁচ হাজার একর) দখলে নেয়। যার মধ্যে এক হাজার ৭২৮ একর জমি সরকারি খাস জমিও রয়েছে। দেশের আইনে যা কেবলমাত্র ভূমিহীনদের কাছে বন্টন করার নিয়ম রয়েছে।

(চলবে)

Share This Post

আরও পড়ুন