ঢাকাশুক্রবার, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

মতি ঝর্ণায় পাহাড় কেটে ধরা খেলেন শাহজাহান কোম্পানি ও মনোয়ারা বেগম

admin
নভেম্বর ৩, ২০২০ ৮:০৭ অপরাহ্ণ
Link Copied!

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক : চট্টগ্রাম মহানগরীর লালখান বাজার ওয়ার্ডে মতি ঝর্ণা এলাকায় পাহাড় কেটে নিজেরাই জরিমানার খপ্পরে পড়লেন শাহজাহান কোম্পানি ও মনোয়ারা বেগম নামের দুই ব্যক্তি। পরিবেশ অধিদপ্তর ও চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (চউক) অনুমতি ব্যতিত পাহাড় কেটে স্থাপনা নির্মাণের অপরাধে তাদের উপর মোট ১৫ লাখ ৪০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ ধার্য্য করা হয়েছে।

সোমবার (২ নভেম্বর) সকালে শুনানি শেষে এ ক্ষতিপূরণ ধার্য্য করেন পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগরের পরিচালক মো. নূরুউল্লাহ নূরী।

প্রাপ্ত অভিযোগের প্রেক্ষিতে গত ২২ অক্টোবর পরিবেশ অধিদপ্তরের সিনিয়র কেমিস্ট জান্নাতুল ফেরদৌসের নেতৃত্বে একটি টীম নগরের মতি ঝর্ণা এলাকার সাত নম্বর গলিতে পাহাড় কাটার বিষয়ে সরেজমিন পরিদর্শন করেন। এ সময় দেখা যায়, জনৈক সীমা আক্তারের বাড়ীর দক্ষিণ পাশে সরকারি একটি পাহাড় কেটে সমতল করে পাকা স্থাপনা নির্মাণের কাজ চলছে। আনুমানিক ১৪ হাজার ঘনফুট পাহাড় অনুনমোদিতভাবে কাটা হয়েছে বলে পরিদর্শনকালে জানা যায়। আর মো. শাহজাহান কোম্পানী পাহাড়টি কেটেছেন। এ সময় আরও একটি স্পটে পাহাড় কেটে তিন তলা বাড়ী নির্মাণের বিষয়টি পরিদর্শন টিমের নজরে আসে। ওই সীমা আক্তারের বাড়ীর উত্তর পাশে বাড়ীটি নির্মাণ করেছেন জনৈক মৃত মানিকের স্ত্রী মনোয়ারা বেগম (মায়া)।

পরবর্তী অনুমোদন ছাড়া পাহাড় কাটার দায়ে শাহজাহান কোম্পানি ও মনোয়ারা বেগমকে ২ নভেম্বর শুনানিতে উপস্থিত হওয়ার নোটিশ দেওয়া হয়।

শুনানিতে প্রমাণিত হয়, কোন রুপ অনুমোদন ব্যতিত সরকারী পাহাড় কেটে স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে। ভবন দুটি নির্মাণে চউকের কোন অনুমোদনও গ্রহণ করা হয় নি। শাহজাহান ও মনোয়ারা শুনানিতে তাদের ভূমির মালিকানা স্বপক্ষে কোন দলিলাদীও পেশ করতে পারেন নি । সরকারী পাহাড় দখল ও কেটে স্থাপনা নির্মাণের বিষয়টি তারা স্বীকার করেন।

মো. নূরুউল্লাহ নূরী জানান অনুনমোদিতভাবে পাহাড় কেটে পরিবেশ ও প্রতিবেশ ব্যবস্থার ক্ষতির দায়ে মৃত মো. সাইদ উদ্দিনের পুত্র শাহজাহান কোম্পানির বিরুদ্ধে ১৪ লাখ টাকা এবং মনোয়ারা বেগমের (মায়া) বিরুদ্ধে এক লাখ ৪০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ আরোপ করে তা আগামী সাত দিনের মধ্যে পরিশোধের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে

এমএ/পবা

Facebook Comments Box