বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১, ০৯:৪৮ অপরাহ্ন

ভোট ডাকাতির মত মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসও ডাকাতি করছে সরকার

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক / ৯৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : রবিবার, ২১ মার্চ, ২০২১

চট্টগ্রাম: সরকার ভোট ডাকাতির মত মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসও ডাকাতি করছে বলে অভিযোগ করেছেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক ডাক্তার শাহাদাত হোসেন।

তিনি বলেছেন, ‘১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ জাতি যখন দিক নির্দেশনাহীন ঠিক; তখনই দিশেহারা জাতিকে মুক্তি দিতে জিয়াউর রহমান বীর উত্তমের আবির্ভাব ঘটেছিল। কালুরঘাট বেতার কেন্দ্র থেকে তিনি বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মাধ্যমে অর্জিত হয় আমাদের স্বাধীনতা। কিন্তু আজকে নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে দেয়া হচ্ছে না। ক্ষমতাসীনেরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে গোটা জাতিকে বিকৃত ইতিহাস দিচ্ছেন। এরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে এর পরিপন্থী কাজ করে। মুক্তিযুদ্ধে যাদের কোন অবদান নাই; তারাই মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস লিখছে।’

রোববার (২১ মার্চ) বিকালে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ের মাঠে স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে ২৭ মার্চ কালুরঘাট বেতার কেন্দ্রে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন কর্মসূচী সফল করার লক্ষ্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির প্রস্তুতি সভায় শাহাদাত হোসেন এ সব কথা বলেন।

সভাপতির বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, ‘স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষে বিএনপি বছরব্যাপী অনুষ্ঠানমালার আয়োজন করেছে। এই কর্মসূচীর অংশ হিসাবে আগামী ২৭ মার্চ শহীদ জিয়ার স্বাধীনতার ঘোষণার স্মৃতি বিজড়ীত কালুরঘাট বেতার কেন্দ্রে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন কর্মসূচি পালন করা হবে। এ কর্মসূচিতে বিএনপি মহাসচিবসহ কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত থাকবেন। তাই ২৭ মার্চের কর্মসূচি সফল করার জন্য বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের সর্বস্তরের নেতাকর্মীদের এখন থেকেই প্রস্তুতি গ্রহণ করতে হবে।’

নগর বিএনপির সদস্য সচিব আবুল হাশেম বক্কর বলেন, ‘বিএনপি স্বাধীনতার ঘোষক সেক্টর কমান্ডার জিয়াউর রহমানের দল। চট্টগ্রামের মাটি থেকে তিনি স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন। আর সে ঘোষণায় মুক্তিকামী জনতা উদ্বুদ্ধ হয়ে স্বাধীনতা যুদ্ধে ঝাপিয়ে পড়েছে। কিন্তু মুক্তিযুদ্ধে যে স্বপ্ন নিয়ে বীর জাতি অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছিল; সে স্বপ্ন আজ ভূলুণ্ঠিত। আওয়ামী লীগ সরকার গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার হরণ করে এক দলীয় বাকশাল কায়েম করেছে। তাদের মুখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা মানাই না। তাদের হাতে দেশ ও স্বাধীনতা নিরাপদ নয়।’

সভায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহবায়ক আবু সুফিয়ান।

উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় বিএনপির শ্রম সম্পাদক এএম নাজিম উদ্দীন, চট্টগ্রাম নগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক এমএ আজিজ, মহানগর যুবদলের সভাপতি মোশারফ হোসেন দিপ্তী, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচএম রাশেদ খান, মহিলা দলের সভাপতি মনোয়ারা বেগম মনি, শ্রমিক নেতা শেখ নুর উল্লাহ বাহার, শামছুল আলম (ডক), থানা বিএনপির সভাপতিবৃন্দ মামুনুল ইসলাম হুমায়ুন, হাজী বাবুল হক, মোশারফ হোসেন ডেপটি, মো. সালাউদ্দিন, নুরুল আফসার, সরফরাজ কাদের রাসেল, মো. আজম উদ্দিন, থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু, মহিলা দলের সাধারণ সাধারণ সম্পাদক জেলী চৌধুরী, তাতী দলের সদস্য সচিব মনিরুজ্জামান মুরাদ, ছাত্রদলের আহ্বায়ক সাইফুল আলম, সদস্য সচিব শরিফুল ইসলাম তুহিন, ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি এসএম মফিজ উল্লাহ প্রমুখ।

প্রেস বার্তা

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ