মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন

ভাষা সৈনিক ও চমেক হাসপাতালের সাবেক উপ পরিচালক শামসুদ্দিন চৌধুরী আর নেই

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ : মঙ্গলবার, ২৭ জুলাই, ২০২১
  • ২৫ Time View
শামসুদ্দিন চৌধুরী

চট্টগ্রাম: ভাষা সৈনিক ও চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের সাবেক উপ-পরিচালক ও প্যাথলজি বিভাগের প্রধান প্রফেসর ডাক্তার এজেএম শামসুদ্দিন চৌধুরী আর নেই। ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাইহে রাজিউন। চট্টগ্রাম সিটির জামালখান এলাকার বাসিন্দা ও উত্তর মাদার্শার এ কৃতি সন্তান রোববার (২৫ জুলাই) রাত সোয়া ১১টার দিকে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮২ বছর। তিনি স্ত্রী, এক পুত্র, পুত্রবধূ, কন্যা, জামাতাসহ চার নাতি-নাতনি ও অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তার স্ত্রী নিলুফার শামসুদ্দিন চট্টগ্রাম মহিলা কলেজের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপিকা ও লেখিকা ছিলেন।

নোবেল বিজয়ী ড. মোহাম্মদ ইউনূসের সতীর্থ শামসুদ্দিন চৌধুরী ১৯৫৫ সালে চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষায় কৃতিত্বের সাথে উত্তীর্ণ হয়ে চট্টগ্রাম কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক সম্পন্ন করেন। পরবর্তী তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাশ করেন।

তিনি ছিলেন একজন দেশপ্রেমী ভাষাবিদ। ১৯৫২ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি তিনি চট্টগ্রাম কলেজিয়েট স্কুলের বেশ কিছু ছাত্রসহ চট্টগ্রাম লালদীঘি মাঠে প্রথম চট্টগ্রাম থেকে ভাষা আন্দোলনে নির্বিচারে হত্যাযজ্ঞের প্রতিবাদ জানান ও মিছিলে অংশগ্রহণ নেন। পেশাগত জীবনে তিনি একজন স্বনামধন্য চিকিৎসক ছিলেন। তিনি ছিলেন অত্যন্ত পরোপকারী একজন মানুষ, যিনি নিজের পকেট থেকে গাড়ি ভাড়া খরচ করে রোগী দেখতে যেতেন। আত্মীয়-স্বজন বা পরিচিতজনদের কাছ থেকে কখনো ভিজিট নিতেন না। তিনি চমেকের ডেপুটি ডিরেক্টর ও প্যাথলজি বিভাগের প্রধান ছিলেন। পরিবারের সবাই তার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেছেন।

সোমবার (২৬ জুলাই) দুপুরে চট্টগ্রামের জামাল খান বাইলেইনের শতদল ক্লাবের সামনে এক দফা এবং পরে হাটহাজারী উত্তর মার্দাশা এলাকায় দ্বিতীয় দফা জানাজা শেষে পারিবারিক কবর স্থানে তাকে দাফন করা হয়। জানাজার চট্টগ্রামের বিভিন্ন শ্রেনী-পেশার বিপুল সংখ্যক মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

Share This Post

আরও পড়ুন