শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন

ব্যাংক ঋণ শোধে ছাড় দেয়ায় প্রধানমন্ত্রীকে চট্টগ্রাম চেম্বার সভাপতির চিঠি

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৫ মার্চ, ২০২১
  • ১৮৮ Time View

চট্টগ্রাম: বিশ্ব মহামারী করোনা ভাইরাসের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশের অর্থনীতি পুনরুদ্ধারে বেসরকারি খাতে আর্থিক কর্মকান্ড অব্যাহত রাখার সুযোগ প্রদানে ঋণের কিস্তি পরিশোধ করতে না পারা ব্যবসায়ীদের শ্রেণীকরণ না করার নির্দেশনা দেওয়অয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন দি চিটাগাং চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রির সভাপতি মাহবুবুল আলম।

বৃহস্পতিবার (২৫ মার্চ) এক পত্রের মাধ্যমে তিনি প্রথানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

পত্রে মাহবুবুল আলম বলেন, ‘সম্প্রতি করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ বাংলাদেশে বিস্তার লাভ করার প্রেক্ষিতে আপনার নির্দেশনায় বুধবার (২৪ মার্চ) সার্কুলারের মাধ্যমে বাংলাদেশ ব্যাংক আবারো ব্যাংক ঋণ পরিশোধে ছাড় দিয়েছে। এক্ষেত্রে গত বছরের মতই আপাতত ঋণ শোধ না করলেও গ্রাহকদের খেলাপি হিসেবে চিহ্নিত করা হবে না বলে জানানো হয়েছে। প্রজ্ঞাপন মতে, কেন্দ্রীয় ব্যাংক বলেছে, ‘‘যে সব ওয়ার্কিং ক্যাপিটাল বা চলমান ঋণের মেয়াদ এরই মধ্যে শেষ হয়েছে এবং নতুন করে নবায়ন করা হয়নি, সে সব ঋণের শুধু সুদ পরিশোধ করলেই চলবে। তবে তা ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত নিয়মিত রাখতে হবে।’’ এসব গ্রাহকের কারো গত বছরের সুদ বকেয়া থাকলে চলতি মাস থেকে আগামী বছরের জুনের মধ্যে ছয়টি ত্রৈমাসিক কিস্তির মাধ্যমে পরিশোধ করা যাবে। একই সঙ্গে ২০২২ সালের জুন পর্যন্ত আরোপিত সুদও ত্রৈমাসিক কিস্তির মাধ্যমে পরিশোধ করার সুযোগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া তলবি ঋণ চলতি মাস থেকে আগামী বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত আটটি ত্রৈমাসিক কিস্তিতে পরিশোধ করার সুযোগ দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।’

চেম্বার সভাপতি মাহবুবুল আলম প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার এ সময়োপযোগী নির্দেশনার জন্য চট্টগ্রামসহ সারা দেশের ব্যবসায়ী সমাজের পক্ষ থেকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। এ

নির্দেশনায় হাজার হাজার ব্যবসায়ীকে আক্ষরিক অর্থেই খেলাপি হওয়া থেকে বাঁচিয়েছেন এবং তাদের অস্তিত্ব রক্ষায় সহায়ক হবে। এসব সুযোগ-সুবিধা পাওয়ায় ব্যবসায়ীরা মহামারীর কারণে সৃষ্ট অর্থনৈতিক চাপ মোকাবেলায় সক্ষম হবেন এবং দেশের সামগ্রিক অর্থনীতি ধীরে ধীরে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

প্রেস বার্তা

Share This Post

আরও পড়ুন