মঙ্গলবার, ১৩ এপ্রিল ২০২১, ০৭:৪১ পূর্বাহ্ন

বিগত নির্বাচনের মতো এবারও আওয়ামী লীগ ভোট ডাকাতির চেষ্টা করবে

পরম বাংলাদেশ / ৯০ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ১৬ ডিসেম্বর, ২০২০

চট্টগ্রাম:

চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) আসন্ন নির্বাচনে ভোট ডাকাতি হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন মেয়র প্রার্থী ও চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডাক্তার শাহাদাত হোসেন।

তিনি বলেন, ‘আগামী ২৭ জানুয়ারি চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) নির্বাচন। বিগত নির্বাচনের মতো এবারো আওয়ামী লীগ ভোট ডাকাতির চেষ্টা করবে। তার জন্য আমাদের সজাগ থাকতে হবে। প্রতিটি ভোট কেন্দ্রে সকাল থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত পাহারা দিতে হবে। ভোট ডাকাতি করতে আসলে তাদেরকে শক্ত হাতে প্রতিহত করতে হবে। এ চট্টগ্রাম আমাদের, ভোট আমাদের, কাউকে পবিত্র আমানত ভোট ডাকাতি করতে দেওয়া যাবে না।’

মঙ্গলবার (১৬ ডিসেম্বর) দুপুরে নাসিমন ভবনস্থ দলীয় কার্যালয়ের মাঠে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির উদ্যোগে মহান বিজয় দিবসের আলোচনা সভায় তিনি এ সব কথা বলেন।

এ সময় ক্ষমতাসীনেরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে গোটা জাতিকে বিকৃত ইতিহাস দিচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন শাহাদাত হোসেন।

তিনি বলেন, ‘বর্তমানে দেশে আওয়ামী লীগ ছাড়া আর কোনো রাজনীতি নেই, আছে শুধু দলনীতি। এরা মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা বলে এর পরিপন্থী কাজ করে। স্বাধীনতার চেতনা কি একদলীয় শাসন? মানুষের ভোটাধিকার হরণ? এ সব অপকর্ম করে আর বেশী দিন চালানো যাবে না। জনগণ জেগে ওঠেছে। গণতন্ত্র ফিরে আসার পথ কেউ রোধ করতে পারবে না। একদলীয় নীতি বেশি দিন চলবে না। সব রাজনৈতিক দল-মত-শক্তিকে ঐক্যবদ্ধ করে গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনা হবে।’

সভায় শাহাদাত হোসেন আরো বলেন, ‘দীর্ঘ নয় মাস রক্তক্ষয়ী সংগ্রামের মাধ্যমে অর্জিত হয় আমাদের স্বাধীনতা। কিন্তু আজকে নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের সঠিক ইতিহাস জানতে দেয়া হচ্ছে না।’

নগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বক্কর বলেন, ‘আজকে যারা বড় গলায় মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ফেরি করে বেড়াচ্ছে, তাদের বেশির ভাগই সে সময়ে ভারতে নিরাপদ আশ্রয়ে জীবন পার করেছেন। মুক্তিযুদ্ধে যে স্বপ্ন নিয়ে বীর বাঙালি অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছিল, সে স্বপ্ন আজ ভূলুণ্ঠিত। আওয়ামী লীগ সরকার গণতন্ত্র ও ভোটাধিকার হরণ করে একদলীয় বাকশাল কায়েম করেছে। তাদের মুখে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার কথা মানাই না। তাদের হাতে দেশ ও স্বাধীনতা নিরাপদ নয়।’

এ আগে বিজয় দিবস উপলক্ষে মহানগর বিএনপির পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে বীর শহীদদের শ্রদ্ধা জানানো হয়।

নগর বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক ইয়াসিন চৌধুরী লিটন ও সাংগঠনিক সম্পাদক কামরুল ইসলামের পরিচালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন নগর বিএনপির সিনিয়র সহ সভাপতি আবু সুফিয়ান, কেন্দ্রীয় কমিটির শ্রম সম্পাদক এএম নাজিম উদ্দীন, নগর বিএন‌পির সহ সভাপ‌তি এমএ আ‌জিজ, মোহাম্মদ মিয়া ভোলা, শামসুল আলম, আবদুস সত্তার, এসকে খোদা তোতন, জয়নাল আবেদীন জিয়া, হারুন জামান, শ‌ফিকুর রহমান স্বপন, মাহবুবুল আলম, নিয়াজ মো. খান, ইকবাল চৌধুরী, এসএম আবুল ফ‌য়েজ, সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক এস মএম সাইফুল আলম, যুগ্ম সম্পাদক কা‌জি বেলাল উ‌দ্দিন, মো. শাহ আলম, ইসকান্দার মির্জা, জাহা‌ঙ্গির আলম দুলাল, আবুল হা‌সেম, আ‌নোয়ার হো‌সেন লিপু, গাজী মো. সিরাজ উল্লাহ, সাংগঠ‌নিক সম্পাদক মনজুর আলম চৌধুরী মনজু, থানা বিএন‌পির সভাপ‌তি মামুনুল ইসলাম হুমায়ুন, মোশারফ ‌হো‌সেন ডিপ‌টি, হানিফ সওদাগর, মো. সেকান্দর, আবদুস সাত্তার সেলিম, হাজী মো. সালাউদ্দীন, মো. আজম, আবদুল্লাহ আল হারুন, মহিলাদলের সভাপতি মনোয়ারা বেগম মনি, সাধারণ সম্পাদক জেলী চৌধুরী, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচএম রাশেদ খান, সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন বুলু, থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন, আফতাবুর রহমান শাহীন, মো. শাহাবুদ্দীন, আবদুল কাদের জসিম, মাঈনুদ্দীন চৌধুরী মাঈনু, রোকন উদ্দীন মাহমুদ, মৎসজীবী দলের আহ্বায়ক নুরুল হক, তাতীদলের আহ্বায়ক মনিরুজ্জামান টিটু ও সদস্য সচিব মনিরুজ্জামান মুরাদ প্রমুখ।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ