মঙ্গলবার, ০৫ জুলাই ২০২২, ০৩:৪৫ অপরাহ্ন

প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা উচ্চতর শেয়ারমূল্যের মাধ্যমে উপকৃত হবেন

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৯ মে, ২০২২
  • ২৫ Time View

ঢাকা: বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ক্যাপিটাল মার্কেটের (বিআইসিএম) মাল্টিপারপাস হলে ‘বিআইসিএম রিসার্চ সেমিনার-১২’ মঙ্গলবার (১৭ মে) সকালে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ‘ডু অল ইনস্টিটিউশনাল শেয়ারহোল্ডারস প্রমোট কার্বন এবেটমেন্ট ইনভেস্টমেন্ট’ শীর্ষক মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ইউনিভার্সিটি অফ সাফোকের হিসাববিজ্ঞানের প্রভাষক মো. শহীদুল ইসলাম।

ইনস্টিটিউটের নির্বাহী প্রেসিডেন্ট মাহমুদা আক্তারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সেমিনারে আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের অধ্যাপক (সিলেকশন গ্রেড) প্রশান্ত কুমার ব্যানার্জী ও নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির স্কুল অফ বিজনেসের সহযোগী অধ্যাপক মো. নুরুল কবির। সঞ্চালনা করেন ইনস্টিটিউটের পরিচালক (স্টাডিজ) ওয়াজিদ হাসান শাহ্।

মূল প্রবন্ধে মো. শহীদুল ইসলাম বলেন, ‘দীর্ঘ মেয়াদী প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগের ফলে বিনিয়োগ প্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানে কার্বন নিঃসরণ কমবে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা উচ্চতর শেয়ারমূল্যের মাধ্যমে উপকৃত হবেন। এনার্জির ব্যবহার ও ভোগ কমানোর মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা কার্বন নিঃসরণ কমাতে সাহায্য করছে। মূলত প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগের ফলে বিনিয়োগপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠানে কার্বন নিঃসরণ কমে কিনা তা অনুসন্ধানে যুক্তরাষ্ট্রের তথ্য উপাত্তের উপর এ গবেষণা পরিচালনা করা হয়।

মাহমুদা আক্তার বলেন, ‘বৈশ্বিক উষ্ণতা বৃদ্ধির ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত দেশের মধ্যে বাংলাদেশ অন্যতম।’ তিনি গ্লাসগোতে অনুষ্ঠিত কোপ ২৬ এ বাংলাদেশের উপস্থাপিত ক্লাইমেট ফাইন্যান্সের রোডম্যাপের উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি আরো বলেন, ‘এমন প্রেক্ষাপটে এ ধরনের গবেষণা বাংলাদেশের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।’

প্রশান্ত কুমার ব্যানার্জী ও মো. নুরুল কবির গবেষণাটির প্রশংসা করেন ও একই সাথে বাংলাদেশের উপর এ ধরনের গবেষণা পরিচালনা করার জন্য আহ্বান জানান।

সেমিনারটিতে বিআইসিএমের অনুষদ সদস্যবৃন্দ, কর্মকর্তা ও অন্যান্য আমন্ত্রিত অতিথিরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রেস বার্তা

Share This Post

আরও পড়ুন