ঢাকাবুধবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

পরিবেশ অধিদপ্তরের মামলা খেলেন পাহাড় খেকো কাউন্সিলর জসিম

চট্টগ্রাম
আগস্ট ১০, ২০২২ ৮:০১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চট্টগ্রাম: অবশেষে পাহাড় খেকো খ্যাত চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) নয় নম্বর উত্তর পাহাড়তলী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর জহুরুল আলম জসিমের (৫৩) বিরুদ্ধে মামলা করেছে পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়। চট্টগ্রাম সিটির আকবশাহ থানাধীন উত্তর পাহাড়তলীর লেকসিটি আবাসিক এলাকা সংলগ্ন পাহাড় অবৈধভাবে কেটে স্থাপনা নির্মাণের দায়ে জহুরুল আলম জসিম ও তার স্ত্রীসহ তিনজনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার (১০ আগস্ট) পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ের পরিদর্শক মো. সাখাওয়াত হোসাইন বাদী হয়ে আকবরশাহ থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার আসামীরা অপর আসামীরা হলেন জহুরুল আলম জসিমের স্ত্রী তাছলিমা বেগম (৩৯) ও কেয়ারটেকার মোহাম্মদ হৃদয় (২৬)।

প্রাপ্ত তথ্য মতে, গত সোমবার (৮ আগস্ট) পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ের একটি টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে দেখতে পান যে, লেকসিটি আবাসিক এলাকা সংলগ্ন ছড়ার কাছে টিলা শ্রেণির জমির আনুমানিক তিন শতাংশ অংশের ছোট-বড় সব গাছ ও ঝোপঝাড় কেটে টিলা মোচন করা হয়েছে। এ ছাড়া পাহাড় কেটে একটি টিনশেড সেমিপাকা স্থাপনা নির্মাণ করা হয়েছে। ঘরসহ ওই স্থানে কর্তনকৃত পাহাড়ের পরিমাণ আনুমানিক তিন হাজার ঘনফুট। এ ছাড়া এক হাজার ৩০৬ দশমিক আট বর্গফুট পাহাড় মোচন করা হয়েছে। ওই স্থানে গত কয়েক দিনে কর্তনকৃত তিনটি বড় গাছে গুড়ি দেখতে পাওয়া যায়।

পরিদর্শনকালে পাহাড় কাটা ও মোচনের সত্যতা পাওয়ায় পরিবেশ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম মহানগর কার্যালয়ে বুধবার (১০ আগস্ট) শুনানীতে হাজির হওয়ার জন্য নোটিশ দেয়। শুনানীতে কেয়ারটেকার মোহাম্মদ হৃদয় জানান যে, কর্তনকৃত ভূমির মালিক তিনি না। ভূমিটির প্রকৃত মালিক জহুরুল আলম জসিম ও তার স্ত্রী তাছলিমা বেগম। তিনি এর স্বপক্ষে জমির মালিকানা খতিয়ান দাখিল করেন। প্রাপ্ত সব তথ্যের ভিত্তিতে জহুরুল আলম জসিম, তাছলিমা বেগম ও মোহাম্মদ হৃদয়ের বিরুদ্ধে আকবরশাহ থানায় মামলা করা হয়।

Facebook Comments Box