শিরোনাম
চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ে জরুরী রোগী ব্যবস্থাপনার দুই দিনের প্রশিক্ষণ শুরু চা শ্রমিক নেতা বাবুল বিশ্বাসের মৃত্যুতে চা শ্রমিক নেতাদের শোক প্রকাশ বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উপর ভ্যাট চায় না চট্টগ্রাম সিটি ছাত্রদল বিডার কাছে ব্যবসায় সহজীকরণের উদ্যোগ চায় বিজিএমইএ মিরসরাই বঙ্গবন্ধু শিল্প নগরে বেপজার প্লট পেল বঙ্গ প্লাস্টিকসহ দেশি বিদেশি দশ প্রতিষ্ঠান ভারতীয় ভেরিয়েন্ট দেশে ব্যাপক হারে ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে পশ্চিম বাকলিয়া ওয়ার্ডে উন্নয়ন কাজ পরিদর্শনে কাউন্সিলর শহিদুল আলম টেকনাফে কোস্ট গার্ডের অভিযানে ৮০০ পিস আন্দামান গোল্ড বিয়ার জব্দ প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা তহবিলে এক কোটি টাকা অনুদান দিল চট্টগ্রাম চেম্বার প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের ছুটি বাড়ল ৩০ জুন পর্যন্ত
সোমবার, ১৪ জুন ২০২১, ০২:০৩ পূর্বাহ্ন

নিরাপত্তা বিশ্লেষক এমদাদুলের দুটি বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠান রোববার

নিজস্ব প্রতিবেদক / ১৯৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শনিবার, ৯ জানুয়ারী, ২০২১

চট্টগ্রাম: নিরাপত্তা বিশ্লেষক অবসরপ্রাপ্ত মেজর মোহাম্মদ এমদাদুল ইসলামের দুটি বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠান রোববার (১০ জানুয়ারি) সকাল সাড়ে এগারোটায় চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হবে।

প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান ‘খড়িমাটি’ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করছে।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি থাকবেন পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন, বিশেষ অতিথি থাকবেন শিক্ষা উপ মন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, মুখ্য আলোচক থাকবেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবি) আই অনুষদের ডিন প্রফেসর এবিএম আবু নোমান, অতিথি থাকবেন দৈনিক আজাদীর সম্পাদক এমএ মালেক, দৈনিক সুপ্রভাত বাংলাদেশের সম্পাদক রুশো মাহমুদ ও দৈনিক পূর্বকোণের সম্পাদক ডা. ম. রমিজউদ্দিন চৌধুরী।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন চবির উপাচার্য ড. শিরীণ আখতার।

বই দুইটি হলো খড়িমাটি থেকে প্রকাশিত প্রবন্ধ ‘শেষ সীমান্তের পর কোথায় যাব আমরা’ এবং প্রথমা প্রকাশন থেকে প্রকাশিত গবেষণা গ্রন্থ ‘রোহিঙ্গা: নিঃসঙ্গ নিপীড়িত জাতিগোষ্ঠী।’

চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) পরিচালক মেজর (অব.) মোহাম্মদ এমদাদুল ইসলাম বিকে ক্যাপিটালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। তিনি ১৯৮৩ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কমিশন লাভ করেন। নব্বইয়ের দশকে পার্বত্য চট্টগ্রামে কাউন্টার-ইনসারজেন্সি অপারেশনে তার ভূমিকার জন্য প্রশংসিত হন। ডিরেক্টরেট অব ফোর্সেস ইন্টেলিজেন্সে নিয়োজিত থেকে পার্বত্য শান্তি চুক্তি আলোচনা ও বাস্তবায়নে তিনি উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করেন। তিনি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে প্রেষণে পদায়িত হয়ে মিয়ানমার হেড অব মিশন হিসেবে কাজ করেন।

এমদাদুল ইসলাম (মেজর এমদাদ) লেখক হিসেবে নবীন হলেও শুরুতেই বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছেন। অত্যন্ত সাবলীল ভাষা এবং বিষয়ের গভীরে যাওয়ার মুন্সিয়ানায় তিনি লেখক হিসেবে পাঠকের মনযোগ লাভে সমর্থ হয়েছেন।

রাউজানের সুলতানপুর গ্রামে জন্মগ্রহণকারী মোহাম্মদ এমদাদুল ইসলাম ১৯৯৯ সাল থেকে ২০০২ পর্যন্ত চার বছর কনস্যুলেট প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন মিয়ানমারে। ডিজিএফআইতে কর্মরত থাকার সুবাদে পার্বত্য শান্তিচুক্তির সাথে তিনি বেশ ঘনিষ্ঠভাবে জড়িত ছিলেন।

কর্মজীবনের নানা বিষয়ের পাশাপাশি সামাজিক এবং পারিপার্শ্বিক নানা বিষয়কে উপজীব্য করে তিনি লেখালেখি করছেন। ইতোমধ্যে খরস্নায়ু, শেষ সীমান্তের পর কোথায় যাবো আমরা, রোহিঙ্গা: নিঃসঙ্গ নিপীড়িত জাতিগোষ্ঠী, দূরের পথিক, বিষাদ সময় নামে তার পাঁচটি বই প্রকাশিত হয়েছে।

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ