শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০২:১৭ পূর্বাহ্ন

নিজের সমস্যা নিজের কন্ঠে বলাতে প্রতিবন্ধীদের সংগঠিত ও প্রস্তুত করছে ‘উৎস’

পরম বাংলাদেশ প্রতিবেদন
  • প্রকাশ : বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৩৭৫ Time View

চট্টগ্রাম: চাঁদপুর জেলার ফরিদগঞ্জ উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের হতদরিদ্র প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গ এখনো সংগঠিত হয়ে অধিকার সচেতন হয়ে উঠেনি। সমাজের মূল স্রোত ধারায় তাদের কোন অংশগ্রহণ নেই। প্রবেশগম্যতা, শিক্ষা, কর্মসংস্থান, মর্যাদাপূর্ণ জীবন-যাপন ইত্যাদি কোন বিষয় সম্পর্কে তাদের কোণ ধারণা নেই। ২০০৬ সালের জাতিসংঘ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গের অধিকার সনদ, ২০১৩ সালের প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গের অধিকার সনদ সম্পর্কে তারা জানে না।

পিছিয়ে থাকা এ জনপদের প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গের উন্নয়নের লক্ষ্যে বে-সরকারি উন্নয়ন সংগঠন ইউনাইট থিয়েটার ফর সোশাল অ্যাকশনের (উৎস) উদ্যোগে বাংলাদেশ রাবার মালিক সমিতি ও এলায়েন্স অব আরবান ডিপিও’স ইন চিটাগাংয়ের (এইউডিসি) সহায়তায় গত ১১ জানুয়ারী ফরিদগঞ্জ উপজেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের সুবিদপুরের আব্বাস আলী পাটোয়ারী বাড়ীর প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা শেষে সুবিধাবঞ্চিত প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের মাঝে কম্বল, সহায়ক উপকরণ ও শুভেচ্ছা উপহার বিতরণ করা হয়।

অনুষ্ঠানে ৫০ জন প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে কম্বল, দশ জন দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে সাদাছড়ি, প্রায় ১০০ জন ব্যক্তির মাঝে কোভিড-১৯ বিষয়ক সচেতনতামুলক লিফলেট ও মাস্ক বিতণের পাশাপশি চাঁদপুর পিএইচটি সেন্টারের দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য উৎস কর্তৃক ব্রেইল ভার্সনে প্রকাশিত প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন-২০১৩, প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা বিধিমালা-২০১৫, ২০০৬ সালের জাতিসংঘ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গের অধিকার সনদ, জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতি-২০১১, নারীর প্রতি সব প্রকার বৈষম্য বিলোপ সনদ বিষয়ক মোট পাঁচটি আইনের কপি শুভেচ্ছা উপহার হিসেবে প্রদান করা হয়। যা গ্রহণ করেন ফরিদগঞ্জ উপজেলা সমাজসেবা অফিসের কর্মকর্তা মিজানুর রহমান।

স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ সরকারি-বেসরকারি সংস্থাসমুহের প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে প্রতিবন্ধী মানুষদের নিয়ে তাদের অধিকার বিষয়ক এমন অংশগ্রহণমুলক আলোচনা সভা এ এলাকায় এর আগে কখনো হয় নি। তাদেরকে সংগঠিত করে একটা স্ব-সহায়ক সংগঠন ও তাদেরকে অধিকার সচেতন করার লক্ষ্য নিয়ে সম্পন্ন এ আলোচনা সভা প্রতিবন্ধী মানুষদের মাঝে মধ্যে একটা উৎসাহ-উদ্দিপনা ও জাগরণ সৃষ্টি করেছে। উপস্থিত সুধীজনের সমর্থন ও উৎসাহে তারা সামনের দিকে এগিয়ে যাওয়ার সংকল্প ঘোষণা করেছে।

হত দরিদ্র প্রতিবন্ধী নারী-পুরুষেরা শীত বস্ত্র পেয়ে খুবই সন্তোস প্রকাশ করেছেন। দৃষ্টি প্রতিবন্ধী ব্যক্তিরা এ প্রথম সাদা ছড়ি হাতে পেয়ে বলেন, ‘আমরা একা একা কোথাও যেতে পারি না, এ সাদা ছড়িটি বাড়ীর বাইরে একা চলাচলে আমাদের সহায়ক হবে, স্বাধীনভাবে আমরা এখন বিভিন্ন স্থানে চলাচল করতে সক্ষম হব, সাদা ছড়িটি হল আমাদের চোখের মত।’

১৯৯৭ সাল থেকে উৎস প্রতিবন্ধী মানুষদেরকে সংগঠিত করে তাদেরকে নিজের সমস্যার কথা তাদের কন্ঠে বলার জন্য প্রস্তুত করেছে। যার মধ্যে অন্যতম নিদর্শন হচ্ছে প্রতিবন্ধী ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে গঠিত স্ব-সহায়ক সংগঠনসমুহের মোর্চা এলায়েন্স অব আরবান ডিপিও’স ইন চিটাগাং (এইউডিসি)।

দীর্ঘ পথচলায় নানা বাধা-বিপত্তি পেড়িয়ে গড়ে উঠা এলায়েন্স অব আরবান ডিপিও’স ইন চিটাগাং এখন দেশের চাঁদপুর, নেত্রকোণার প্রত্যন্ত অঞ্চলের প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদেরকে তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে আলোর দিশা দেখিয়ে যাচ্ছে।

উৎস বর্তমানে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাক্ষেত্রে বাধাসমুহ পেরিয়ে যাওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা ডিসিএ এর সহযোগীতায় প্রমোশন এডুকেশনাল রাইটস অফ পিডাব্লিউডি’স প্রকল্প পরিচালনার মাধ্যমে এডভোকেসি কার্যক্রম পরিচালনা করছে।

Share This Post

আরও পড়ুন