বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৭:৩৭ পূর্বাহ্ন

নারায়ণগঞ্জের সেজান জুস কারখানায় অগ্নিকান্ড দুর্ঘটনা নয়, হত্যাকান্ড

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ : শনিবার, ১০ জুলাই, ২০২১
  • ৪১ Time View

নারায়গঞ্জ জেলার রূপগঞ্জে অবস্থিত সেজান জুস কারখানায় বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ৫২জন শ্রমিক নিহত হওয়ার ঘটনায় তীব্র ক্ষোভ ও নিন্দা জানিয়েছে চট্টগ্রাম শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিষদ (স্কপ)।

শনিবার (১০ জুলাই) গণ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতি এ ক্ষোভ ও নিন্দা জানানো হয়।

বিবৃতিতে স্কপের নেতৃবৃন্দ বলেন, ‌‌‌বাংলাদেশে কারখানা পরিচালনায় শ্রমিকদের কর্মস্থলে নিরাপত্তার জন্য জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক শ্রমমান অনুযায়ী নীতিমালাগুলো য্যথযথভাবে অনুসরণ না হওয়ায় শ্রমজীবী মানুষকগুলো বার বার কাজ করতে গিয়ে অনাকাংখিত ও মর্মান্তিক ঘটনার শিকার হচ্ছে। এ ধরনের ঘটনার জন্য মালিক পক্ষের অবহেলা ও আইন না মানার প্রবণতা যেমন দায়ী, তেমনি আইন বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট সরকারী দপ্তরের দায়িত্বহীনতা, অযোগ্যতা এবং দুর্নীতি পরায়ণতাও সমানভাবে দায়ী। তাই এ ধরনের ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধকল্পে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠনপূর্বক ঘটনার জন্য দায়ী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করে সবার শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে।’

নেতৃবৃন্দ নিহত ও আহতদের তালিকা করে আইএলও কনভেনশন ১২১ অনুসারে লস অফ ইয়ার আর্নিংস নির্ণয় করে নিহতদের আজীবন আয়ের সমপরিমাণ ক্ষতিপূরণ এবং আহতদের সাফারিংস ও পেইনস নির্ণয় করে, সে অনুযায়ী চিকিৎসা এবং ক্ষতিপূরণ দেয়ার দাবি জানান।

বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেন স্কপের চট্টগ্রাম জেলার সমন্বয়ক ও টিইউসি চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সভাপতি তপন দত্ত, জাতীয় শ্রমিক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সহসভাপতি মুহাম্মদ শফর আলী, জাতীয়তাবাদী শ্রমিক দলের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সভাপতি এএম নাজিম উদ্দিন, ট্রেড ইউনিয়ন সংঘের চট্টগ্রাম জেলার সাধারণ সম্পাদক মো মামুন, বাংলাদেশ লেবার ফেডারেশনের মো আনোয়ার হোসেন, শ্রমিক ফ্রন্টের মো কবির, বাংলাদেশ মুক্ত শ্রমিক ফেডারেশনের নূরুল আবছার, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের দিদারুল আলম, বাংলাদেশ জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশনের জাহেদ উদ্দিন শাহিন, বাংলাদেশ ফ্রী ট্রেড ইউনিয়ন কংগ্রেসের কাজী আনোয়ারুল হক হুনী, জাতীয় শ্রমিক জোটের আব্দুল মোমিন প্রমুখ।

Share This Post

আরও পড়ুন