সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ০৭:১০ অপরাহ্ন

নভেম্বরে এসএসসি, ডিসেম্বরে এইচএসসি পরীক্ষার পরিকল্পনা

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১৫ জুলাই, ২০২১
  • ২০ Time View

ঢাকা: করোনাভাইরাস মহামারি পরিস্থিতির উন্নতি হলে মাধ্যমিক (এসএসসি) ও উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) পর্যায়ের পরীক্ষা যথাক্রমে নভেম্বরে ও ডিসেম্বরে নেওয়ার পরিকল্পনা করছে সরকার।

বৃহস্পতিবার (১৫ জুলাই) বাস ভবন থেকে ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে এসে এ পরিকল্পনার কথা জানান শিক্ষা মন্ত্রী দীপু মনি।

মন্ত্রী জানান, এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে আগামী নভেম্বর মাসের দ্বিতীয় সপ্তাহে এবং এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহে। কোভিড-১৯ পরিস্থিতি অনুকূলে আসলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে সময়, বিষয় ও নম্বর কমিয়ে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। গ্রুপভিত্তিক তিনটি বিষয়ের নৈর্বাচনিক পরীক্ষা নেওয়া হবে। অন্য বিষয়ে আগের পাবলিক পরীক্ষার মূল্যায়নের ভিত্তিতে ম্যাপিং করে মূল্যায়ন করা হবে।

পরীক্ষার আগে সংক্ষিপ্ত সিলেবাসের আলোকে এসএসসিতে তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ের ওপর প্রতি সপ্তাহে দুটি করে ২৪টি অ্যাসাইনমেন্ট এবং এইচএসসিতে তিনটি নৈর্বাচনিক বিষয়ে- ছয়টি পত্রে- প্রতি পত্রে পাঁচটি করে মোট ৩০টি অ্যাসাইনমেন্ট নেওয়া হবে।

তবে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি অনুকূলে না থাকলে আবশ্যিক বিষয়গুলোর সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে (পূর্বের পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল বিবেচনায়) ও অ্যাসাইনমেন্টের ফলাফল সমন্বয় করে ফলাফল দেওয়ার ভাবনা রয়েছে বলে তিনি জানান।

শিক্ষার্থীকে আবশ্যিক ও চতুর্থ বিষয়ের কোন অ্যাসাইনমেন্ট দেয়া হবে না।

পরীক্ষা নেওয়ার এ পরিকল্পনার যৌক্তিকতা তুলে ধরে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের টিকা কার্যক্রম চলছে। এছাড়া গত বছর নভেম্বর-ডিসেম্বর সময়ে সংক্রমণ কমে এসেছিল। সেই অভিজ্ঞতায় আমরা এ সময়ে সংক্রমণ কমে আসবে বলে আশা করছি।’

ঈদুল আজহার পর অনলাইনের মাধ্যমে পরীক্ষার ফরম পূরণ শুরু হবে বলে তিনি জানান।

ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, কারিগরি মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব আমিনুল ইসলাম খান, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ড. সৈয়দ গোলাম ফারুক, ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান নেহাল আহমেদসহ সংশ্লিষ্ট অন্যরা যুক্ত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘এসএসসি/এইচএসসি/সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা জেএসসি/জেডিসি/এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় আবশ্যিক বিষয়সমূহ যেমন বাংলা, ইংরেজি, গণিত, আইসিটি ও ধর্ম বিষয়সমূহে অধ্যয়ন করেছে। এ বিষয়গুলো জেএসসি/জেডিসি/এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় মূল্যায়ন করা হয়েছে। এসএসসি/সমমান পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের গ্রুপভিত্তিক বিষয়গুলো এর আগে বোর্ডগুলো পরীক্ষার মাধ্যমে মূল্যায়ন করে নাই। সে কারণে এ বিষয়গুলোর মূল্যায়ন আবশ্যক। তাছাড়াও আবশ্যিক বিষয়গুলো নম্বর জেএসসি/জেডিসি/এসএসসি/সমমান পরীক্ষায় সাবজেক্ট ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে এসএসসি/এইচএসসি/সমমান পর্যায়ে নম্বর দেয়া সম্ভব।

খবর পিআইডির

Share This Post

আরও পড়ুন