রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০১:৩৪ পূর্বাহ্ন

নন্দিত টিভি অভিনেত্রী তাজিন আহমেদের তৃতীয় মৃত্যু বার্ষিকী আজ

পরম বাংলাদেশ প্রতিবেদন
  • প্রকাশ : শনিবার, ২২ মে, ২০২১
  • ৮৯ Time View

ঢাকা: ‘তাজিন আহমেদ’ বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) যুগের দর্শক নন্দিত অভিনেত্রী। তিনি ছিলেন একাধারে একজন সাংবাদিক, অভিনেত্রী, উপস্থাপক ও লেখক।

তার অভিনীত প্রথম নাটক ‘শেষ দেখা শেষ নয়’ ১৯৯৬ সালে বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচারিত হয়। নাটকের পাশাপাশি তিনি ১৯৯৭ সাল থেকে থিয়েটারে অভিনয় করেছেন।

হুমায়ূন আহমেদের ‘নীল চুড়ি’ কিংবা আফসানা মিমির ‘বন্ধন’ দুটোতেই আলো ছড়িয়েছিলেন স্বমহিমায়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণ যোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিষয়ে পড়াশোনার ফাঁকে ১৯৯৪ সালে যুক্ত হন ভোরের কাগজ পত্রিকায়। ফুফু দিলারা জামান এদেশের স্বনামধন্য অভিনেত্রী,১৯৯৬ সালে শেখ নিয়ামত আলীর ‘শেষ দেখা শেষ নয়’ দিয়ে নাটকে অভিনয় শুরু করেন। এরপর যোগ দেন থিয়েটার আরামবাগে, আরন্যক নাট্যদলে ময়ুর সিংহাসনেও অভিনয় করেন। টিভি নাটকে ‘আঁধারে ধবল তৃপ্তি, সপ্তর্ষি, এক জীবনেসহ অনেক নাটকের অভিনয় করেছেন।

১৯৯১ সালেই ‘চেতনা’ নামক অনুষ্টান উপস্থাপনা করতেন বিটিভিতে, তবে আলোচিত হন এন টিভিতে টানা ‘টিফিনের ফাঁকে’ উপস্থাপনা করে। বিটিভিতেও একই ধারার একটা অনুষ্টান উপস্থাপনা করতেন। একাত্তর টিভিতে একাত্তর সকালের উপস্থাপক ছিলেন।

তার অভিনীত নাটকগুলির মধ্যে রয়েছে: শেষ দেখা শেষ নয় (১৯৯৬), ‘নীলচুড়ি, বন্ধন, অদেখা, ভুবন (২০০৪), উৎস (২০০৭), নলবাজি (২০০৭), পরস্পর (২০০৮), দ্য ফ্যামিলি (২০০৯), বার বার ফিরে আসে (২০০৯), ও বন্ধু আমার (২০০৯), মা (২০১৩), নকশাল (২০১৪), তোমার খোলা হাওয়া,
অত:পর বিবাহ বার্ষিকী, সাত পৌড়ে কাব্য, এক আকাশের তারা,

অভিনয় ও উপস্থাপনার বাইরে লেখালেখির কাজও করেছেন। তাঁর লেখা অনেক নাটক টেলিভিশনে প্রচারিত হয়। তাজিনের লেখা ও পরিচালনায় তৈরি হয় ‘যাতক’ ও ‘যোগফল’ নামে দুটি নাটক। তার লেখা উল্লেখযোগ্য নাটকগুলো হচ্ছে ‘বৃদ্ধাশ্রম’, ‘অনুর একদিন’, ‘এক আকাশের তারা’, ‘হুম’, ‘সম্পর্ক’ ইত্যাদি।

তাজিন আহমেদ ১৯৭৫ সালের ৩০ জুলাই নোয়াখালী জেলায় জন্মগ্রহণ করেন।

তিনি বিয়ে করেছিলেন নাট্য নির্মাতা এজাজ মুন্নাকে। কিন্তু সেই বিয়ে বেশি দিন টিকে নি। এরপর বিয়ে করেন ড্রামার রুমিকে, সেখানেই ভাল চলছিল। কিন্তু হঠাৎই ২০১৮ সালের ২২ মে বাসায় হৃদযন্ত্র ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মারা যান আলোচিত এ অভিনেত্রী।

Share This Post

আরও পড়ুন