শিরোনাম
সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১, ১২:৩৬ অপরাহ্ন

দেশব্যাপী ডিলার নিয়োগের নামে প্রতারণা, ডলফিন বেভারেজের দুই কর্মকর্তা গ্রেফতার

পরম বাংলাদেশ প্রতিবেদন / ৭৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর, ২০২০

ঢাকা: দেশব্যাপী ডিলার নিয়োগের নামে প্রতারণা করে মোটা অঙ্কের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে কথিত ডলফিন বেভারেজ ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডের দুই কর্মকর্তাকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১১।

বুধবার (২৫ নভেম্বর) বিকালে ঢাকার পল্টন থানাধীন কাকরাইল এলাকায় তাদের গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতরা হলো ওই কোম্পানির এক্সিকিউটিভ ডাইরেক্টর মো. নুর-উর-রহমান তালুকদার (৪৭) এবং এসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার মো. মজিবুল হক (৪২)।

তাদের অফিস হতে প্রতারণার কাজে ব্যবহৃত একটি কম্পিউটার মনিটর, একটি সিপিইউ, বিপুল পরিমাণ সরকারি অনুমোদনহীন ডলফিন ব্র্যান্ডের লোগোযুক্ত পণ্য ডলফিন জুস, ডলফিন আইস ললি, ডলফিন এনার্জী ড্রিংক, ডলফিন সয়াবিন তেল, ডিলার নিয়োগের চুক্তিপত্র, ব্যাংক জমা রশিদ, ভিজিটিং কার্ড, পণ্য অর্ডার কাটা বই, বিভিন্ন পণ্যের লেবেল এবং পণ্যের ক্যাটালগ জব্দ করা হয়।

র‌্যাব জানায়, তারা কথিত ‘ডলফিন ফুড এন্ড বেভারেজ ইন্ড্রাস্ট্রিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর আলম, তার স্ত্রী আয়েশা চৌধুরী এবং কোম্পানীর ম্যানেজিং ডাইরেক্টর অমরেশ চন্দ্র ঘোষের যোগসাজশে র্দীঘ দিন ধরে ডিলার নিয়োগের নামে পরিকল্পিতভাবে প্রতারণা করে সাধারণ মানুষের নিকট হতে মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ করে আসছে।

প্রতারণার জালে যেভাবে ফেলা হয়: ‘ডলফিন ফুড এন্ড বেভারেজ ইন্ড্রাস্ট্রিজ পণ্য বাজারজাত করার জন্য উচ্চ মুনাফার প্রলোভন দেখিয়ে ডিলার নিয়োগের নামে ফেসবুকসহ বিভিন্ন অনলাইন মাধ্যমে প্রচারণা চালায়।ফেসবুক ও অন্য অনলাইন মাধ্যমে তাদের প্রতারণামূলক চটকদার বিজ্ঞাপনের প্রচারণা দেখে সারাদেশের জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের বিভিন্ন ব্যবসায়ীরা আকর্ষিত হয়ে তাদের সাথে যোগাযোগ করে। রাজধানী ঢাকার বিভিন্ন অভিজাত এলাকায় সুসজ্জিত অফিস ভাড়া নিয়ে তারা ডিলারশীপ হতে আগ্রহী ব্যবসায়ীদের ডেকে নিয়ে এসে বিএসটিআইয়ের লোগো ব্যবহার করা ডলফিন ফুড এন্ড বেভারেজ ইন্ড্রাস্ট্রিজের বিভিন্ন ভুয়া ও অনুমোদনহীন পণ্য দেখিয়ে ফাঁদে ফেলে তাদের নিকট হতে মোটা অঙ্কের টাকা নেয়। ডিলারগণ টাকা পরিশোধের সর্বোচ্চ ৭২ ঘন্টার মধ্যে তাদের পণ্য পাবেন এমন মিথ্যা আশ্বাস দিয়ে তারা সাধারণ ব্যবসায়ীদের মোটা অঙ্কের টাকা আত্মসাৎ করে।

কয়েক জন ভুক্ত ভুগির অভিযোগ পেয়ে অভিযান চালিয়ে ওই দুই জনকে গ্রেফতার করার কথা জানিয়েছেন মো. জসিম উদ্দীন চৌধুরী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, র‌্যাব-১১।

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ