শিরোনাম
প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা তহবিলে এক কোটি টাকা অনুদান দিল চট্টগ্রাম চেম্বার প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের ছুটি বাড়ল ৩০ জুন পর্যন্ত নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলাম’র আইটি বিশেষজ্ঞ গ্রেফতার চট্টগ্রামে সাদার্ন ইউনিভার্সিটিতে দুই মাসব্যাপী আন্তঃবিভাগ বির্তক প্রতিযোগিতা শুরু নাভানাসহ সীতাকুণ্ডের সব কারখানায় ঈদুল আজহার আগে শ্রমিকদের বেতন-বোনাস দাবি পরিবেশ বিষয়ক গল্প : মন পড়ে রয় । নাজিম হোসেন শেখ পিএইচপি অটো মোবাইলসের তৈরি অ্যাম্বুলেন্স উপহার পেল চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল সোতোকান কারাতে স্কুল চট্টগ্রামের কারাতে বেল্ট প্রতিযোগিতা সম্পন্ন চট্টগ্রামের পাহাড় অপরাজনীতি, অপেশাদার আমলাগিরির শিকার হাটহাজারী নাজিরহাট কলেজে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন

তামাক বিরোধী সংগঠনগুলোর কর ও দাম প্রস্তাবের কোন প্রতিফলন নেই বাজেটে

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক / ৩৭ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৪ জুন, ২০২১

‘জীবন ও জীবিকার প্রাধান্য, আগামীর বাংলাদেশ’- এ শিরোনামে প্রস্তাবিত ২০২১-২২ অর্থ বছরের বাজেটের আকার ধরা হয়েছে ছয় লাখ তিন হাজার ৬৮১ কোটি টাকা। মন্ত্রিপরিষদ অনুমোদন দেওয়ায় বৃহস্পতিবার (৩ জুন) বিকাল তিনটায় জাতীয় সংসদে দেশের ১৫তম অর্থ মন্ত্রী হিসেবে আ হ ম মুস্তফা কামাল ২০২১-২২ অর্থ বছরের প্রস্তাবিত বাজেট উপস্থাপন করেছেন। স্বাধীন বাংলাদেশে এবারই প্রথম এতো বড় আকারের বাজেট পেশ করা হল, এ জন্য অর্থ মন্ত্রীকে ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন অব দি রুরাল পূয়র (ডর্‌প) এর পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন ।

অতিরিক্ত কর আরোপের কারণে এবারের বাজেটে তামাকজাত পণ্যের দাম বাড়বে। ‘সিগারেটের নিম্নস্তরের ১০ শলাকার দাম ৩৯ টাকা ও তদূর্ধ্ব এবং সম্পূরক শুল্ক ৫৭ শতাংশ ধার্যের প্রস্তাব করেন। এ ছাড়া মধ্যম স্তরের ১০ শলাকার দাম ৬৩ টাকা ও তদূর্ধ্ব, উচ্চ স্তরের ১০ শলাকার দাম ১০২ টাকা ও তদূর্ধ্ব, অতি উচ্চ স্তরের ১০ শলাকার দাম ১৩৫ টাকা ও তদূর্ধ্ব এবং এ তিনটি স্তরের সম্পূরক শুল্ক ৬৫ শতাংশ নির্ধারণ করার প্রস্তাব করেন। তামাক বিরোধীদের দাবি অনুযায়ী মূল্য স্তরভিত্তিক সুনির্দিষ্ট সম্পূরক শুল্ক আরোপ না করায় সরকার অতিরিক্ত ৩ হাজার ৪০০ কোটি টাকা রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হবে। তামাক কোম্পানিগুলোর আয় বাড়বে এবং তারা তামাকপণ্য বিক্রিতে আরো উৎসাহিত হবে, যা অত্যন্ত হতাশাজনক ও উদ্বেগজনক।

অন্যান্য কর প্রস্তাবগুলোর মধ্যে চুষে খাওয়ার তামাক, ধোঁয়াবিহীন তামাক বা অন্য সব তামাক প্রস্তুতকারক কোম্পানির ন্যূনতম কর অপরিবর্তিত থাকবে যেমন জর্দা, গুলসহ অন্য তামাকপ সব তামাক কোম্পানির বিদ্যমান ৪৫ শতাংশ করপোরেট কর বহাল রাখার পাশাপাশি সব প্রকার তামাকজাত পণ্য প্রস্তুতকারী করদাতার ব্যবসায় থেকে অর্জিত আয়ের উপর বিদ্যমান ২ দশমিক ৫ শতাংশ সারচার্জ বহাল রাখা হয়েছে। এতে করে আসঙ্কাজনক হারে তামাকপণ্যের ব্যাবহার বেড়ে যেতে পারে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

প্রস্তাবিত বাজেটের প্রতিক্রিয়ায় ডর্‌প এর তামাক নিয়ন্ত্রণ প্রকল্পের পক্ষ থেকে উপ নির্বাহী পরিচালক মোহাম্মদ জোবায়ের হাসান বলেন, ‘প্রস্তাবিত বাজেটে তামাক কোম্পানিগুলোর ব্যবসায়িক সুবিধার একটি বর্হিপ্রকাশ হয়েছে। এ অবস্থা চলতে থাকলে দেশের কিশোর এবং যুব সমাজ তামাক সেবনে নিরুৎসাহিত হবে না এবং দরিদ্র পরিবারগুলো আরো দরিদ্র অবস্থায় পৌঁছে যাবে। এতে করে চিকিৎসা ব্যয় অনেক বৃদ্ধি পাবে, যা আমাদের দেশের উন্নয়নের জন্য এক বিরাট হুমকি হয়ে দেখা দিবে।’

মোহাম্মদ জোবায়ের হাসান আরো বলেন, ‘তামাক বিরোধী সংগঠনগুলোর কর ও দাম প্রস্তাবের কোন প্রতিফলন নেই প্রস্তাবিত বাজেট। আশা করছি, সরকার গুরুত্বসহকারে বিষয়গুলো ভেবে দেখবেন এবং তামাক কর বৃদ্ধির প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

প্রেস বার্তা

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ