বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ০৩:৪৪ অপরাহ্ন

ঢাকার ‘হোপ-ইয়েক’র শুল্ক ফাঁকির কারসাজি রুখে দিলো চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২০
  • ৩৯৯ Time View

চট্টগ্রাম: ঢাকার ‘হোপ-ইয়েক (বাংলাদেশ) লিমিটেড নামের আমদানিকারক একটি প্রতিষ্ঠানের বিপুল পরিমাণ শুল্ক ফাঁকির কারসাজি রুখে দিয়েছে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস কর্তৃপক্ষ।

বন্ড সুবিধার আওতায় চীন থেকে পোশাক শিল্পের উপকরণ ঘোষণায় শর্ত সাপেক্ষে আমদানিযোগ্য এবং উচ্চহারে কর আরোপযোগ্য বিপুল পরিমাণ সিগারেট এনে ধরা খেল প্রতিষ্ঠানটি।

গোপন সংবাদের ভিত্তিতে কাস্টম হাউসের অডিট, ইনভেস্টিগেশন অ্যান্ড রিসার্চ (এআইআর) টিম এবং কাস্টমস গোয়েন্দা কর্তৃক বুহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) বিকাল সাড়ে পাঁচটার দিকে প্রতিষ্ঠানটির পণ্যবাহী ৪০ ফিট দৈর্ঘ্যের কনটেইনার আটক করে।

চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস কর্তৃপক্ষ জানায়, ঢাকা সাভারের ডিইপিজেডের (পশ্চিম) আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ‘হোপ-ইয়েক (বাংলাদেশ) লিমিটেড (Hop-Yick (Bangladesh limited) চীন হতে পোশাক শিল্পের উপকরণ ঘোষণায় সাড়ে আঠারো মেট্রিক টন পণ্য আমদানি করে। পণ্য খালাসের লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানটি চট্টগ্রামের দক্ষিণ আগ্রাবাদের চাঁন্দু করপোরেশনকে সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট হিসেবে নিয়োগ দেয়। চাঁন্দু করপোরেশন গত ৩ নভেম্বর কাস্টম হাউসে বিল অব এন্ট্রি (সি-২০০৪৮২) দাখিল করেন।

কিন্তু তৈরি পোশাক শিল্পের জন্য দেয়া শুল্কমুক্ত সুবিধায় পোশাক শিল্পের কাঁচামাল আমদানির কথা থাকলেও হোপ-ইয়েকের কনটেইনারে বিদেশী বিভিন্ন ব্রান্ডের সিগারেট পায় চট্টগ্রাম কাস্টম হাউসের এআইআর টিম।

এ টিমের এক কর্মকর্তা জানান, বৈদেশিক মুদ্রা আহরণের সবচেয়ে বড় খাত হিসেবে তৈরি পোশাক শিল্পের কাঁচামালসমূহ শুল্কমুক্তভাবে তড়িৎ খালাস দেয়া হয়। এ সুযোগের অপব্যবহার করে পোশাক শিল্পের কাঁচামাল ঘোষণায় ‘হাই ডিউটেবল’ সিগারেট আনলো হোপ-ইয়েক। এ সব সিগারেট ইচ্ছা করলেই আমদানি করা যায় না। শর্ত সাপেক্ষে আমদানি এবং এর জন্য উচ্চহারে ট্যাক্স পরিশোধ করতে হয়। শুল্প ফাঁকির উদ্দেশ্যই প্রতিষ্ঠানটির এমন কারসাজি করেছে।

এ ব্যাপারে মামলা দায়ের করার পাশাপাশি এই ঘটনায় কারা জড়িত তা খতিয়ে দেখছে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউস কর্তৃপক্ষ।

Share This Post

আরও পড়ুন