মঙ্গলবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০২:২৬ পূর্বাহ্ন

চট্টগ্রামে এল অ্যাস্ট্রেজেনকো-মর্ডানা ও সিনোফর্মের আরো তিন লাখ টিকা

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ : শুক্রবার, ৬ আগস্ট, ২০২১
  • ৩৬ Time View

চট্টগ্রাম: চট্টগ্রামে ষষ্ঠ বারের মত এসে পৌঁছেছে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনেকা, আমেরিকার মর্ডানা এমআরএনএ ও চীনের তৈরী সিনোফার্মের আরো তিন লাখ নয় হাজার ৬০০ ডোজ করোনা টিকা। তার মধ্যে দ্বিতীয় চালানে অ্যাস্ট্রেজেনেকার ২৭ কার্টুন, তৃতীয় চালানে মর্ডানার ৩২ কার্টুন ও চতুর্থ চালানে সিনোফার্মের ১৮৬ কার্টুন টিকা রয়েছে। অ্যাস্ট্রেজেনেকার দশ হাজার ৮০০ ভায়ালে এক লাখ আট হাজার ডোজ, মর্ডানার তিন হাজার ৮৪০ ভায়ালে ৩৮ হাজার ৪০০ ডোজ ও সিনোফার্মের ৮১ হাজার ৬০০ ভায়ালে এক লাখ ৬৩ হাজার ২০০ ডোজ টিকা রয়েছে।

শুক্রবার (৬ আগস্ট) সকাল সাতটায় বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালসের ফ্রিজার ভ্যানে করে আসা অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনেকা, মর্ডনা ও সিনোফার্ম মিলে মোট ২৪৫ কার্টন টিকা গ্রহণ করেন চট্টগ্রাম জেলার সিভিল সার্জন ডাক্তার সেখ ফজলে রাব্বি। এরপর টিকাগুলো সিভিল সার্জন কার্যালয়ের ইপিআই স্টোরে ওয়াক-ইন-কুলারে (ডব্লিউআইসি) দুই থেকে আট ডিগ্রী সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় সংরক্ষণ করা হয়।

এ সময় জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) আবদুল্লাহ আল-মাসুম, জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট প্লাবন কুমার বিশ্বাস, ওষুধ প্রশাসনের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সালমা সিদ্দিকা, জেলা ইপিআই সুপারিনটেনডেন্ট মো। হামিদ আলী ও কোল্ড চেইন টেকনিশিয়ান মো। জাফর উল্লাহ উপস্থিত ছিলেন। ভ্যাকসিন তদারকিতে ছিলেন সিভিল সার্জন কার্যালয়ের জেলা স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধায়ক সুজন বড়ুয়া, বেক্সিমকো ফার্মার ইনস্টিটিউশন অফিসার মোহাম্মদ ওয়াহিদ ও সিনিয়র স্টোর ম্যানেজার মোহাম্মদ মহসীন।

মর্ডানার টিকা সিটি এলাকায় ও সিনোফার্মের টিকা উপজেলা পর্যায়ে রেজিস্ট্রেশনকারীদের মাঝে প্রয়োগ অব্যাহত রয়েছে। যাদের বয়স ২৫ বছরের অধিক তারা জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করে এসএমএস প্রাপ্তি সাপেক্ষে টিকা গ্রহণ করতে পারছেন। অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনেকার প্রথম ডোজ নেওয়া চট্টগ্রামের এক লাখ পাঁচ হাজার ৪২৫ জন টিকা গ্রহীতা দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার অপেক্ষায় আছেন। আগামী রোববার (৮ আগস্ট) থেকে দ্বিতীয় ডোজের এ টিকা দেওয়া শুরু করা হবে।

সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ‘সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী যারা অতীতে অ্যাস্ট্রেজেনেকার প্রথম ডোজ টিকা গ্রহন করেছেন, তাদের জন্য মহানগরের নির্ধারিত কেন্দ্র ও উপজেলা পর্যায়ে শুক্রবার (৬ আগস্ট) পৌঁছে দেয়া হয়েছে। পাশাপাশি সিনোফার্মের টিকাগুলো উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও মর্ডানার টিকাগুলো সিটি কর্পোরেশন এলাকার নির্দিষ্ট কেন্দ্রে পৌঁছে দেয়া হয়েছে। যাদের বয়স ২৫ বছরের অধিক, তারা জাতীয় পরিচয়পত্রের মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন করে এসএমএস সাপেক্ষে টিকা গ্রহণ করছেন।’

জানা যায়, অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রেজেনেকার প্রথম ডোজ নেওয়া চট্টগ্রামের এক লাখ পাঁচ হাজার ৪২৫ জন টিকা গ্রহীতা দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার অপেক্ষায় আছেন। আগামী রোববার (৮ আগস্ট) থেকে দ্বিতীয় ডোজের এ টিকা দেওয়া শুরু করা হবে।

উল্লেখ্য, গত ৩১ জানুয়ারী প্রথম দফায় অক্সফোর্ডের অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি চার লাখ ৫৬ হাজার ডোজ, ৯ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় আরো তিন লাখ ছয় হাজার ডোজ, ১৮ জুন সিনোফার্মের তৈরি ৯১ হাজার ২০০ ডোজ, ১১ জুলাইি এক লাখ ৮৪ হাজার ডোজ এবং ২৮ জুলাই আমেরিকার তৈরি মর্ডানা এমআরএনএ এবং চীনের তৈরি সিনোফার্মের এক লাখ ৮৫ হাজার ২০০ ডোজ করোনা টিকা চট্টগ্রামে আসে। গত ৭ ফেব্রুয়ারী থেকে চট্টগ্রামে টিকাদান কার্যক্রম শুরু হয়।

Share This Post

আরও পড়ুন