ঢাকাবৃহস্পতিবার, ৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ঘাসফুলের ওয়েবিনারে বক্তারা: যুব সমাজই ইতিহাস সৃষ্টি করে

চট্টগ্রাম
নভেম্বর ২, ২০২২ ৭:২৮ অপরাহ্ণ
Link Copied!

চট্টগ্রাম: ‘ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ডের পূর্ণ সম্ভাবনাকে কাজে লাগাতে যুবাদের মূল্যায়ন করে দুষ্প্রাপ্য সম্পদ ও সময়কে কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যৎমুখী দীর্ঘ মেয়াদি পরিকল্পনা করা জরুরী। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সাথে শিল্প প্রতিষ্ঠানের যদি একটা যোগযোগ স্থাপন করা যায়, তাহলে কর্মমুখী শিক্ষা বাস্তবায়ন সম্ভব। উদ্যোক্তাদের নানা প্রশাসনিক জটিলতার সম্মুখীন হতে হয়। যুবদের সাথে সমাজের ও ব্যবসায়ের কানেকটিভিটি বাড়াতে হবে। নারীদের অর্থনীতির মূল জায়গায় আনতে হবে, তাদের সম্পৃক্ততা বাড়াতে হবে। ইনফরমাল সেক্টরে যে সব যুবরা কাজ করছে, তাদেরকে ধীরে ধীরে ফরমাল সেক্টরে নিয়ে আসতে হবে। যুবদের অনেকেই প্রশিক্ষণ নিচ্ছে। কিন্তু প্রশিক্ষণের পরে উদ্যোক্তা হতে তাদের অর্থের সংস্থান করে দিতে হবে। আমাদের দেশে কোভিডকালীন অর্থকষ্টে অনেকেই গ্রামে ফিরে গেছেন, এর একটি ইতিবাচক পরিবর্তনও লক্ষ্য করা যায়। গ্রামে ফিরে যাওয়া অনেকেই এখন কৃষি ক্ষেত্রে উদ্যোক্তা হিসেবে আত্ম প্রকাশ করছে। আমাদের সন্তানদের পড়ালেখার পাশাপাশি পরিবার থেকেই জীবনমুখী ধারণা দিতে হবে। বাংলাদেশে ব্যয় সাশ্রয়ী হিসেবে ইকো-টুরিজমে দারুণ সম্ভাবনা রয়েছে।’

ঘাসফুল আয়োজিত ওয়েবিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন।

মঙ্গলবার (১ নভেম্বর) জাতীয় যুব দিবস উপলক্ষে ঘাসফুলের প্রধান কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ‘চাকুরী প্রার্থী নয়, উদ্যোক্তা যুব গোষ্ঠীই সমৃদ্ধির চালিকা শক্তি’ শিরোনামে ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ছিল ‘প্রশিক্ষিত যুব, উন্নত দেশ,বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ।’

ঘাসফুলের চেয়ারম্যান মনজুর-উল-আমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও সঞ্চালনায় ওয়েবিনারে স্বাগত বক্তব্য দেন ঘাসফুলের সিইও আফতাবুর রহমান জাফরী। প্রফেসর এমএ সাত্তার মন্ডলের সংক্ষিপ্ত পরিচিতি উপস্থাপন করেন সংস্থার সহকারী পরিচালক সাদিয়া রহমান। ওয়েবিনারে মূল বক্তব্য উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এমএ. সাত্তার মন্ডল। প্যানেল আলোচক ছিলেন ইউসেপ বাংলাদেশের চেয়ারপার্সন পারভীন মাহমুদ, দৈনিক প্রথম আলো যুব কার্যক্রমের প্রধান সমন্বয়ক মুনির হাসান ও এসএমই ফাউন্ডেশনের মহা ব্যবস্থাপক ফারজানা খান। বক্তব্য দেন খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য গোলাম রহমান, পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. মশিয়ার রহমান, বাংলাদেশ ইন্সটিটিউট অব আইসিটির সিইও শহীদ উদ্দিন আকবর, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সাইদুর রহমান, ইউএনডিপির ইয়ুথ কো-অর্ডিনেটর মাহমুদুল হাসান, নওগাঁর যুব উদ্যোক্তা সোহেল রানা, রাসেল বাবু, নারী উদ্যোক্তা চট্টগ্রাম মুনাল মাহবুব, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের (চবির) শিক্ষার্থী মো. জোয়াদুল করিম, আউট সোর্সিং তরুণ উদ্যোক্তা মোন্তাসির গণি আইচম, ভোরের আলোর প্রধান সমন্বকারী শফিকুল ইসলাম খান, সংশপ্তকের নির্বাহী পরিচালক লিটন চৌধুরী, ইস্ট ডেল্টা ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী রাদিয়া আজিজ চৌধুরী ও প্রকৌশলী সনাতন চক্রবর্তী বিজয়।

মনজুর-উল-আমিন চৌধুরী বলেন, ‘একটি জাতির সবচেয়ে সংবেদনশীল অংশ হচ্ছে যুবরাই। এ উপমহাদেশে সূর্য সেনের নেতৃত্বে চট্টগ্রামের যুব বিদ্রোহ, তুরস্কের কামাল আতার্তুকের নেতৃত্বে যুগের পরিবর্তন সবকিছুই সৃষ্টি হয়েছে যুবাদের মাধ্যমে। যুগে যুগে যুবারাই ইতিহাস সৃষ্টি করেছে আর প্রবীণেরা সেই ইতিহাস লিখে গেছেন। আগামী বাংলাদেশে আমরা যে উদ্যোগ চাই, তা হল উদ্যোক্তা যুবগোষ্ঠী যেন সমৃদ্ধির চালিকা শক্তি হয়।’

ওয়েবিনারে দশটি সুপারিশমালা গৃহীত হয়।

ওয়েবিনারে সংযুক্ত ছিলেন ঘাসফুলের নির্বাহী পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক কবিতা বড়ুয়া, সাধারণ পরিষদের সদস্য সেলিমা হক, জাহানারা বেগম ও শাহানা মুহিত।

প্রেস বার্তা

Facebook Comments Box