রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১১:৫৯ অপরাহ্ন

গৌরীকেদার ভট্টাচার্য ও চট্টগ্রাম চির দিনের প্রেম: পর্ব দুই

লিয়াকত হোসেন খোকন
  • প্রকাশ : শনিবার, ৩০ জানুয়ারী, ২০২১
  • ৩০৬ Time View

চট্টগ্রাম জেলার আয়তন পাঁচ হাজার ২৮২ দশমিক ৯২ বর্গ কিলোমিটার। চট্টগ্রাম জেলার জনসংখ্যা ২০১১ সালের হিসাব অনুযায়ী ৭৯ লাখ ১৩ হাজার ৩৬৫ জন। চট্টগ্রাম জেলার প্রধান নদীর মধ্যে কর্ণফুলী, হালদা, সাঙ্গু এবং মুহুরী উল্লেখযোগ্য।

চট্টগ্রামের উল্লেখযোগ্য সংস্কৃতি হল আদিবাসীদের নববর্ষ বৈশাখী উৎসব; চৈত্র সংক্রান্তি; বর্ষবরণ; হালখাতা; পূণ্যাহ; নবান্ন; পৌষ পার্বণ; অন্ন প্রাশন ইত্যাদি।

কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য যে, এই সব আজ হারিয়ে যেতে বসেছে। পাহাড়, সমুদ্র, উপত্যকা, বন-বনানী রয়েছে চট্টগ্রাম জেলাতে। এ রকম বৈচিত্র্য বাংলাদেশের আর কোনো জেলায় নেই। চট্টগ্রাম জেলাকে প্রাচ্যের রাণী হিসেবে ডাকা হয়।

চট্টগ্রাম জেলার দর্শনীয় স্থানগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত; ফয়’স লেক; ওযার সিমেট্রি; ভাটিয়ারী লেক; ডিসি হিল; বাটালি হিল; বায়েজিদ বোস্তামীর মাজার; চন্দ্রনাথ পাহাড় ও মন্দির; বাঁশখালী ইকোপার্ক; জাতিতাত্বিক যাদুঘর; বাঁশখালী চা বাগান; মহামায়া লেক; মুহুরি প্রজেক্ট; খৈইয়াছড়া ঝর্ণা; বাঁশবাড়িয়া সমুদ্র সৈকত; গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকত; পারকি সমুদ্র সৈকত ও সন্দ্বীপ ইত্যাদি।

আর এসব দেখে দেখে হয়তো বা গলা ছেড়ে গাইবেন – এনেছি আমার শত জনমের প্রেম,
আঁখিজলে গাঁথা মালা;
ওগো সুদুরিকা, আজও কি হবে না শেষ
তোমারে চাওয়ার পালা……’
তখন মনের কোণে কী উঁকি দিবে না গৌরীকেদার ভট্টাচার্যের নামটি! গৌরীকেদার ভট্টাচার্য তো এই চট্টগ্রামেরই সন্তান। কিন্তু আমার স্মৃতিতে তিনি চিরকাল জেগে রইবেন। কারণ সত্তরের দশকের মাঝামাঝি সময়ে তাঁর সঙ্গে দেখা হয়েছিল বানারসে…….!

সেই স্মৃতি ভুলি নাই! তার হাতে হাত রেখেছিলাম, প্রায় সত্তরের কাছাকাছি বয়সকালে এসে সেই হাতের পরশ যেনো আজো পাই।

গৌরীকেদার ভট্টাচার্য, তোমার চট্টগ্রামে বহুবার গিয়েছি, হয়তো সেথায় তোমাকে দেখি নাই। কিন্তু বানারসে তোমার-আমার দেখা মরণের আগ পর্যন্ত হয়তো ভুলবো না! গৌরীকেদার ভট্টাচার্য তুমি আমার ভালোবাসা, তেমনি তোমার জন্মস্থান চট্টগ্রাম আমার চিরকালের প্রেম!

শেষ

Share This Post

আরও পড়ুন