মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:০৩ পূর্বাহ্ন

কোপ২৬কে সামনে রেখে ক্লাইমেট সায়েন্স কমিউনিকেটরদের খোঁজে ব্রিটিশ কাউন্সিল

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ : শনিবার, ৩১ জুলাই, ২০২১
  • ২৯ Time View

ঢাকা: বিশ্বজুড়ে জলবায়ু বিজ্ঞান নিয়ে সবাইকে উৎসাহিত করার মাধ্যমে তাদের আস্থা অর্জনে প্রভাব বিস্তারে সক্ষম এমন নেতৃবৃন্দের অনুসন্ধান চালাচ্ছে ব্রিটিশ কাউন্সিল। আর এ জন্য ফেমল্যাব ক্লাইমেট চেঞ্জ কমিউনিকেটরস প্রোগ্রামের আবেদন পত্র গ্রহণ করা হচ্ছে। এটি ফেমল্যাব সায়েন্স কমিউনিকেশন কমপিটিশনের একটি বিশেষ সংস্করণ, যার চুড়ান্ত পর্যায়টি অনলাইনে অনুষ্ঠিত হবে আগামী সেপ্টেম্বরে।

আলবেনিয়া, আজারবাইজান, বাংলাদেশ, বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা, বোতসোয়ানা, ব্রাজিল, চীন, কলম্বিয়া, ইথিওপিয়া, ভারত, ইন্দোনেশিয়া, জর্দান, কাজাখস্তান, মেক্সিকো, নেপাল, পাকিস্তান, পেরু, ফিলিপাইন, সার্বিয়া, তুরস্ক, উগান্ডা ও ভিয়েতনামের আগ্রহী সায়েন্স কমিউনিকেটরসরা এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

প্রাথমিকভাবে অংশগ্রহণকারীদের প্রথম করণীয় হচ্ছে ‘ট্রাস্ট ইন ক্লাইমেট চেঞ্জ’- এ বিষয়ের ওপর ইংরেজিতে নিজেদের তিন মিনিটের একটি ভিডিও তৈরি করে তা জমা দেয়া। ভিডিওগুলো পর্যালোচনা করে বিচারকদের মতামত অনুযায়ী সেরা দশজন মেধাবী স্টোরি টেলার’কে পরবর্তী পর্যায়ের জন্য নির্বাচিত করা হবে। নির্বাচিতরা তাদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে অনলাইনে দুই দিনব্যাপী মাস্টার ক্লাসে অংশগ্রহণ করবেন। মাস্টারক্লাস সেশনগুলো নিবেন বিশ্বের নেতৃত্বস্থানীয় সায়েন্স কমিউনিকেটরসরা।
নির্বাচিত দশজন পরবর্তী চুড়ান্ত পর্যায়ে অংশগ্রহণ করবেন। ‘ফেমল্যাব ক্লাইমেট চ্যালেঞ্জ কমিউনিকেটরস অনলাইন ফাইনালে’ প্রথম স্থান অর্জনের জন্য প্রতিযোগীরা অনলাইনে একে অন্যের মুখোমুখি হবেন। চলতি বছরের সেপ্টেম্বরে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া এ চূড়ান্ত পর্বটি ইউটিউবে সরাসরি সম্প্রচারিত হবে।

প্রতিযোগিতায় বিজয়ীর যাত্রা এখানেই শেষ হবে না। ফেমল্যাব ক্লাইমেট চেঞ্জ কমিউনিকেটর হিসেবে তিনি চলতি বছরের নভেম্বরে অংশ নিবেন https://www.britishcouncil.org/education/he-science/famelab- এ। এটি বিশ্বের অন্যতম শীর্ষস্থানীয় সায়েন্স কমিউনিকেশন কম্পিটিশন।

ফেমল্যাব প্রতিযোগিতাটি শেলটেনহাম ফেস্টিভালের নিজস্ব আয়োজন। ২০২১ সালে ব্রিটিশ কাউন্সিলের সাথে অংশীদারিত্বে প্রতিযোগিতাটির ১৫তম এবং সর্বশেষ সংস্করণ অনুষ্ঠিত হবে। অনলাইনের মাধ্যমে বিশ্ববাপী সম্পৃক্ততা তৈরি করা ও ফেমল্যাবের সাথে ব্রিটিশ কাউন্সিলের পার্টনারশিপের উদযাপন, সব মিলিয়ে গ্লোবাল সায়েন্স কমিউনিকেশনের নেতৃত্বস্থানীয় প্রতিযোগিতা হিসেবে এবারের আয়োজনটি অত্যন্ত আকর্ষণীয় ও অসাধারণ হতে যাচ্ছে।

বাংলাদেশে ফেমল্যাবের যাত্রা শুরু হয় ২০১৭ সালে। ফেমল্যাব বাংলাদেশের মাধ্যমে দুইজন জাতীয় পর্যায়ের বিজয়ী পাওয়া গেছে, যারা ইংল্যান্ডের শেলটেনহাম সায়েন্স ফেস্টিভালে দেশের পতাকা তুলে ধরেছিলেন। বিজয়ীরা হলেন আলভী ইসলাম (২০১৭-১৮) এবং এএসএম আফরিন বিন নূর আবিদ (২০১৮-১৯)। দুই বছরেই অন্যান্য সব দেশের প্রতিযোগীদের মাঝে আমাদের দেশের বিজয়ীরা সেরা দশজন সায়েন্স কমিউনিকেটরের মাঝে জায়গা করে নিয়েছেন। এরপর থেকেই তারা সায়েন্স কমিউনিকেশনের সাথে নিজেদের সক্রিয় অংশগ্রহণ বজায় রেখেছেন।

জলবায়ু পরিবর্তনের বিরুদ্ধে আলোচনা, পারস্পরিক সহযোগিতা ও কার্যক্রমে অংশ নেয়ার জন্য ব্রিটিশ কাউন্সিলের একটি বৈশ্বিক প্ল্যাটফর্ম হলো দ্য ক্লাইমেট কানেকশন প্রোগ্রাম। এ প্রোগ্রামের অনেকগুলো কর্মকাণ্ডে একটি অংশ হল- এ ফেমল্যাব ক্লাইমেট চেঞ্জ কমিউনিকেশন। ব্রিটিশ কাউন্সিলের দ্য ক্লাইমেট কানেকশন প্রোগ্রাম পারস্পরিক সহযোগিতা ও সৃজনশীল সমাধান তৈরির মাধ্যমে ইংল্যান্ড থেকে শুরু করে সারা বিশ্বের প্রায় ২০ কোটি মানুষকে একই প্ল্যাটফর্মে নিয়ে এসেছে।

ব্রিটিশ কাউন্সিলের পাবলিক এনগেজমেন্ট বিভাগের সিনিয়র কনসালটেন্ট আদ্রিয়ান ফেন্টন বলেন, ‘জলবায়ু পরিবর্তন প্রতিরোধে বিশ্বব্যাপী মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করার লক্ষ্যে আসন্ন কোপ২৬ সম্মেলনকে সহযোগিতা করতে পেরে ব্রিটিশ কাউন্সিল গর্বিত। ক্লাইমেট কানেকশন ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে আমরা আমাদের শিক্ষা, শিল্প ও সাংস্কৃতিক আদান-প্রদান বিষয়ক বিশেষজ্ঞদের নিয়ে সৃজনশীল উপায়ে জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা মোকাবিলায় এর সমাধান বের করার চেষ্টা করব।’

ফেমল্যাব ক্লাইমেট চেঞ্জ কমিউনিকেটরস’র ওয়েবসাইট-https://www.britishcouncil.org/famelab-climate-change-communicators. ফেমল্যাব ক্লাইমেট চেঞ্জ কমিউনিকেটরস’এ ভিডিও গ্রহণ করা হবে আগামী ৫ আগস্ট পর্যন্ত- https://www.britishcouncil.org/education/he-science/famelab-climate-change-communicators/enter. আগামী সেপ্টেম্বরে প্রতিযোগিতাটি অনলাইনে সম্প্রচারিত হবে।

প্রেস বার্তা

Share This Post

আরও পড়ুন