ঢাকাবুধবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

কবিতা: অদৃশ্য প্রেম । নন্দিতা ভট্টাচার্য্য

নন্দিতা ভট্টাচার্য্য
ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২১ ২:২৭ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

তোর কাপে ঠোঁট ডুবিয়ে হয়তো সে চা খাবে।
আমার আর খাওয়া হবে না বোধকরি।

ঘুম না এলে গান শুনিয়ে তোর বর তোকে চুম কেটে ঘুম পাড়িয়ে দিবে।
আমার আর তোকে কল করে সকাল বেলার তোর ঘুমন্ত বকাঝকা শুনা হবে না।

তোর পছন্দের বাসন্তী শাড়িটা সে এনে দিবে নিশ্চয়।
আমার হাতে রাখা এই শাড়িখানা আর তোকে দেওয়া হবে না।

জানি,
সকাল বেলা যখন তোর ঘুম ভাঙবে না,
তখন কাছে এসে চুপটি করে জড়িয়ে ধরে তোকে বলবে ‘বউ সোনা’।
কোমল কোমল চুমুর আবেশে ভরিয়ে দিবে তোকে,

রাগ করলে এক পা তুলে দাঁড়িয়ে থাকবে শোকে।
গভীর ভালোবাসার বৃত্ত হবে,
প্রেমে হবে সমান্তরাল।

সকল ছোঁয়ায় তোর ভরসা হবে
মেতে থাকবে ঘর দুয়ার।
সকাল বেলা কাটবে দিন জামা
ম্যাচে অন্তহীন।

এরপর খাওয়া দাওয়া তারপরে তার ভাবনা ভাবা।
তড়িঘড়ি করে রান্না করবি গভীর মনোযোগে,

আচ্ছা তখন খুব ব্যস্ত হবি ফোন কি ধরবি না মোটেও?
দুই একবার বকবক করা আর হবে না বোধ হয় সেটাও।
তখন তোর অনেক তাড়া জামাইকে নিয়ে রাত পাহারা।
আমার কথা ভুলেই যাবি আমি শেষে আস্তাকুঁড়ে,
তুই থাকিস তার বুক ঘেঁষে
উদোম খোলা লোমশ বুকে নাক ডুবিয়ে চুপটি করে
জড়িয়ে তুই বাসবি ভালো ফাঁকে থাক না একটু আলো।

আমি প্রমিস জ্বালাবো না আর শুধু বারেক ফিরে চাইবো একবার।
শীতল দীঘির ঘাটে এসে এক ডুবে যাব ভেসে
ভালো থাকিস বড্ড বেশি অভিমান করা ছেড়ে।
নতুন মানুষ আগলে রাখিস আমায় দিস না হয় ছেড়ে।

জীবন হলো রঙের কাগজ ,
মনের দুয়ার বদ্ধ আগল।
শেষ বেলায় সূর্যোদয়ে একটু ভালোবাসিস।
আমি যে এখনও তোরই আছি
তুই যত দূর ঠেলে দিস।

Facebook Comments Box