রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৩:০৮ পূর্বাহ্ন

কক্সবাজারে তিন প্রতিষ্ঠানের হোটেল ও পর্যটন সুবিধা নির্মাণে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন

পরম বাংলাদেশ প্রতিবেদন
  • প্রকাশ : শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ১৩৭ Time View

কক্সবাজার: কক্সবাজারের সাবরাং ট্যুরিজম পার্কে তিনটি প্রতিষ্ঠান কর্তৃক হোটেল ও পর্যটন সুবিধা নির্মাণে ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠান শনিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) পার্কটিতে অনুষ্ঠিত হয়। প্রতিষ্ঠান তিনটি হল- গ্রেট আউটডোর এন্ড অ্যাডভেঞ্চার লিমিটেড, গ্রিন অরচার্ড হোটেল এন্ড রিসোর্টস লিমিটেড এবং সানসেট বে লিমিটেড।

গ্রেট আউটডোর এন্ড অ্যাডভেঞ্চার তিন একর জমিতে প্রায় ছয় মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগে পর্যটনবান্ধব বিভিন্ন স্থাপনা গড়ে তুলবে। এর মধ্যে রয়েছে স্নোরকেলিং, স্কুবা ডাইভিং, প্যারাসেইলিং, জেট স্কিইং, প্যাডেল বোর্ডিং, বিচ ভলিবল, বিচ বোলিং ইত্যাদি।

গ্রিন অরচার্ড হোটেল এন্ড রিসোর্টস দেড় একর জমিতে প্রায় সাড়ে সাত মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগে গড়ে তুলবে ২১০টি রুম বিশিষ্ট থ্রি স্টার হোটেল, রিক্রিয়েশন সেন্টার এবং কনভেনশন সেন্টার।

সানসেট বে এক একর জমিতে প্রায় ১৯ দশমিক ২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার বিনিয়োগে ৩৭০টি রুম বিশিষ্ট পাঁচ তারকা হোটেলসহ পর্যটনবান্ধব স্থাপনা তৈরী করবে।

বেজার নির্বাহী চেয়ারম্যান পবন চৌধুরী এবং গ্রেট আউটডোর এন্ড অ্যাডভেঞ্চার ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোহেলুর রহমান, গ্রিন অরচার্ড হোটেল এন্ড রিসোর্টস লিমিটেড এবং সানসেট বে’র চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইশতিয়াক আহমেদ পাটোয়ারি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

পবন চৌধুরী বলেন, ‘বাংলাদেশ অর্থনৈতিক অঞ্চলের হাত ধরে বাংলাদেশ পর্যটন-বান্ধব সুস্থ পরিবেশ গড়ে তুলতে সমর্থ হবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাবরাং ট্যুরিজম পার্কের মাস্টারপ্ল্যান সংক্রান্ত সভায় দ্রুত পর্যটন আকর্ষণে প্রয়োজনীয় স্থাপনা নির্মাণের যে নির্দেশনা প্রদান করেন, তারই প্রেক্ষিতে আজ বেজা নয়নাভিরাম সমুদ্র সৈকতে এ ট্যুরিজম পার্কটি গড়ে তুলতে যাচ্ছে।

গ্রিন অরচার্ড হোটেল এন্ড রিসোর্টস এবং সানসেট বে লিমিটেডের চেয়ারম্যান ও ম্যানেজিং ডিরেক্টর ইশতিয়াক আহমেদ পাটোয়ারি বলেন যে, তারা দ্রুত কাজ শুরু করে সর্ব প্রথম হোটেল নির্মাণ করতে চান যাতে পর্যটকগণ দেশের এই অনন্য পর্যটন স্পটে এসে নীল সাগরের জলরাশি উপভোগ করতে পারেন। পর্যটনকে সমৃদ্ধ করার এ পরিকল্পনার জন্য তারা বেজার এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানান।

গ্রেট আউটডোর এন্ড অ্যাডভেঞ্চার ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোহেলুর রহমান বলেন যে, তারা স্নোরকেলিং, স্কুবা ডাইভিং, প্যারাসেইলিং, জেট স্কিইং, প্যাডেল বোর্ডিং, বিচ ভলিবল, বিচ বোলিং সুবিধাসহ আধুনিক পর্যটনবান্ধব স্থাপনা গড়ে তুলতে চান।

নিউজ রিলিজ

Share This Post

আরও পড়ুন