মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৪:৫০ পূর্বাহ্ন

এফডিসির চট্টগ্রাম কেন্দ্র থেকে বাংলা সংস্কৃতির ধারক ও বাহক সিনেমা নির্মিত হবে 

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশ : সোমবার, ৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
  • ৮৩ Time View
চট্টগ্রাম: তথ্য ও সম্প্রচার প্রতি মন্ত্রী ডাক্তার মো. মুরাদ হাসান রোববার (৫ সেপ্টেম্বর) সকালে বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) চট্টগ্রাম কেন্দ্র পরিদর্শন করেছেন। এ কেন্দ্রের দশ একর জায়গা হতে সম্প্রতি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনকে (বিএফডিসি) এব দশমিক ৩০ একর জায়গা বরাদ্দ দেওয়া হয়। প্রতি মন্ত্রী বরাদ্দকৃত জায়গার সীমানা ও জায়গাটির সরেজমিন অবস্থা অবলোকন করেন।
বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রে স্থাপিত জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে তিনি পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। তিনি সেখানে একটি নিম গাছের চারা রোপণ করেন। এ সময় তিনি বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের করোনা প্রতিরোধক বুথ, ফটোগ্যালারি, বার্তা শাখা, প্রশাসন শাখা, অভিযোগ বক্স, নতুন সম্প্রচার টাওয়ার, ড্রামা স্টুডিয়ো পরিদর্শন করেন। তিনি কেন্দ্রের নতুন নিউজ স্টুডিয়ো উদ্বোধন করেন। এ সময় নতুন নিউজ স্টুডিয়ো থেকে প্রতিকী নিউজ বুলেটিন প্রচার করা হয়।
পরে কেন্দ্রের কর্মকর্তা কর্মচারি ও সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে প্রতি মন্ত্রী বলেন, ‘এফডিসির চট্টগ্রাম কেন্দ্র নির্মিত হলে এখান থেকে বাংলা সংস্কৃতির ধারক ও বাহক সিনেমা নির্মিত হবে। এ কেন্দ্রে নতুন সিনেমার শ্যুটিং হবে। ফলে নতুন নতুন মেধাবি পরিচালক, শিল্পী ও কলাকুশলী তৈরি হবে। বাংলা সংস্কৃতির অঙ্গন সমৃদ্ধ হবে।’
প্রতি মন্ত্রী আরো বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু বাঙালি জাতিকে মাথা উঁচু করে বাঁচতে শিখিয়েছেন। বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশে সোনার মানুষ দরকার। তাই সবাইকে সোনার মানুষ হয়ে সততা নিয়ে কাজ করতে হবে। প্রধান মন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।’
তিনি বলেন, ‘বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলায় কোন খুনি গুপ্তঘাতকের ঠাঁই হবে না। পাকিস্তানের দালালের ঠাঁই হবে না। জিয়া ছিল পাকিস্তানের পক্ষের লোক। তাই তার মরনোত্তর বিচার হতে হবে। একই সাথে জিয়া পরিবারেরও বিচার হতে হবে। বঙ্গবন্ধুর সৈনিকেরা জিয়া পরিবারের বিচার অবশ্যই করবে।’
এফডিসির ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুজহাত ইয়াসমিন, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক মো. মফিজুর রহমান, চট্টগ্রাম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ডাক্তার ইসমাইল হোসেন খান, জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ডা. বিদ্যুৎ বড়ুয়া, বিটিভি চট্টগ্রাম কেন্দ্রের জিএম নিতাই কুমার ভট্টাচার্যসহ তথ্য মন্ত্রণালয়াধীন বিভিন্ন দপ্তরের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।
বিকালে প্রতি মন্ত্রী চট্টগ্রাম সিটির সাবেক মেয়র প্রয়াত এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরী ও স্বাধীনতা যুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রয়াত আতাউর রহমান খান কায়সারের কবর জেয়ারত করেন।

Share This Post

আরও পড়ুন