বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ১০:১৬ অপরাহ্ন

উল্ফসকে হারিয়ে শিরোপার আরো কাছে ম্যানচেস্টার সিটি

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক
  • প্রকাশ : শুক্রবার, ১৩ মে, ২০২২
  • ২০ Time View

কেভিন ডি ব্রুইনার চার গোলে বুধবার (১১ মে) উল্ফসকে ৫-১ গোলে হারিয়ে প্রিমিয়ার লিগ শিরোপার আরো কাছে পৌঁছে গেছে ম্যানচেস্টার সিটি। এ জয়ে শিরোপা প্রত্যাশী আরেক দল লিভারপুলের থেকে তিন পয়েন্ট এগিয়ে গেল সিটিজেনরা।

দিনের আরেক ম্যাচে ইউনাইটেডকে ৩-০ গোলে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টিকে থাকা অনেকটাই নিশ্চিত করে ফেলেছে লিডস। এ ম্যাচটি উভয় দলের জন্যই বেশ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। উত্তর লন্ডনের এ সফরে যাওয়ার আগে চেলসির শীর্ষ চারে টিকে থাকার জন্য পাঁচ পয়েন্টে প্রয়োজন ছিল। অন্য দিকে, লিডসের সামনে রেলিগেশন থেকে রক্ষা পাবার একটি সুযোগ ছিল। কিন্তু ম্যাসন মাউন্ট, ক্রিস্টিয়ান পুলিসিচ ও রোমেলু লুকাকুর গোলে চেলসির সহজ জয় নিশ্চিত হয়।

মঙ্গলবার (১০ মে) এ্যাস্টন ভিলাকে ২-১ গোলে হারিয়ে লিভারপুলও সিটির পয়েন্ট সমান হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু ডি ব্রুইনা কাল কোন ধরনের অঘটন ঘটতে দেয়নি। জমে ওঠা শিরোপা লড়াইয়ে বেলজিয়ান এ তারকা অনেকটা একাই পেপ গার্দিওলার দলকে জয় উপহার দিয়েছেন। ম্যাচের সাত মিনিটেই বার্নান্ডো সিলভার পাস থেকে ডি ব্রুইনা সিটিকে এগিয়ে দেন। চার মিনিট পর অবশ্য লিন্ডার ডেনডোনকারের গোলে সমতায় ফিরেছিল উল্ফস। কিন্তু এর পর আর সিটিকে পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। ১৬ ও ২৪ মিনিটে পর পর দুই গোল করে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন ডি ব্রুইনা। এর পর ৬০ মিনিটে পোস্টের খুব কাছে থেকে বল জালে জড়িয়ে নিজের চতুর্থ গোল পূরণ করেন। ৮৪ মিনিটে দলের হয়ে পঞ্চম গোলটি করেন রাহিম স্টার্লিং।

ডি ব্রুইনায়ের দুর্দান্ত এ পারফরমেন্সের কারণে সিটির এখন শেষ দুই ম্যাচে চার পয়েন্ট অর্জিত হলেই পাঁচ বছরের মধ্যে চতুর্থ লিগ শিরোপা নিশ্চিত হবে।

ম্যাচ শেষে ডি ব্রুইনার প্রশংসা করতে ভুল করেননি গার্দিওলা, ‘অপ্রতিরোধ্য, দুর্দান্ত, অসাধারণ, চমৎকার, নিখুঁত। ডি ব্রুইনার মধ্যে এ বিশেষ গুণগুলোর সবগুলোই রয়েছে। সে গোল করতে ভালবাসে। আর এবারের মৌসুমে সে এটাই বার বার করে দেখিয়েছে।’

আগামী রোববার (১৫ মে) ওয়েস্ট হ্যামের বিপক্ষে জিততে পারলে সিটি জার্গেন ক্লপের লিভারপুলের থেকে ছয় পয়েন্টের ব্যবধানে এগিয়ে যাবে। এর আগে গত রোববারও (৮ মে) নিউক্যাসলের বিপক্ষে সিটিজেনরা ৫-০ গোলের জয় তুলে নিয়েছিল। আর বড় এ জয়ের সুবাদে ইতিমধ্যেই লিভারপুলের তুলনায় সাত গোল এগিয়ে রয়েছে গার্দিওলার শিষ্যরা। অথচ ইনজুরিতে থাকার কারণে ডিফেন্ডার রুবেন ডিয়াস, জন স্টোনস ও কাইল ওয়াকার মৌসুমের বাকি ম্যাচগুলোতে আর খেলতে পারবেন না। কাল অমারিক লাপোর্তে দ্বিতীয়ার্ধের ১৫ মিনিটের পর আর খেলতে পারেননি।

জানুয়ারির পর থেকে লিভারপুল যেভাবে সিটির সাথে শিরোপা দৌঁড়ে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে, তাতে গার্দিওলার দলকে এখনো সতর্ক থাকতে হবে। এপ্রিলে লিভারপুলের সাথে ড্র করার পর সিটি টানা পাঁচ ম্যাচে জয় নিশ্চিত করেছে। এ ম্যাচগুলোতে ২২ গোল করার বিপরীতে হজম করেছে মাত্র দুইটি।

Share This Post

আরও পড়ুন