ঢাকাবুধবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

উবার এখন বাংলাদেশের ২০টি শহরে

ঢাকা
সেপ্টেম্বর ৩, ২০২২ ৯:২৫ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ঢাকা: এখন থেকে দেশের আটটি বিভাগের ২০টি শহরে পাওয়া যাবে উবার। নিরাপদ, ঝামেলামুক্ত ও সাশ্রয়ী যোগাযোগের সেবা প্রদানের মাধ্যমে ব্যবহারকারীদের আস্থাভাজন রাইডশেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম হিসেবে নিজেকে প্রতিষ্ঠা করেছে উবার। রেন্টাল, সিএনজি, ইন্টারসিটি, কানেক্ট, মটো ইত্যাদির মত দুই, তিন ও চার চাকার বিভিন্ন ধরনের সার্ভিস উবারের প্ল্যাটফর্মে আছে। এর ফলে শহর জুড়ে চলাচল এখন আগের তুলনায় অনেক সহজ হয়ে উঠেছে। পাশাপাশি, এর মাধ্যমে আরো বেশি সংখ্যক চালকদের জন্য উপার্জনের সুযোগ সৃষ্টি হচ্ছে।

বর্তমানে ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, সিলেট, বগুড়া, বাগেরহাট, বরিশাল, রংপুর, ময়মনসিংহ, যশোর, কুমিল্লা, মৌলভীবাজার, নীলফামারী, শ্রীমঙ্গল, ফেনী, দিনাজপুর, খুলনা ও কক্সবাজারে উবারের সেবা চালু আছে। এছাড়া, পুরো দেশজুড়ে একটি বাটনে চাপের মাধ্যমে সহজেই রাইডশেয়ারিং সুবিধা প্রদানের উদ্দেশ্যে সম্প্রতি ১৯ ও ২০তম শহর গাজীপুর ও নাটোরে মটো সেবা চালু করেছে উবার। এখন ২০টি শহরের প্রতিটিতেই উবার মটো চালু আছে, উবারএক্স চালু আছে পাঁচটি শহরে, উবার প্রিমিয়ার একটি শহরে, উবার সিএনজি তিনটি শহরে, রেন্টাল তিনটি শহরে, ইন্টারসিটি চারটি শহরে ও উবারএক্সএল চালু আছে দুইটি শহরে।

দেশজুড়ে ব্যবসায় সম্প্রসারণের এ মাইলফলক অর্জন উপলক্ষে উবারের বাংলাদেশ ও পূর্ব ভারত প্রধান মো. আরমানুর রহমান বলেন, ‘বাংলাদেশজুড়ে ২০টি শহরে সেবা সম্প্রসারণ করতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। এর মাধ্যমে যাত্রী ও চালক সবাই আমাদের সেবা গ্রহণ করতে পারছেন। উবারের কাছে কমিউনিটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা গর্বিত যে, সাড়ে পাঁচ বছরের কিছু বেশি সময়ের মধ্যে এসব শহরের মানুষদের জীবনে আমরা ছাপ ফেলতে পেরেছি। গ্রাহকদের যাতায়াতের চাহিদা পূরণে দ্বিগুণ উদ্যমে কাজ করার লক্ষ্য নিয়ে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। এ জন্য বাজারে কোন পণ্যের প্রয়োজনীয়তা বেশি, সে বিষয়টি গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করছি আমরা। আমাদের যাত্রা সবে শুরু হচ্ছে। সামনের বছরগুলোতে আরো অনেক মাইলফলকের অর্জন উদযাপনের ব্যাপারে আমরা আশাবাদী।’

সম্প্রতি চালকদের জন্য বেশ কিছু নতুন ফিচারও চালু করেছে উবার। এসব ফিচার তাদের সুচিন্তিত সিদ্ধান্ত নিতে সাহায্য করবে। চালক ও যাত্রী উভয়ের হতাশা দূর করতে উবার এখন আগে থেকেই চালকদের ট্রিপের গন্তব্য দেখায়। এর ফলে চালকরা গন্তব্য দেখে ট্রিপ নিতে পারেন। এটি ট্রিপ শুরু হওয়ার আগে চালকদের ভাড়া পরিশোধের পদ্ধতিও (নগদ বা অনলাইন) দেখায়। ফলে চালকরা নিজেদের পছন্দমত শুধু নগদ টাকা দিয়ে ভাড়া পরিশোধ করা হবে এমন রাইড বেছে নিতে পারেন। এসব নতুন ফিচার চালু হওয়ার ফলে, রাইড ক্যান্সেলেশন নিয়ে চালক ও যাত্রীদের দীর্ঘ দিনের করা অভিযোগের পরিমাণ কমে আসছে।

Facebook Comments Box