মঙ্গলবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন

উপকূলের শান্তির দূত সাংবাদিক আকরামের প্রচেষ্টায় আলোর পথে আসলো আরো ৩৪ জলদস্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ১২ নভেম্বর, ২০২০
  • ২১৭ Time View

চট্টগ্রাম: পেকুয়া উপজেলার রাজাখালী ইউনিয়নের মো. ইউনুছ প্রকাশ বাইট্ট্যা ইউনুছের বিরুদ্ধে ২০০৩ সালে একটি ডাকাতি মামলা হয়। সেই থেকে তার বিরুদ্ধে ডাকাতি, অস্ত্র ও হত্যাসহ ১৪টি মামলা চলছে। সে ২০০৩ সাল থেকে জীবনের প্রতিটা সময় কাটিয়েছে আতঙ্কে। তার সেই কালো এবং অন্ধকার জীবন শেষ করে আলোর পথে আসার ইচ্ছা পূরণে এগিয়ে আসলেন উপকূলের শান্তির দূত সাংবাদিক আকরাম হোসাইন। তার মধ্যস্ততায় অস্ত্রসহ আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছে মো. ইউনু্ছ।

সাংবাদিক আকরামের দীর্ঘ দেড় বছরের প্রচেষ্টায় বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) সকালে বাঁশখালীতে চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের উপকূলীয় অঞ্চলের আরো ৩৪ জলদস্যু অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ র‌্যাবের তত্বাবধানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে আত্মসমর্পণের মধ্য দিয়ে আলোর পথে ফিরে আসলো।

এর আগে ২০১৮ সালের ২০ অক্টোবর সাংবাদিক আকরামেরই উদ্যোগে মহেশখালী ও কুতবদিয়ার পাঁচ বাহিনীর ৩৭ দলদস্যু আত্মসমর্পণের পর উপকূলীয় অঞ্চলের জলদস্যুদের উপর এর ইতিবাচক প্রভাব পড়ে। ফলে বাঁশখালী, মহেশখালী ও কুতুবদিয়া অঞ্চলের জলদস্যুরা তাদের দস্যু জীবনের অবসান ঘটিয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসতে উৎসাহী হয়। তাদের উৎসাহের পথে সেতু হিসেবে কাজ করছেন সাংবাদিক আকরাম।

আকরাম হোসাইনের প্রচেষ্টায় পরবর্তী গত ২০১৯ সালের ২৩ নভেম্বর মহেশখালী ও কুতুবদিয়ার ৯৬ জন জলদস্যু আত্মসমর্পণ করে।

এভাবে সাংবাদিক আকরামের দীর্ঘ প্রচেষ্টার ফলে ২০১৮ সালের ২০ অক্টোবর ৫ বাহিনীর ৩৭ সদস্য, ২০১৯ সালের ২৩ নভেম্বর ৯৬ জন এবং ২০২০ সালের ১২ নভেম্বর (আজ বৃহস্পতিবার) ১১ বাহিনীর ৩৪ জনসহ চট্টগ্রাম ও কক্সবাজারের বাঁশখালী, মহেশখালী ও কুতুবদিয়ার মোট ১৬৭ জন জলদস্যু আত্মসমর্পণের মাধ্যমে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে এসেছে।

এ কৃতিত্বের জন্য সাংবাদিক আকরাম হোসাইনকে আজ র‌্যাবের মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আলম মামুনের পক্ষ থেকে প্রশংসাপত্র দেওয়া হয়েছে। এতে র‌্যাবের মহাপরিচালক বলেছেন, ‘বাঁশখালী, মহেশখালী, কুতুবদিয়া ও পেকুয়ায় জলদস্যু মুক্তকরণে র‌্যাবের অভিযানিক কর্মকান্ডে সর্বাত্মক সহযোগিতা প্রদান করে এশিয়ান টেলিভিশনের নিজস্ব প্রতিবেদক মীর মোহাম্মদ আকরাম হোসাইন প্রশসংনীয় ভূমিকা পালন করেছেন।’

সাংবাদিক আকরাম হোসাইন কক্সকাজার জেলার পেকু্য়া উপজেলার উজানভাটিয়া ইউনিয়নের অধিবাসী। এভাবে শান্তি ফেরানোর কাজে অব্যাহত থাকুক আকরাম হোসাইনের পথচলা- তার বন্ধুদের প্রত্যাশা।

বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) দুপুর ১২টার দিকে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালের কাছে নিজেদের ব্যবহার করা ৯০টি দেশি বিদেশি অস্ত্র ও প্রায় দুই হাজার গোলা-বারুদ জমা দেয় আত্মসমর্পণ করা ৩৪ জলদস্যু।

র‌্যাব-৭ অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল মো. মশিউর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সাংসদ ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি শামসুল হক টুকু, বাঁশখালীর সাংসদ মোস্তাফিজুর রহমান, সাংসদ আশেকউল্লাহ রফিক, আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ, জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, র‌্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সারওয়ার।

এদিকে, আজ আত্মসমর্পণের ঘটনায় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার অঞ্চল জলদস্যুমুক্ত হবার পথে অনেক দূর এগিয়ে যাবে বলে আশা করেছে র‌্যাব।

Share This Post

আরও পড়ুন