ঢাকাশনিবার, ৩রা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

আমার ভালোবাসা জাজিরা; তবে ঘৃণা আল জাজিরা টিভি চ্যানেলে

লিয়াকত হোসেন খোকন
ফেব্রুয়ারি ৪, ২০২১ ২:০১ অপরাহ্ণ
Link Copied!

জাজিরা উপজেলা বাংলাদেশের শরিয়তপুর জেলার অন্তর্গত একটি প্রশাসনিক এলাকা। জাজিরা উপজেলার আয়তন মোট ২৩৯ দশমিক ৫৩ বর্গকিলোমিটার। জাজিরা উপজেলার জনসংখ্যা ২০১১ সালের হিসাব অনুযায়ী মোট ১ লাখ ৯৪ হাজার ১৯ জন।

জাজিরা উপজেলার ইউনিয়ন সমূহ হল জয়নগর, নাওডোবা, পালের চর, পূর্ব নাওডোবা, বড় কৃষ্ণনগর, বড় গোপালপুর, বড়কান্দী, বিলাসপুর, মূলনা, সেনের চর, জাজিরা, কন্ডের চর।

জাজিরার প্রধান কৃষি ফসল হল ধান, পাট, গম, সরিষা, পিঁয়াজ, রসুন, কালিজিরা, শাকসবজি।

বিলুপ্ত বা বিলুপ্ত প্রায় ফসলাদি হল কাউন, তিসি, ছোলা।

প্রধান ফলফলাদি হল আম, জাম, কাঁঠাল, কলা, বেল।

মুক্তিযুদ্ধের ঘটনাবলী হল ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় এ অঞ্চলে পাকিস্তানি হানাদারদের সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাদের বেশ কয়েকটি খণ্ডযুদ্ধ সংঘটিত হয়। ওই সময় স্থানীয় রাজাকাররা দক্ষিণ নমকান্দি গ্রাম পুড়িয়ে দেয় এবং ব্যাপক ধ্বংস ও হত্যাযজ্ঞ চালায়। মুক্তিযুদ্ধের সময় জাজিরা উপজেলার বেশ কয়েক জন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন।

জাজিরা উপজেলার উল্লেখযোগ্য হাটবাজার হল কাজীরহাট, লাউখোলা হাট।

জাজিরায় প্রশাসন থানা স্থাপিত হয় ১৯৭৩ সালে এবং জাজিরা থানাকে উপজেলায় রূপান্তর করা হয় ১৯৮৩ সালে। ওই বছরের ২৪ মার্চ শহীদ ল্যান্স নায়েক মুনসি আবদুর রউফ বীরশ্রেষ্ঠের মাতা মোসম্মৎ মফদুন্নিসা জাজিরা উপজেলার উদ্বোধন করেন।

জাজিরা উপজেলার উত্তরে লৌহজং ও টঙ্গীবাড়ী উপজেলা; দক্ষিণে শরিয়তপুর সদর ও নড়িয়া; পূর্বে নড়িয়া উপজেলা, পশ্চিমে শিবপুর ও মাদারীপুর সদর উপজেলা।

শরিয়তপুর জেলার অন্যতম জাজিরা উপজেলা জেলা সদর হতে ১২ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে অবস্থিত।

জাজিরা পদ্মা নদীর ভাঙ্গন কবলিত এলাকা। প্রতি বছরই নদী ভাঙ্গনের কারণে উপজেলার অংশ সংকুচিত হচ্ছে এবং বাস্তুভিটাহীন লোকের সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। তবে জাজিরা উপজেলার প্রাকৃতিক সৌন্দর্য খুবই মনোমুগ্ধকর। নদী ভ্রমণের জন্য জাজিরা চমৎকার স্পট।

শরিয়তপুরের বৃহত্তর জনগোষ্ঠী জাজিরা উপজেলার উপর দিয়ে মাঝিরঘাট সড়ক ব্যবহার পূর্বক পদ্মা নদী পার হয়ে ঢাকা যাতায়াত করে থাকেন।

জাজিরা একটি আরবী শব্দ। এর অর্থ দ্বীপ। আর এ শব্দ হতেই পুরনো যুগের কোন মুসলিম নেতা এর নাম লিখেছিলেন জাজিরা। আর জাজিরা লেখা থেকে এ উপজেলার নামকরণ করা হয়েছিল জাজিরা।।

বাংলাদেশের এই জাজিরা উপজেলার নাম চুরি করে জাজিরা এর সঙ্গে আল নাম যুক্ত করে আল জাজিরা নামে একটি বিতর্কিত টিভি চ্যানেল রয়েছে। জাজিরা নাম চুরি করার জন্য আল জাজিরা টিভি চ্যানেলের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক আদালতে মামলা করা যেতে পারে।

Facebook Comments Box