শিরোনাম
প্রধানমন্ত্রীর সহায়তা তহবিলে এক কোটি টাকা অনুদান দিল চট্টগ্রাম চেম্বার প্রাথমিক বিদ্যালয় ও কিন্ডারগার্টেনের ছুটি বাড়ল ৩০ জুন পর্যন্ত নিষিদ্ধ জঙ্গি সংগঠন আনসার আল ইসলাম’র আইটি বিশেষজ্ঞ গ্রেফতার চট্টগ্রামে সাদার্ন ইউনিভার্সিটিতে দুই মাসব্যাপী আন্তঃবিভাগ বির্তক প্রতিযোগিতা শুরু নাভানাসহ সীতাকুণ্ডের সব কারখানায় ঈদুল আজহার আগে শ্রমিকদের বেতন-বোনাস দাবি পরিবেশ বিষয়ক গল্প : মন পড়ে রয় । নাজিম হোসেন শেখ পিএইচপি অটো মোবাইলসের তৈরি অ্যাম্বুলেন্স উপহার পেল চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল সোতোকান কারাতে স্কুল চট্টগ্রামের কারাতে বেল্ট প্রতিযোগিতা সম্পন্ন চট্টগ্রামের পাহাড় অপরাজনীতি, অপেশাদার আমলাগিরির শিকার হাটহাজারী নাজিরহাট কলেজে বৃক্ষ রোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন
রবিবার, ১৩ জুন ২০২১, ০৮:৩৬ পূর্বাহ্ন

আমাদের এমন কোন অঙ্গ নেই, যেখানে যক্ষা হয় না

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক / ৩৬ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : বুধবার, ২৪ মার্চ, ২০২১

চট্টগ্রাম: টিউবারকুলোসিস (টিবি) বা যক্ষা শুধু ফুসফুসের ব্যাধি নয়, এটি মস্তিস্ক থেকে শুরু করে ত্বক, অন্ত্র, লিভার, কিডনি ও হাড়সহ শরীরের যে কোন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে সংক্রমণ হতে পারে বলে জানিয়েছেন চট্টগ্রাম জেলার সিভিল সার্জন ডাক্তার সেখ ফজলে রাব্বি।

তিনি বলেন, ‌‌‌‌ফুসফুসে যক্ষার জীবাণু সংক্রমিত হলে টানা কয়েক সপ্তাহ কাশি ও কফের সাথে রক্ত যায়। আমাদের এমন কোন অঙ্গ নেই, যেখানে যক্ষা হয় না। যক্ষা হচ্ছে একটি বায়ুবাহিত ব্যাকটেরিয়াজনিত সংক্রামক ব্যাধি, যেটা মাইক্রোব্যাকটেরিয়াম টিউবারকুলোসিস জীবাণুর সংক্রমণে হয়ে থাকে। বর্তমান সরকারের আন্তরিকতার কারণে যক্ষা রোগীদের চিকিৎসায় দেশের হাসপাতাল ও স্বাস্থ্য কেন্দ্রগুলোতে পর্যাপ্ত পরিমাণ চিকিৎসা সামগ্রী রয়েছে। পরিবারে যক্ষা রোগী থাকলে শিশুসহ অন্য সবাইকে চিকিৎসকের পরামর্শ মতে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। যক্ষা সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে নিকটস্থ হাসপাতালে যোগাযোগ করতে হবে। চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের সমন্বিত উদ্যোগের ফলে যক্ষা নির্মূল সম্ভব।’

২৪ মার্চ (বুধবার) বিকালে চট্টগ্রাম সিটির আন্দরকিল্লাস্থ চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে বিশ্ব যক্ষা দিবসের আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে- ‘মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, যক্ষা মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার’। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের জাতীয় যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচীর সহযোগিতায় চট্টগ্রাম বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক, সিভিল সার্জন অফিস ও সহযোগী সংস্থাসমূহ সভার আয়োজন করে।

সভাপতির বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, ‌দেশের মোট জনসংখ্যার একটি অংশ জন্মগতভাবে যক্ষা রোগের জীবাণু বহন করে। যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দূর্বল ও ডায়াবেটিসে আক্রান্ত, তাদের এ রোগের ঝুঁকি বেশি। পরিবেশ দূষণ, দরিদ্রতা, মাদকের আসক্তি ও অপুষ্টি যক্ষার হার বাড়ার অন্যতম কারণ। এ রোগের লক্ষণ দেখা দিলে ভয় না করে সঠিক সময়ে চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে। তাহলে নির্দিষ্ট সময়ে এ রোগ পুরোপুরি সেরে যাবে। সারা দেশে সরকারী হাসপাতাল ও কমিউনিটি ক্লিনিকগুলোতে প্রয়োজনীয় সংখ্যক চিকিৎসক-কর্মচারী নিয়োগ দেয়ার কারণে সাধারণ জনগণ চিকিৎসা সেবা পাচ্ছে। সরকারী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাশাপাশি যক্ষা রোগীদের জন্যও সারা দেশে নির্ধারিত কিছু হাসপাতাল রয়েছে। সরকার আগামীতে জনবল আরো বৃদ্ধি করলে সব সরকারী হাসপাতালে সেবার মান আরো দৃশ্যমান হবে। মাঠ পর্যায়ে জনগণের কাঙ্খিত স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত হলে সরকার ও স্বাস্থ্য অধিদফতরের ভাবমূর্তি আরো উজ্বল হবে।’

সভার আগে সিভিল সার্জন কার্যালয়ের সামনে বিশ্ব যক্ষা দিবসের স্ট্যান্ডিং র‌্যালি উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি বিভাগীয় পরিচালক (স্বাস্থ্য) ডাক্তার হাসান শাহরিয়ার কবীর।

টিবি ক্লিনিকের কনসালট্যান্ট ডাক্তার মোস্তফা নুর মোর্শেদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় মূল বিষয় উপস্থাপন করেন বিভাগীয় টিবি এক্সপার্ট ডাক্তার বিশাখা ঘোষ। সভায় বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম আন্দরকিল্লা ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালট্যান্ট (মেডিসিন) ডাক্তার মো. আবদুর রব, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাক্তার মোহাম্মদ আসিফ খান, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার (রাগ নিয়ন্ত্রণ) ডাক্তার মো. নুরুল হায়দার, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার এসআইএমও ডাক্তার এসএম জাহিদ, আইসিডিডিআরবির মেডিকেল অফিসার ডাক্তার শাওন বড়ুয়া, বেসরকারী সংস্থা ব্র্যাকের জেলা ম্যানেজার জামাল আহমদ ও মমতার পরিচালক শিবগাতুল আরিফ। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জেলা স্বাস্থ্য তত্ত্বাবধায়ক সুজন বড়ুয়া ও যক্ষা নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচীর প্রোগাম অর্গানাইজার গাজী মো. নুর হোসেন।

প্রেস বার্তা

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ