ঢাকাবুধবার, ২৮শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

আন্তজার্তিক টি-২০ থেকে অবসরের ঘোষণা মুশফিকের

admin
সেপ্টেম্বর ৪, ২০২২ ৬:৪৩ অপরাহ্ণ
Link Copied!

ঢাকা: আন্তর্জাতিক টি-২০ ক্রিকেট থেকে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক মুশফিকুর রহিম। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এ খবর নিজেই জানিয়েছেন ৩৫ বছর বয়সী মুশফিক।

নিজের ভেরিফাইড পেইজে এক স্ট্যাটাসে রোববার (৪ সেপ্টেম্বর) মুশফিক লিখেন, ‘সবাইকে সালাম শুভেচ্ছা। দীর্ঘ ক্রিকেট ক্যারিয়ারের যাত্রায় আমি আপনাদের সবাইকে পাশে পেয়েছি। ভাল এবং খারাপ দুই সময়েই আপনাদের অকুন্ঠ সমর্থন আমাকে প্রেরণা যুগিয়েছে। টি টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ক্যারিয়ার থেকে আজ আমি অবসর নিচ্ছি।’

মুশফিক আরো লিখেন, ‘তবে, বাংলাদেশের হয়ে টেস্ট ও ওয়ানডে খেলা চালিয়ে যাব। আশা করছি, এ দুই ফরম্যাটে আমি দেশের জন্য আরো কিছু বয়ে নিয়ে আসতে পারব। টি-টোয়েন্টি ফর্মেটে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগসহ (বিপিএল) অন্যান্য ফ্র্যাঞ্চাইজি লিগে আমি আমার খেলা চালিয়ে যাব।
আলহামদুল্লিাহ। সবার নিকট কৃতজ্ঞতা। ধন্যবাদ। আল্লাহ হাফেজ।’

২০০৬ সালের ২৮ নভেম্বরে খুলনায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আন্তর্জাতিক টি-২০ অভিষেক হয় মুশফিকের। দেশের তৃতীয় ক্রিকেটার হিসেবে ১০০ ম্যাচ খেলেছেন তিনি। ছয়টি হাফ-সেঞ্চুরিতে ১৯ দশমিক ৪৮ গড়ে দেড় হাজার রান করেছেন মুশফিক। স্ট্রাইক রেট ১১৫ দশমিক ০৩।

মুশফিকের টি-২০ ক্যারিয়ারের সেরা ইনিংস অপরাজিত ৭২ রান। দুই বার খেলেছেন অপরাজিত ৭২ রানের ইনিংস। ২০১৮ সালের মার্চে নিদাহাস ট্রফিতে শ্রীলংকার বিপক্ষে ৩৫ বলে পাঁচটি চার ও চারটি ছক্কায় অপরাজিত ৭২ রান করেন মুশফিক। তার ব্যাটিং নৈপুণ্যে ঐ ম্যাচে পাঁচ উইকেটে জিতেছিল বাংলাদেশ। এছাড়াও ঐ টুর্নামেন্টে ভারতের বিপক্ষে ৫৫ বলে আটটি চার ও একটি ছক্কায় অপরাজিত ৭২ রান করেছিলেন মুশি। তবে ঐ ম্যাচে ১৭ রানে হেরে যায় বাংলাদেশ।

উইকেটের পেছনে ৮২ ইনিংসে মুশফিকের ডিসমিসাল ৬২। এর মধ্যে ৩২টি ক্যাচ ও ৩০টি স্টাম্পিং। এছাড়াও ২০১১-২০১৪ সাল পর্যন্ত টি-২০ দলের অধিনায়কত্ব করেছেন মুশফিক। তার নেতৃত্বে ২৩ ম্যাচে আটটি জয়, ১৪টি হার ও একটি ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়।

অভিষেকের পর ২০১৮ সালেই সবচেয়ে বেশি রান করেছেন মুশফিক। ১৬ ইনিংসে তিনটি হাফ-সেঞ্চুরিতে ৩৯৭ রান করেন তিনি। গত কয়েক বছর ধরে এ ফরম্যাটে ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারছিলেন না মুশফিক। চলমান এশিয়া কাপে গ্রুপ পর্বে দুই ম্যাচে আফগানিস্তান ও শ্রীলংকার বিপক্ষে যথাক্রমে এক ও চার রান করেন তিনি।

অধিনায়ক হিসেবে ২৩ ম্যাচের ১৯ ইনিংসে একটি হাফ-সেঞ্চুরিতে ৪১৮ রান করেন মুশফিক। আর শুধুমাত্র ব্যাটার হিসেবে ৭৯ ম্যাচের ৭৪ ইনিংসে পাঁচটি হাফ-সেঞ্চুরিতে এক হাজার ৮২ রান করেন তিনি।

দেশের হয়ে এখন পর্যন্ত ৮২ টেস্টে পাঁচ হাজার ২৩৫ রান ও ২৩৬ ওয়ানডেতে ছয় হাজার ৭৭৪ রান করেছেন মুশফিক।

Facebook Comments Box