শিরোনাম
মারা গেলেন বাংলা একাডেমির সভাপতি শামসুজ্জামান খান কাপ্তাই হ্রদে মাছ ধরা বন্ধকালীন দশ উপজেলায় এক হাজার মেট্রিক টন চাল বরাদ্ধ মানসিক স্বাস্থ্য সুরক্ষায় ‌‌‌‌‌এক্সপ্রেসিভ সাইকোথেরাপি: বিদ্যায়তনিক পাঠ ও গণ প্রয়োগ কবিতা: আছি সেই সুদিনের অপেক্ষাতে । শ্রাবন্তী বড়ুয়া করোনার চিকিৎসায় পাহাড়তলীতে সিএমপি-বিদ্যানন্দ ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপন মাছ আহরণ নিষিদ্ধকালে জেলেদের জন্য ৩১ হাজার মেট্রিক টন ভিজিএফ চাল বরাদ্দ রমজানে রোগবালাই ও স্বাস্থ্য সুরক্ষায় করণীয় হাইকোর্টের আদেশ অমান্য করে উড়িরচরে সীমানা পিলার স্থাপনের প্রতিবাদ সন্দ্বীপবাসীর মাউন্টেন ভ্যালির আইভেক্টোসল ও আইভোমেকের প্রথম ধাপের ট্রায়াল শুরু এল রহমতের মাস মাহে রমজান
বৃহস্পতিবার, ১৫ এপ্রিল ২০২১, ০৩:০০ পূর্বাহ্ন

আগামী এপ্রিলে কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক / ৯৩ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : সোমবার, ২২ মার্চ, ২০২১

চট্টগ্রাম: জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও ক্ষুদে ডাক্তারের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম ১-১৪ এপ্রিল উপলক্ষে চট্টগ্রাম জেলা এডভোকোম সভা (২২ মার্চ) সোমবার সকাল সাড়ে দশটায় নগরীর আন্দরকিল্লাস্থ জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের অডিটরিয়ামে অনুষ্টিত হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার ফাইলেরিয়াস নির্মূল, কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও ক্ষুদে ডাক্তার কার্যক্রমের বাস্তবায়নে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় এডভোকেসী সভার আয়োজন করে।
সিভিল সার্জন ডাক্তার সেখ ফজলে রাব্বির সভাপতিত্বে ও জেলা স্বাস্থ্য তত্বাবধায়ক সুজন বড়ুয়ার সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মেডিকেল অফিসার (রোগ নিয়ন্ত্রণ) ডাক্তার মোহাম্মদ নুরুল হায়দার। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাক্তার মোহাম্মদ আসিফ খান।

সেখ ফজলে রাব্বি বলেন, ‘আগামী ১-১৪ এপ্রিল দুই সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠিত হবে কৃমি নিয়ন্ত্রণ ও ১৫-৩০ এপ্রিল পর্যন্ত দুই সপ্তাহব্যাপী ক্ষুদে ডাক্তারের মাধ্যমে শিক্ষাথীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা কার্যক্রম। জেলার প্রত্যেক উপজেলার ৫-১৬ বছর বয়সী প্রাথমিক ও মাধ্যমিক পর্যায়ের শিক্ষার্থী, বিদ্যালয় বহির্ভূত, ঝড়ে পড়া পথ শিশু, শ্রমজীবী শিশু ও বেদে পরিবারের শিশুসহ সব শিশুকে ক্ষুদে ডাক্তারদের মাধ্যমে এক ডোজ কৃমি নাশক ট্যাবলেট ‘মেবেন্ডাজল-৫০০ মিলি গ্রাম’ খাওয়ানো হবে। এটি চুষে খাবার ট্যাবলেট নয়, ভরা পেটে পানি দিয়ে গিলে খাওয়াতে হবে। কোন শিশু পুরো ট্যাবলেট গিলে খেতে অসমর্থ হলে তাকে জোর না করে অন্য ট্যাবলেট ভেঙ্গে টুকরা টুকরা করে গিলে খাওয়ানো যেতে পারে। কর্মসূচি সফল করতে গণমাধ্যমসহ সর্বত্র ব্যাপক প্রচার-প্রচারণার ব্যবস্থা করা হবে। জেলা প্রশাসন, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি বা স্থানীয় সরকারের প্রতিনিধিগণের সাথে পরামর্শক্রমে জাতীয় কৃমি নিয়ন্ত্রণ কর্মসূচী সফল করার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হবে।’

তিনি আরো বলেন, ‘শিশুদের স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে তৃতীয় থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষাথীদের মধ্যে থেকে বাচাই করে ক্ষুদে ডাক্তার টিম গঠন করা হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকলে প্রধান শিক্ষক বা শ্রেণি শিক্ষকের পরামর্শ নিয়ে শিক্ষার্থীদের ওজন মাপানো, উচ্চতা নিধারণ, দৃষ্টিশক্তি ও পুষ্টিহীনতা নির্ণয়সহ স্বাস্থ্য পরীক্ষায় তারা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। নিজেরা নিজের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সজাগ থাকার পাশাপাশি পরিবার ও সমাজকে এ বিষয়ে সচেতন করবে। স্বাস্থ্য কর্মীরা নির্দিষ্ট সময়ে বিদ্যালয়গুলো (খোলা থাকা সাপেক্ষে) পরিদর্শনের মাধ্যমে ক্ষুদে ডাক্তারদের কার্যক্রম তদারকি করবে। একই সাথে স্বাস্থ্য পরীক্ষার তালিকা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থার জন্য সংশ্লিষ্ট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রেরণ করতে প্রতিষ্টান প্রধানকে আন্তরিক থাকতে হবে। উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এবং স্বাস্থ্য পরিদর্শকগণকেও এ ব্যাপারে সুদৃষ্টি রাখতে হবে।’

সভায় অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট হোসাইন মোহাম্মদ, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এসএম জিয়াউল হায়দার হেনরী, জেলা তথ্য অফিসের উপ-পরিচালক সাঈদ হাসান ও সহকারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. কফিল উদ্দিন।

প্রেস বার্তা

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ