ঢাকাশুক্রবার, ৭ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

অভিনেতা ও পরিবেশ প্রেমী টাইটানিকের সেই জ্যাকের ৪৬ বসন্ত পার

admin
নভেম্বর ১১, ২০২০ ৫:১৬ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

পরম বাংলাদেশ ডেস্ক: টাইটানিক মুভিতে জ্যাক ডসন চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যম বিশ্বব্যাপী বিপুল পরিচিতি লাভ করেন ফর্সা ও ছিমছাম এক তরূণ। বিশেষ করে এ মুভিতে তার প্রেমিকা রোজকে বাঁচাতে নিজে পানিতে ডুবে মরার দৃশ্যটির বিশ্বের কোটি কোটি তরূণীকে কাঁদিয়েছে। এই এক মুভির মাধ্যমে তরুণীদের ক্রেজে পরিণত হন লিওনার্দো।

অভিনেতা ও পরিবেশপ্রেমী টাইটানিকের সেই জ্যাক জীবনের ৪৬ বসন্ত পার করলেন। তার পুরো নাম লিওনার্দো ভিলহেল্ম ডিক্যাপ্রিও।
আজ ১১ নভেম্বর ডিক্যাপ্রিওর ৪৬তম জন্মদিন।

লিওনার্দো একজন মার্কিন চলচ্চিত্র অভিনেতা, প্রযোজক এবং পরিবেশবাদী। তাকে প্রায়ই জীবনীনির্ভর ও কালসীমানির্ভর চলচ্চিত্রে এবং প্রথার বাইরের চরিত্রে অভিনয় করতে দেখা যায়।

১৯৭৪ সালে আমেরিকার লস অ্যাঞ্জেলেসে জন্মগ্রহণকারী ডিক্যাপ্রিও ১৯৮০ এর দশকের শেষ ভাগে টেলিভিশন বিজ্ঞাপনে কাজের মাধ্যমে তার কর্মজীবন শুরু করেন। ১৯৯০ এর দশকে শুরুতে তিনি বিভিন্ন টেলিভিশন ধারাবাহিক, যেমন সিটকম প্যারেন্টহুড-এ একাধিক পর্বে অভিনয় করেনন।

২০১৯ সাল হিসাবে তার চলচ্চিত্রসমূহ বিশ্বব্যাপী ৭.২ বিলিয়ন ডলার আয় করেছে এবং বিশ্বের সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক গ্রহীতা অভিনয় শিল্পীর তালিকায় তিনি অষ্টম স্থান অধিকার করেন।

তার প্রথম বড় মাপের কাজ ছিল দিস বয়স লাইফ এবং হোয়াটস ইটিং গিলবার্ট গ্রেপ এ পার্শ্ব চরিত্রে অভিনয় করে তিনি সমাদৃত হন এবং শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

তিনি মহাকাব্যিক প্রণয়ধর্মী টাইটানিক চলচ্চিত্রে জ্যাক ডসন চরিত্রে অভিনয় করে বিশ্বব্যাপী তারকা খ্যাতি লাভ করেন। ছবিটি সে সময় ও পরবর্তী এক দশক সর্বোচ্চ আয়কারী চলচ্চিত্র ছিল।

এরপর তার অভিনীত কয়েকটি চলচ্চিত্র বাণিজ্যিকভাবে ব্যর্থ হয়।

পরে তিনি ২০০২ সালে জীবনীমূলক চলচ্চিত্র ক্যাচ মি ইফ ইউ ক্যান এবং ঐতিহাসিক চলচ্চিত্র গ্যাংস অফ নিউ ইয়র্ক-এ অভিনয় করেন। গ্যাংস অফ নিউ ইয়র্ক-এর মাধ্যমে ডিক্যাপ্রিও পরিচালক মার্টিন স্কোরসেজির সাথে জুটি গড়ে তোলেন, যা পরবর্তীতে বেশকিছু সফল চলচ্চিত্রের নেপথ্যে ছিল।

ডিক্যাপ্রিও হাওয়ার্ড হিউজের জীবনীনির্ভর দ্য অ্যাভিয়েটর (২০০৪) এবং রাজনৈতিক রোমহর্ষক ব্লাড ডায়মন্ড (২০০৬)-এ অভিনয়ের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

এছাড়া তিনি দি অ্যাভিয়েটর-এ অভিনয়ের জন্য তার প্রথম সেরা নাট্য অভিনেতা বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার লাভ করেন এবং অপরাধ নাট্যধর্মী দ্য ডিপার্টেড (২০০৬) ও প্রণয়মূলক নাট্যধর্মী রেভলূশন্যারি রোড (২০০৮) চলচ্চিত্রে অভিনয় করে সমাদৃত হন।

২০১০ এর দশকে ডিক্যাপ্রিও বিজ্ঞান কল্প কাহিনিনির্ভর চলচ্চিত্র ইনসেপশন (২০১০) পশ্চিমা ধারার জ্যাঙ্গো আনচেইন্ড (২০১২), জীবনীনির্ভর দ্য উলফ অফ ওয়াল স্ট্রিট (২০১৩) চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন।

‘দ্য উলফ অফ ওয়াল স্ট্রিট’ চলচ্চিত্রের জন্য তিনি সেরা সঙ্গীতধর্মী বা হাস্যরসাত্মক অভিনেতা বিভাগে গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার লাভ করেন এবং একাডেমি পুরস্কারের মনোনয়ন লাভ করেন।

ডিক্যাপিও অস্তিত্ব বিদ্যমানতা নির্ভর ও নাট্যধর্মী চলচ্চিত্র দ্য রেভেন্যান্টে (২০১৫) এ হিউ গ্লাস চরিত্রে অভিনয়ের জন্য প্রথমবারের মত শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে একাডেমি পুরস্কার ও বাফটা পুরস্কার এবং তৃতীয় গোল্ডেন গ্লোব পুরস্কার লাভ করেন।

লেখক ও পরিবেশবাদী টাইটানিকের সে জ্যাক অভিনয়ে এখন অনেক পরিপক্ব। জন্মদিনে তাকে প্রাণঢালা শুভেচ্ছা।

Facebook Comments Box